kalerkantho

ভাইজানের রাগসমগ্র

এমনিতে তিনি ভীষণ দিলখোলা। কিন্তু কারো ওপর একবার রেগে গেলেই মুশকিল। তাকে সোজা পাঠিয়ে দেন নিজের ‘কালো তালিকায়’। সালমান খানের সঙ্গে অন্য বলিউড তারকাদের গোলমাল নিয়ে লিখেছেন মামুনুর তানিম

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভাইজানের রাগসমগ্র

অরিজিতের সঙ্গে ঝামেলা

কয়েক বছর ধরেই বলিউডের সবচেয়ে বড় হিট গায়কের নাম অরিজিৎ সিং। কিন্তু কোনো এক কারণে এখন সালমান খানের লিপে শোনা যায় না অরিজিতের কণ্ঠ। দুজনের মধ্যে বিরোধ নিয়ে অনেক চর্চা হয়েছে বলিউডে, কিন্তু লাভ হয়নি। ঘটনাটা ২০১৪ সালের। ‘আশিকি ২’-এর জন্য জীবনের প্রথম পুরস্কার নিতে মঞ্চে যান অরিজিৎ। সেখানে ছিলেন সালমানও। কাজের চাপে ক্লান্ত অরিজিৎ দর্শক সারিতে বসে ঘুমিয়ে গিয়েছিলেন। পুরস্কার নিতে গেলে হাসতে হাসতে সে প্রসঙ্গ তোলেন সালমান। অরিজিৎ আগুপিছু না ভেবে বলে দেন, ‘তোমাকে দেখেই ঘুমিয়ে পড়েছি।’ ব্যস, সেই যে সালমানের দরজা বন্ধ হয়েছে আর খোলেনি। এরপর টুইটারে দীর্ঘ লেখায় সালমানের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন অরিজিৎ, কিন্তু ভাইজানের মন গলেনি।

 

মিকাকে নিয়ে বিরোধ

‘সুলতান’সহ সালমানের কয়েকটি ছবির দারুণ সব হিট গান করেছেন মিকা সিং। কথা ছিল পরের বেশ কয়েকটি প্রজেক্টে গান করারও। এমনকি সামনে নিজের যুক্তরাষ্ট্র ট্যুরেও মিকাকে সঙ্গে নেওয়া চূড়ান্ত করেছিলেন সালমান খান। দুজনের নাম দিয়ে ট্যুরের পোস্টারও ছাপা হয়েছিল। কিন্তু বাদ সাধল মিকার এক কাণ্ডে। হঠাৎ পাকিস্তানে গিয়ে গান করেন গায়ক। এতেই ক্ষুব্ধ হয় পুরো বলিউড। পরে ক্ষমা চেয়ে পার পেলেও ভাইজানের মন গলেনি। অনেকে মনে করছে, ঘটনার পর ভাইজানের কাছে সরাসরি দুঃখ প্রকাশ না করাতেই চটেছেন তিনি। ফল, যুক্তরাষ্ট্র ট্যুর থেকে বাদ পড়েছেন মিকা, এমনকি সালমানের পরের আর কোনো ছবিতেই তাঁর কণ্ঠ শোনা যাবে না বলে জানিয়েছে একটি সূত্র!

 

আলি জাফরও বাদ!

‘সুলতান’, ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’, ‘ভারত’—সালমান খানের তিন হিট ছবির পরিচালক আলি জাফর আব্বাস। দুজনের সম্পর্কও দারুণ। কিছুদিন আগেও আলি জাফরকে নিজের ‘ছোট ভাইয়ের মতো’ বলে অভিহিত করেছেন সালমান। কিন্তু ইদানীং তাঁদের সাপে-নেউলে সম্পর্ক। সম্পর্কের এই অবনতি দুজনের সবশেষ ছবি ‘ভারত’-এর জন্য। ছবি মুক্তির তিন দিন আগে চূড়ান্ত ভার্সন দেখানো হয় অভিনেতাকে, যা দেখে প্রচণ্ড বিরক্ত হন তিনি। কারণ তাঁর অনেক পরামর্শ মতো সম্পাদনা করেননি পরিচালক। পরে দ্রুত কিছু দৃশ্য বাদ ও সংযোজনের পরামর্শ দেন। কিন্তু আলি জাফর সেটা মানেননি। এতেই ভীষণ খেপেছেন ভাইজান। কারণ তিনি তখনই বলেছিলেন, তাঁর পরামর্শ না মানলে ছবি হিট হবে না। বাস্তবে হয়েছেও তাই। শুরুতে ৪০০-৫০০ কোটি টাকা ব্যবসা করবে মনে করা হলেও ‘ভারত’ ৩০০ কোটির ক্লাবও ছুঁতে পারেনি, যা সালমানের মতো বড় তারকার জন্য খুব বেশি নয়। দুজনের সম্পর্কের তিক্ততায় বিপদে পড়েছেন প্রযোজকরা। ‘টাইগার’ সিরিজের সিক্যুয়েলসহ আলি জাফর ও সালমানের বেশ কয়েকটি কাজ করার কথা ছিল, কিন্তু আপাতত সবই পিছিয়ে গেছে।

 

এবার বানশালি?

পরিচালক সঞ্জয়লীলা বানশালির সঙ্গে দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক সালমান খানের। দুজনের নতুন ছবি ‘ইনশাল্লাহ’র ঘোষণার পর ভীষণ আনন্দের সঙ্গে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছিলেন দুজনেই, কিন্তু শুটিং শুরুর কয়েক দিন আগে হঠাৎ ছবিটি স্থগিত হয়ে যায়। কারণ হিসেবে পরিচালক ও অভিনেতার মধ্যে ‘ক্রিয়েটিভ ডিসটেন্স’ বলা হলেও শোনা যাচ্ছে ঘটনা গুরুতর। ফ্লোরিডায় লোকেশন চূড়ান্ত করা, বিরাট ইনডোর সেট করা বা চিত্রনাট্য—কোনোটা নিয়েই সালমানের সঙ্গে বিস্তারিত আলাপ করেননি বানশালি। এমনকি সালমানের বিভিন্ন পরামর্শও কানে তোলেননি। ফল, শুটিং শুরুর ঠিক আগে ছবি থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত জানান অভিনেতা। যদিও বলা হচ্ছে, ভবিষ্যতে দুজন ফের একসঙ্গে কাজ করবেন। কিন্তু সালমানকে যারা চেনে তারা বলছে, বানশালি-সালমান কাজের এখানেই ইতি।

মন্তব্য