kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

জাদুকর

বাবলু ভঞ্জ চৌধুরী

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাদুকর

অলঙ্করণ : নাহিদা নিশা

সে লাঠিটা এক পাক ঘুরিয়ে একটা হাঁসের বাচ্চা হাজির করল। দিন দুই বয়স হবে। গায়ে কোমল লোম, মাকে ছাড়া আর কাউকে চেনে না। প্যাঁকপ্যাঁক, ফ্যাকফ্যাক করে ডাকছে।

বিজ্ঞাপন

আমাদের মাথার ওপরে কালোজামগাছের ডালে একটা কাক যে তক্কে তক্কে ছিল বুঝতে পারিনি। শাঁ করে নেমে সে হাঁসের বাচ্চার গায়ে ছোঁ মারতে যাবে, অমনি কোথায় হাঁসের বাচ্চা! একটা বিকট বাঘের বাচ্চা চোখ রগড়াচ্ছে! তাই না দেখে কাকটা যে বেগে নেমেছিল, সেই বেগে পিঠটান দিল, সে-ও চোখ রগড়াচ্ছে। ...জাদুকর গোঁফ মুড়িয়ে হাসল, হে হে হে! ভেবেছিস খাবি, না? এবার দেখ মজা!...আরিব্বাস! বাঘের বাচ্চা কোথায়! আস্ত পাকা একটা বাজপাখি! ঝটপটিয়ে উঠে কাকটাকে ‘ধর শালা’ বলে চষে তাড়াচ্ছে! কাক মরণ তাড়ানি খাচ্ছে আর ভাবছে, ছিল হাঁস, হলো বাঘ, তা-ও ভালো, কিন্তু বাজপাখি হলো কেন রে!...আমাদের বাগানে তুলকালাম কাণ্ড!

জাদুকর ঠ্যাঙের ওপর ঠ্যাঙ তুলে বসল। পান চিবাচ্ছে। বলল, দেখেছ তো! কাক দাবড়ানি খেতে খেতে শেষ হয়ে যাবে—দাও পাঁচটা টাকা, বলেই হাত পাতল।

পাঁচ টাকা কেন, পাঁচ শ টাকা দেব, কিন্তু এর ক্যারিকেচার কী জাদুকর সাহেব?

ক্যারিকেচার!...হে হে হে...ওই দেখ বাগানে!

তাকালাম বাগানে। ...আরিব্বাস! বাজপাখি কাকের ঘাড়ে উঠে বসে আছে! জামরুলের ডালে! কিন্তু ওটা কি কাক! না না না, একটা হুতোমপেঁচা! ধুর—একটা হাতির বাচ্চা! ধুর...

হে হে হে, জাদুকর হাসল, আবার হাত পাতল, দাও পাঁচ টাকা!

পকেট হাতড়ে তিন টাকা পেলাম, তাই দিলাম। বললাম, আর দুই টাকা পরে দিচ্ছি, কিন্তু ক্যারিকেচার বলুন?

হে হে হে! ক্যারিকেচার নয়, বলো কেনাবেচা!

কেনাবেচা?

হুহহু...! ওই দেখ! ডাহুক ওদিকে নয়, ওদিকে নয়! ওই নারকেলগাছের মাথায়!

ওরে উঁচুরে বাবা! কী করে তাকাব!

তাকাও, তাকাও!...তাকালাম।

হঠাৎ দুড়ুম! দুড়ুম!...কী হলো! গুলির আওয়াজ কেন?...আরে জাদুকর কই?

হুহহু...! এই তো আমি!

কোথায় আপনি! ও তো একটা মোষ! গুঁতোনো মোষ!

এই মোষই আমি! এসো! কালো চামড়ায় হাত বুলাও! টাকা লাগবে না!

তাই!

—আরে কান টানে কে? বাবা তুমি!....

—কোথায় যাস?

—জাদুকরের কাছে!

—জাদুকরের কাছে, উজবুক! মোষটা সকালে ছয়জনকে গুঁতিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে, চল!

—না যাব না, ওটা মোষ না, ও জাদুকর!

—চুপ!... চল বাড়ি!

—অ্যাঁ...! আস্তে টানো বাবা।