kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

খুটাখালী খালে সেতু নির্মাণ জরুরি

নাইক্ষ্যংছড়ির ১০ গ্রামের মানুষ সীমাহীন কষ্টে

মনু ইসলাম, বান্দরবান   

৩০ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নাইক্ষ্যংছড়ির ১০ গ্রামের মানুষ সীমাহীন কষ্টে

শুধু একটি সেতুর অভাবে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার কাগজীখোলা এলাকার ১০ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেতুর অভাবে ফাঁসিয়াখালী হয়ে কক্সবাজার জেলার ডুলাহাজারা বাজার ও চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাথে সরাসরি যোগাযোগ নেটওয়ার্কও গড়ে ওঠছে না।

সরেজমিন দেখা গেছে, খুটাখালী খালের ওপারে বাইশারী ইউনিয়নের ১০টি গ্রাম রয়েছে।

এলাকায় রয়েছে দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুটি মাদরাসা, একটি উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, একটি পুলিশ ফাঁড়ি, মসজিদ, মক্তব, বৌদ্ধবিহার, কয়েকটি রাবারবাগান রয়েছে। কিন্তু ছড়ার উপর একটি মাত্র সেতু না থাকায় বিস্তীর্ণ এলাকাটির কয়েক হজোর মানুষকে বিপন্ন জীবনযাপন করতে হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা এবং নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিক আবদুল হামিদ জানান, রাবারবাগান ছাড়াও এই এলাকার বিপুল পরিমাণ জমিতে ফলদ ও বনজ বাগানসহ কৃষি জমি রয়েছে। কিন্তু খুটাখালী ছড়ার উপর সেতু না থাকায় উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করায় ব্যঘাত ঘটছে। ফলে ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এলাকাবাসী।

তিনি জানান, এলাকায় অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের পায়ে হেঁটে খাল পার হতে হচ্ছে। এর ফলে বর্ষাকালে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পড়াশোনা করতে বাধ্য হতে হচ্ছে।

এলাকাবাসী জানান, কাগজীখোলা পুলিশ ফাড়ি সংলগ্ন খুটাখালী খালের উপর একটি সেতু নির্মাণ করা হলে কাগজীখোলা বাজারে মালামাল পরিবহন এবং পার্শ্ববর্তী ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর হবে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন জানান, একটি মাত্র সেতুর অভাবে আমরা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আদিম যুগের মতো জীবনযাপনে বাধ্য হচ্ছি।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ডাক্তার আজগার আলী বলেন, ‘দশ গ্রামের হাজার মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন নির্ভর করছে এই একটি মাত্র সেতুর উপর। কিন্তু গত কয়েক যুগেও এই সমস্যাটি সংশ্লিষ্ট কারো নজরে না পড়ায় সমস্যা সমাধানে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।’

কাগজীখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইনস্পেক্টর মোহাম্মদ মনির বলেন, ‘খুটাখালী খালের উপর সেতু না থাকায় এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা কার্যক্রমেও সীমাহীন সমস্যা পোহাতে হচ্ছে পুলিশ বাহিনীকে।’

তিনি জানান, সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় নাগরিকদের জন্যে প্রয়োজনীয় সেবা নিশ্চিত এবং অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হচ্ছে না।

বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলম কোম্পানী জানান, খুটাখালী ছড়ার উপর একটি পাকা সেতু নির্মাণের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

তিনি জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের আসন্ন সমন্বয় সভায় বিষয়টি উপস্থাপন করা হবে। ইউপি চেয়ারম্যান আলম কোম্পানী খুটাখালী খালের উপর একটি পাকা সেতু নির্মাণের জন্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়কমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপির হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মন্তব্য