kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

নারী উদ্যোক্তা

হুমাইরার এগিয়ে যাওয়ার গল্প

মোবারক আজাদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়   

১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হুমাইরার এগিয়ে যাওয়ার গল্প

সব সময় নিজে একটা কিছু করার তাগিদ থেকেই এইচ অ্যান্ড এ কালেকশনস অ্যান্ড বুটিক হাউসের জন্ম। এ ক্ষেত্রে আমার স্বামী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর আবদুল হকের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা ও অনুপ্রেরণা পেয়েছি। সাধ্যের মধ্যে নারীদের মানসম্মত পোশাক সরবরাহে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ।

চট্টগ্রামের অভিজাত শপিং মল মিমি সুপার মাকের্টের ৪র্থ তলায় ‘এইচ অ্যান্ড এ কালেকশনস অ্যান্ড বুটিক হাউস’ পা রাখল চার বছরে। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার মোছাম্মৎ হুমাইরা তুন নূর চট্টগ্রাম কলেজ থেকে ইংরেজিতে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। ব্যবসা শুরু করার আগে তিনি দেশের বাইরে স্কটল্যান্ডে তিন বছর চাকরি করেন।

জানা গেছে, হুমাইরা তুন নূরের মালিকানাধীন এ প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অত্যন্ত সুলভ মূল্যে চট্টগ্রামসহ সারা দেশের ক্রেতা সাধারণকে নিজস্ব ডিজাইনের ব্লক, বাটিক, জামদানি, সিল্ক কাতান, স্ক্রিন প্রিন্টসহ উন্নতমানের ইন্ডিয়ান ও পাকিস্তানি সেলোয়ার কামিজ, গাউন এবং শাড়ি সরবরাহ করে আসছে। সাধ্যের মধ্যে নারীদের মানসম্মত পোশাক সরবরাহের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যে বেশ সুনাম অর্জন করেছে।

সরেজমিন দেখা যায়, শাড়িতে বাহারি রঙের পাথর বসিয়ে নান্দনিক ও মুগ্ধকর নকশা করা হয়েছে। নকশার কাজে ওয়েট লেইস, মাখন, লেদার জর্জেট, পাথর, জরি, চুমকি, মাল্টি পুঁতি ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়েছে। কাপড় ও কাজের মান অনুযায়ী দাম নির্ধারণ করা হয়। দামের ক্ষেত্রে সাড়ে পাঁচশ থেকে শুরু করে ১২ হাজার টাকা মূল্যের পর্যন্ত সেলোয়ার কামিজ, শাড়ি ও গাউন এখানে রয়েছে।

‘এইচ অ্যান্ড এ কালেকশনস অ্যান্ড বুটিক হাউস’ সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকে। সাপ্তাহিক বন্ধ রবিবার। সোমবার অর্ধবেলা বন্ধ এবং দুপুর আড়াইটা থেকে ৯টা পর্যন্ত খোলা। দুজন ছাত্রী এ প্রতিষ্ঠানে পার্ট টাইম চাকরি করেন। তবে হুমাইরা তুন নূর সর্বক্ষণ নিজে দোকানে থেকে তদারকি করার চেষ্টা করেন। ক্রেতাদের রেসপন্সও ভালো।

ঈদ, পূজা ও পহেলা বৈশাখে ক্রেতাদের ভিড় সবচেয়ে বেশি। এ ছাড়া সবসময় বিভিন্ন পণ্যের অর্ডার নিয়ে সময়মতো ডেলিভারি দেওয়া হয়। তাই নারী উদ্যোক্তা হিসেবে হুমাইরা তুন নূরকে সফল বলা চলে। এ ক্ষেত্রে তিনি তাঁর স্বামী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর আবদুল হকের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা ও অনুপ্রেরণা পেয়েছেন বলে জানান।

এ বিষয়ে হুমাইরা তুন নূর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সবসময় নিজে একটা কিছু করার তাগিদ থেকেই আজ এই প্রতিষ্ঠানের বিস্তৃতি। বর্তমান সময়ে বিয়ে বা স্পেশাল দিনগুলোতে দেশি পোশাকের পাশাপাশি বিদেশি পোশাকেরও ব্যাপক চাহিদা আছে। এই বিশেষ দিনগুলোসহ সারা বছর এ ধরনের কাপড়ের চাহিদার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে এইচ অ্যান্ড এ কালেকশনস অ্যান্ড বুটিক হাউস।’

মন্তব্য