kalerkantho

শনিবার  । ১৯ অক্টোবর ২০১৯। ৩ কাতির্ক ১৪২৬। ১৯ সফর ১৪৪১                     

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চবিতে ন্যাশনাল ক্যাম্পাস জার্নালিজম ফেস্টের উদ্বোধন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৯ মার্চ, ২০১৯ ০৩:০৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চবিতে ন্যাশনাল ক্যাম্পাস জার্নালিজম ফেস্টের উদ্বোধন

‘সম্পর্কের পুনর্নির্মাণ, সমৃদ্ধির দিকে ধাবমান’—এ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সাংবাদিক প্রতিনিধিদের নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শুরু হলো ন্যাশনাল ক্যাম্পাস জার্নালিজম ফেস্ট-২০১৯। গতকাল সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ উত্সবের। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (চবিসাস) আয়োজনে দুই দিনব্যাপী এ উত্সবে দেশের ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ২৭টি সংগঠনের দুই শতাধিক প্রতিনিধি অংশ নিয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘নিরপেক্ষ সংবাদ বলতে কিছু নেই, সংবাদ হতে হবে বস্তুনিষ্ঠ। বিশ্বজুড়ে সাংবাদিকদের ভূমিকা, জনগণের কাছে প্রয়োজনীয় তথ্য পৌঁছানোর জন্য যে অবদান সেটা অসামান্য। সংবাদের ক্ষেত্রে বস্তুনিষ্ঠতা, সত্যনিষ্ঠতা অবলম্বন করতে হবে। সংবাদের ক্ষেত্রে যাচাই-বাছাই করাটাই আসল। দু-একজনের বিভ্রান্তিকর সাংবাদিকতার কারণে যেন কেউ কলুষিত না হয়, সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। মিডিয়ার মতো পবিত্র জায়গা যেন কারো কারণে কলুষিত না হয়। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লিখতে হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সৈয়দ বাইজিদ ইমনের সভাপতিত্বে এবং প্রচার, প্রকাশনা ও দপ্তর সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরীর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি এবং জিটিভি ও সারাবাংলা ডট নেটের এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীন আখতার, প্রক্টর অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী, যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ। এ ছাড়া স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ফয়সাল, শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মিলন ও শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল্লাহ ওয়াসিফ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেন, সাংবাদিকতা হলো উদ্যমী মানুষের কাজ, উদ্যমী না হলে সাংবাদিকতা করা যায় না। তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পাসে সাংবাদিকতা করার চ্যালেঞ্জ একটু বেশি। আবার যেখানে চ্যালেঞ্জ বেশি, প্রাপ্তির স্বাদও সেখানেই মধুর। একজন ক্যাম্পাস সাংবাদিক একসঙ্গে অপরাধ, উন্নয়ন, স্পোর্টসসহ বিভিন্ন ধরনের রিপোর্ট করে থাকে, যা সাংবাদিকতায় তাকে আরো পরিপক্ব করে তোলে।’

এর আগে সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনের সামনে থেকে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু হয়। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে শেষ হয়। এ ছাড়া বিকেলে ক্যাম্পাস ট্যুরের আয়োজন করা হয়। এরপর বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জারুল তলায় প্রাণ আপ-এর সৌজন্যে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। এতে দেশসেরা ব্যান্ড দল শিরোনামহীন মঞ্চ মাতিয়েছে।

এ ছাড়া আজ মঙ্গলবার কক্সবাজারের সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে সকাল ১০টায় শুরু হবে দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠান। এতে দুইটি লার্নিং সেশন, সম্মাননা, ক্যামপাস প্রতিনিধিদের মতবিনিময়, কক্সবাজার ট্যুর ও সমাপনী অনুষ্ঠান। এতে কক্সবাজারের স্থানীয় সংসদ সদস্য উপস্থিত থাকবেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী উপস্থিত থাকবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা