kalerkantho

শুক্রবার। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৪ ডিসেম্বর ২০২০। ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

চর্চায় হলি-বলির দুই তারা

বিক্রান্ত ম্যাসি আর ভিক্টোরিয়া পেদ্রেতি—বলিউড ও হলিউডের আলোচিত দুই তরুণ অভিনেতা-অভিনেত্রী। গেল সপ্তাহে নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে তাঁদের সিনেমা ও সিরিজ। দুজনের ক্যারিয়ার ও নতুন কাজ নিয়ে লিখেছেন মামুনুর রশিদ

১৫ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চর্চায় হলি-বলির দুই তারা

ভিক্টোরিয়া পেদ্রেতি

সিনেমায় একেবারে নতুন নন বিক্রান্ত ম্যাসি। শুরু করেছিলেন ২০১৩ সালে ‘লুটেরা’ দিয়ে। তবে প্রথম দিকে তাঁর পর্দা উপস্থিতি ছিল নামমাত্র। গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র প্রথম পান ২০১৭ সালে, কঙ্কণা সেনশর্মার ‘আ ডেথ ইন দ্য গঞ্জ’-এ। সমালোচকদের প্রশংসা পেয়েছিলেন তখনই। পরের বছর অ্যামাজনের ওয়েব সিরিজ ‘মির্জাপুর’ করে তরুণদের মধ্যে পরিচিতি পান। তবে ম্যাসি ব্যাপক পরিচিতি পান ‘ছপাক’-এর কল্যাণে। এ বছরের শুরুতে মুক্তি পাওয়া ছবিতে দীপিকা পাড়ুকোনের সহশিল্পী। এর পর থেকেই একের পর এক প্রস্তাব আসতে থাকে। গেল এক মাসেই নেটফ্লিক্সে তিন-তিনটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে ম্যাসির! ‘কার্গো’, ‘ডলি কিটি অওর ওহ চমকতে সিতারে’ আর সর্বশেষ ‘গিনি ওয়েডস সানি’। শেষেরটিতে ম্যাসির অভিনয় দারুণ পছন্দ করেন সমালোচকরা।

মুম্বাইয়ের ছেলে হলেও ম্যাসি সিনেমা পরিবারের কেউ নন। নিজের পরিশ্রমে এত দূর আসা। দর্শকদের প্রতি তাই ভীষণ কৃতজ্ঞ তিনি, ‘মাত্র বছর সাতেক আগেও আমি শুধু কয়েক সেকেন্ডের চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পেতাম। সেখান থেকে আজকের অবস্থান শুধু দর্শকদের জন্যই।’ সিনেমায় আসার আগে ‘বালিকা বধু’, ‘ধরম বীর’সহ বহু জনপ্রিয় টিভি সিরিয়াল করেছেন। তবে আপাতত আর ছোট পর্দা নয়, সিনেমা আর ওয়েবেই মনোযোগ দিতে চান। এর মধ্যেই অন্তত হাফ ডজন প্রজেক্ট প্রায় চূড়ান্ত। অভিনেতার নতুন ছবি ‘গিনি ওয়েডস সানি’ রোমান্টিক কমেডি। যেখানে তাঁর সহশিল্পী ইয়ামি গৌতম।

ম্যাসির মতোই সাফল্যের পথে ভিক্টোরিয়া পেদ্রেতি। পরিচিতি পেয়েছেন নেটফ্লিক্সের বহুল প্রশংসিত সিরিজ ‘দ্য হন্টিং অব দ্য হিল হাউস’ দিয়ে। হরর ঘরানার হলেও সম্পর্কের টানাপড়েন, অপরাধবোধ আর মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্বের মতো বিষয়গুলো ২০১৮ সালের সিরিজটিকে ভিন্ন মাত্রা দিয়েছিল। সিরিজে এলেনর নিল ক্রেইন চরিত্রটি করে পুরস্কারও বাগিয়েছিলেন পেনসিলভানিয়াতে জন্ম নেওয়া অভিনেত্রী। ২০১৭ সালে অভিনয়ে  ব্যাচেলর ডিগ্রি নিয়েছেন পেদ্রেতি। অভিনয়জীবনের শুরুতেই পেয়েছেন নেটফ্লিক্সের মতো প্ল্যাটফর্ম। সম্ভাবনাময় হলিউড অভিনেত্রীর তালিকায় সমালোচকরা শুরুর দিকেই রাখছেন ২৫ বছর বয়সী অভিনেত্রীকে। ‘দ্য হন্টিং অব দ্য হিল হাউস’-এর আগে গেল বছর মুক্তি পাওয়া কুয়েন্টিন টারান্টিনোর ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিউড’ সিনেমায় ‘লুলু’ চরিত্রটি করেছেন। অভিনয় করেছেন আরেক জনপ্রিয় সিরিজ ‘ইউ’-এর দ্বিতীয় সিজনেও, থাকছেন তৃতীয় সিজনেও।

৯ অক্টোবর নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে ‘দ্য হন্টিং অব দ্য হিল হাউস’-এর সিক্যুয়ালটি। সিক্যুয়াল বলা হলেও এটি আগেরটির থেকে পুরোপুরি আলাদা। পেদ্রেতির চরিত্রটিও নতুন। গল্প নেওয়া হয়েছে হরর জনরার বিখ্যাত ঔপন্যাসিক হেনরি জেমসের ‘দ্য টার্ন অব দ্য স্ক্রিউ’ থেকে। মুক্তির পর ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছেন তরুণ অভিনেত্রী। তবে এখনই প্রশংসায় ভাসতে নারাজ ভিক্টোরিয়া, ‘সামনে প্রচুর কাজ, আপাতত এগুলোই মন দিয়ে করতে চাই।’ অভিনেত্রীর হাতে এখন তিনটি সিরিজ আর গোটা দুয়েক সিনেমা, যেগুলো মুক্তি পাবে ২০২১ সালে।

মন্তব্য