kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৪ অক্টোবর ২০১৯। ৮ কাতির্ক ১৪২৬। ২৪ সফর ১৪৪১       

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

পটিয়ায় বন্য হাতির আক্রমণে হতাহতদের ক্ষতিপূরণ প্রদান

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০১:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পটিয়ায় বন্য হাতির আক্রমণে হতাহতদের ক্ষতিপূরণ প্রদান

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের উদ্যোগে পটিয়া বনরেঞ্জ কার্যালয়ে বন্যপ্রাণী কর্তৃক আক্রান্ত ৫৩ পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদান কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে পটিয়া আনোয়ারা, কর্ণফুলী উপজেলার ক্ষতিগ্রস্থরা উপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পটিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক শাহ চৌধুরী। এতে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সহকারী বন সংরক্ষক মোহাম্মদ আলীসহ রেঞ্জ কর্মকর্তা  উমর ফারুক ও পটিয়া রেঞ্জের দায়িত্বরতরা।

এতে ক্ষতি পূরণ পাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে সরকারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, এই প্রথম এ অঞ্চলে বন্য প্রাণীর আক্রমণে হতাহতরা ক্ষতিপূরণ পেলো। যা এ পরিবারগুলোর আগামীতে বেঁচে থাকার নতুন ঠিকানা গড়ে দেবে।

এতে পটিয়া বনরেঞ্জ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, হাতিসহ বন্য প্রাণীর আক্রমণে নিহতদের সরকার ক্ষতিপুরণ দিয়ে তাদের শোককে শক্তিতে পরিণত করে পরিবারগুলোকে নতুন করে বেঁচে থাকার আশা জাগিয়ে দিয়েছে। কারণ এ পরিবারগুলো তাদের পরিবারের উর্পাজনক্ষম এ ব্যক্তিদের হারিয়ে এতদিন মানবেতর জীবন যাপন করছিল। আজ তারা সরকারিভাবে পাওয়া অনুদান আয়বর্ধক কোনো কাজে লাগিয়ে জীবনধারন করতে পারবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

এ সময় বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বলেন, বতমান সরকার বন্যপ্রাণীর আক্রমণে হতাহতদের ক্ষতিপূরণ প্রদানের ঘোষণা দিয়ে মানবতার যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন আজ আমি তাদের পরিবারের মাঝে চেক তুলে দিতে পারায় খুবই ভাল লাগছে। তিনি বন্য প্রাণী নিধন না করে সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিত করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

জানা যায়, গত এক বছরে হাতির আক্রমণে পটিয়া ও আনোয়ারা এবং কর্ণফুলীতে ৫৩ জন হতাহত হয়। তার মধ্যে বৃহস্পতিবার নিহত আবদুর রহমান পটিয়ার কেলিশহরের বিধান দে, কর্ণফুলীর বেলাল আহমদ মারা যায়। ক্ষতিগ্রস্থ হয় আনোয়ারার, এস এম গিয়াস উদ্দিনের মাতা খতিজা বেগম ও মোহাম্মদ নুর এর পরিবারের হাতে দক্ষিণ বন বিভাগ ক্ষতিপূরণের চেক তুলে দেন। এতে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১ লাখ টাকা এবং আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা