kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

প্রিয় ঈদ উপহার

এসে দেখি ছেলেটা একটা গরু নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে

৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এসে দেখি ছেলেটা একটা গরু নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে

২০ বছর আগে কোরবানির ঈদে এক ভক্তর কাছ থেকে গোটা গরু উপহার পেয়েছিলেন সাবিনা ইয়াসমিন। সেই গল্প শুনলেন রবিউল ইসলাম জীবন

প্রায় ২০ বছর আগের কথা। আমার বাসা তখন ধানমণ্ডি ২৭ নম্বর। থাকতাম দ্বিতীয় তলায়। সে সময় এক ভক্ত আমাকে নিয়মিত ফোন করতেন। থাকতেন ঢাকায়ই। এমন ভক্ত এর আগে আমি দেখিনি। তিনি আমাকে বলতেন, তাঁর মতো ভক্ত পৃথিবীতে নেই। কোরবানির ঈদের আগে আমাকে ফোন করে বললেন, ‘ঈদে আমি আপনাকে একটা কিছু গিফট দিতে চাই। প্লিজ নেবেন।’ আমি বললাম, ‘নারে ভাই, আমাকে কিছু দিতে হবে না। কোনো দরকার নেই। আমার জন্য দোয়া করলেই হবে।’ তিনি জোর করে বললেন, ‘না না। নিতেই হবে।’ আমি তার পরও ‘না’ করে দিই। কিন্তু কে শোনে কার কথা! ঈদের দিন খুব সকালবেলা একজন কলিংবেল টিপল। বুয়া গিয়ে দরজা খুলল। জানাল, নিচে একটা ছেলে দাঁড়িয়ে আছে। এত সকালে কে এলো ভেবে খানিক বিরক্তই লাগছিল। এসে দেখি, ছেলেটা একটা গরু নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে! আমার সেই ভক্তর নাম জানিয়ে বলল, ‘আমার স্যার এটা আপনার জন্য ঈদের গিফট পাঠিয়েছেন’। তাকে বললাম, ‘এক্ষুনি নিয়ে যাও, আমি এটা নিতে পারব না। অসম্ভব।’ সে বলে উঠল, ‘আমিও তো নিতে পারব না। স্যার আপনার জন্য কোরবানির উপহার পাঠিয়েছেন। ফেরত নিয়ে গেলে আমাকে মারবেন।’ তার জোরাজুরির পর শেষ পর্যন্ত গরুটি রাখলাম।

ঈদের দিন সকালে কারো কাছ থেকে এমন একটা উপহার পাব ভাবতেই পারিনি। বলা যায়, আমার জীবনে প্রাপ্ত শ্রেষ্ঠ ঈদ উপহার এটি।

তার পরের ঘটনা আরো মজার! গরুটি উপহার দেওয়ার পর থেকে সেই ভদ্রলোক আমাকে আর কোনো দিন ফোনই দেননি। মনে হয় ভয় পেয়েছিলেন। ফোন করলে যদি কিছু বলি, রাগ করি! নাকি দেশের বাইরে চলে গেছেন জানি না। কিন্তু তাঁর দেওয়া সেই উপহার, সেই স্মৃতিকথা আমার সব সময়ই মনে পড়ে।

মন্তব্য