kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

রাঙ্গুনিয়ায় নৌকায় সরব হাছান মাহমুদ; মাঠে নেই বিএনপি প্রার্থী

রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩২ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রাঙ্গুনিয়ায় নৌকায় সরব হাছান মাহমুদ; মাঠে নেই বিএনপি প্রার্থী

রাঙ্গুনিয়ায় নির্বাচনী গণসংযোগকালে সাধারণ মানুষের সাথে কুশল বিনিময় করছেন ড. হাছান মাহমুদ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ও বোয়ালখালী উপজেলার একটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম ৭ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ড. হাছান মাহমুদ এমপি নৌকা প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে সরব থাকলেও বিএনপি জোটের প্রার্থীর ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণা এখনো চোখে পড়েনি।

প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা পোস্টার ব্যানার নিয়ে মাঠে প্রচারণায় নেমে গেছে। প্রতিদিন পাড়ায় মহল্লায় উঠান বৈঠক, গণসংযোগ ও সভা করছেন। নৌকার প্রার্থী হাছান মাহমুদ নিজে গতকাল শুক্রবার উত্তর রাঙ্গুনিয়ার রাজানগর ও ইসলামপুর ইউনিয়নে গণসংযোগ করে প্রচারণা শুরু করেছেন। তার পোস্টার ব্যানার ঝুলছে উপজেলা জুড়ে। প্রার্থী ছাড়াও ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটির নেতাকর্মীরা কোমর বেঁধে নেমেছেন ভোটযুদ্ধে।

বিপরীতে রাঙ্গুনিয়ার নির্বাচনী মাঠে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. নুরুল আলমের এখনো দেখা পাননি জোটের নেতাকর্মীরা। ফলে ভোটযুদ্ধে নামতে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে এখনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাটছে না। জোটের প্রধান দল বিএনপির কয়েকজন সম্ভাব্য প্রার্থীকে ডিঙ্গিয়ে মনোনয়ন ভাগিয়ে আনায় বিএনপি শিবিরেও গা ছাড়া ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে। দুর্বল সাংগঠনিক কাঠামোর এলডিপির নেতাকর্মীরাও আতঙ্কে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন দায়িত্বশীলরা।

অপরদিকে ড. হাছান মাহমুদের বাইরে রাঙ্গুনিয়া থেকে আওয়ামী লীগে মনোনয়ন প্রত্যাশী চট্টগ্রাম বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরীও মাঠে নেমেছেন নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনায়। গতকাল তিনি হাছান মাহমুদের সাথে উত্তর রাঙ্গুনিয়ার লালানগর ও দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নে গণসংযোগ করেন।

উপজেলা এলডিপির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের ধানের শীষের প্রার্থী এখনো প্রচারণায় নামেননি জানিয়ে বলেছেন প্রচারণার সবকিছু তৈরি আছে। এখনো হোম ওয়ার্ক চলছে। সময়মতো প্রার্থী জোটের সবাইকে নিয়ে মাঠে নামবেন বলে তিনি জানান।

এদিকে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও চট্টগ্রাম ৭ (রাঙ্গুনিয়া) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ড. হাছান মাহমুদ এমপি আজ শনিবার উপজেলার লালানগর ইউনিয়নের আলমশাহ পাড়া, ঘাগড়াকুল, বেড়িবাঁধ, ধামাইর হাট, দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের সাদেকের পাড়া, মুন্সিবাড়ি, আফজলের পাড়া, সোনারগাঁও এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগকালে সাধারণ মানুষের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

এসব এলাকায় আয়োজিত কয়েকটি পথসভায় বক্তব্য রাখেন। অথচ লালানগর এলাকার সন্তান বিএনপি জোটের ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী নুরুল আলম এখনো নিজ এলাকায় যাননি বলে স্থানীয়রা জানায়। নির্বাচনী এসব গণসংযোগ ও পথসভায় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি ব্যাপক লোক সমাগম হয়।

এ সময় নেতৃবৃন্দ নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে প্রচারপত্র বিলি করেন। বক্তব্যে হাছান মাহমুদ বলেন, গত দশ বছরে রাঙ্গুনিয়ায় তিন হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। রাঙ্গুনিয়াকে একটি আধুনিক ও সমৃদ্ধ উপজেলায় রূপান্তরে আবারো নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান ভোটারদের।

এ সময় উত্তর জেলা আ.লীগ নেতা স্বজন কুমার তালুকদার, উপজেলা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আলী শাহ, চট্টগ্রাম বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, বিএমএ’র কেন্দ্রিয় নেতা ড. মোহাম্মদ সেলিম, ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ ছৈয়দ তালুকদার, মীর তৌহিদুল ইসলাম কাঞ্চন, সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার, ধর্ম সম্পাদক জসিম উদ্দিন তালুকদার, আ.লীগ নেতা ফারুক তালুকদার, সিরাজুল করিম বিপ্লবসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচনের মাঠে এখনো ধানের শীষ প্রার্থীর দেখা না পাওয়া প্রসঙ্গে উপজেলা এলডিপির নেতা নঈম উদ্দিন আল মাহমুদ বলেন, এখনো ঘর গোছানোর কাজ চলছে। উপজেলা বিএনপির একাংশের সভাপতি শওকত আলী নুর দলীয় নেতাকর্মীদের ঘরে ঘরে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে দাবি করে বলেন, জাতীয় নির্বাচন হচ্ছে এটা সব ভোটারের জানা আছে। সুযোগ পেলে ভোটাররা ধানের শীষেই ভোট দিবেন। প্রচারণায় পিছিয়ে থাকলেও ভোটে এগিয়ে থাকবে বলে তিনি দাবি করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা