kalerkantho

শুক্রবার। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৪ ডিসেম্বর ২০২০। ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

তো মা দে র উ ত্ত র

করোনাকালে নতুন কী কী শিখলে?

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার এই সময়ে আমি শিখলাম পাখি সম্পর্কে। পাখির বাসা কেমন, তারা কী খায় এবং পাখিদের নাম। আমি দেখেছি দোয়েল, কাঠশালিক, বেনে বউ, বুলবুলি, শঙ্খচিল, মৌটুসি, রাজঘুঘু, কাঠঠোকরা ও কাক। বুলবুলির বাচ্চারা আমার সবচেয়ে ভালো বন্ধু। প্রতিদিন আমার সঙ্গে দেখা করে। ছাদে গেলেই আমার মাথার ওপর শঙ্খচিল, কী মজা। রাজঘুঘুটি আমার সঙ্গে প্রতিদিন দেখা না করলেও ও আমার বন্ধু। আমার প্রিয় পাখি বুলবুলি। বেনে বউও খুব সুন্দর পাখি। 

আদরীয় তীর্থ

তৃতীয় শ্রেণি, শাখা : খ, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ

 

করোনার কারণে প্রায় ছয় মাস ধরে আমি বাসার বাইরে যেতে পারছি না। তাই বন্ধুবান্ধবদের সাথে দেখাও হচ্ছে না। স্কুলে যাওয়াও হচ্ছে। বাইরে খেলাধূলারও সুযোগ নেই। তবে এই সময় আমি বাসায় বসেই অনেক কিছু শিখেছি। যেমন, ছবি আঁকা শিখেছি, প্রায় ৩০টির মতো কবিতা আবৃত্তি শিখেছি। কাগজ দিয়ে অনেক কিছু বানাতেও শিখেছি। মায়ের কাছ থেকে বিভিন্ন রকম সেলাই করতে শিখেছি। একদিন আমি অনেক বড় হব। কিন্তু করোনার এই দিনগুলির কথা কখনো ভুলব না। আর তাই প্রতিদিনের ঘটনাগুলো ডায়েরিতে লিখে রাখছি।

আরাধ্য পূর্ণা

শ্রেণি: গ্রেড ১, জাহানারা ইসরাইল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বরিশাল

 

ছবি আঁকার সুপ্ত ইচ্ছা অনেক দিনের। তাই করোনাকালীন বন্ধে ইন্টারনেটের সহায়তা নিয়ে ছবি আঁকা অনেকটাই রপ্ত করেছি। এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০টি ছবি এঁকেছি।

আসমা হুমাইরা রেবা

সুয়াবিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম।

 

লকডাউনের শুরুর সময়টায় অনেক নতুন বই পড়েছি। নতুন সিনেমা দেখেছি। কিছু প্রিয় সিনেমা আবার দেখেছি। বেশ কিছু অনলাইন ইভেন্টে অংশ নিয়েছি। নতুন অভিজ্ঞতা হিসেবে অনলাইনে পরীক্ষা আর ক্লাস করাটা উল্লেখযোগ্য। আমি এখন একটু-আধটু রান্না করতে পারি। কিছুদিন আগে পর্যন্ত চুলা জ্বালাতেই পারতাম না!     

জারীন মাহজাবীন

নবম শ্রেণি, সরকারি পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, রাজশাহী।

 

করোনাকালে খুব মনোযোগ দিয়ে লেখাপড়া করতে শিখেছি। লেখাপড়াকে উপভোগ করতে শিখেছি। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় লেখাপড়া আপাতত বন্ধ। জানি না আবার আগের সেই স্পৃহা নিয়ে পড়াশোনা শুরু করতে পারব কি না।

ঐতিহ্য মেহরীন অহনা

সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সিলেট।

 

এই সময় আমি গিটার বাজানো শিখেছি। এখনও চর্চা করছি।

আদৃতা চক্রবর্তী

৭ম শ্রেণি, কামরুন্নেসা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, টিকাটুলি, ঢাকা।

মন্তব্য