kalerkantho

বুধবার । ১৭ জুলাই ২০১৯। ২ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৩ জিলকদ ১৪৪০

রাজীবের মা বন্দনা

মাকে নিয়ে নতুন দুটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন ক্লোজআপ ওয়ান খ্যাত মিজানুর রহমান রাজীব। এর আগে আরো তিনটি গান করেছিলেন মায়ের। গানগুলোর খবর জানাচ্ছেন রবিউল ইসলাম জীবন

১১ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রাজীবের মা বন্দনা

ও আমার মা

২০০৮ সালে প্রকাশিত নিজের দ্বিতীয় একক ‘পূর্ব পশ্চিম’-এ মাকে নিয়ে প্রথম গানটি করেছিলেন রাজীব। কথা ও সুর করেছিলেন আমিরুল মোমেনিন মানিক। সংগীতায়োজনে জাহিদ বাশার পংকজ। ‘লিখছি চিঠি আমি তোমার তরে/চলতি মাসেই মাগো ফিরবো ঘরে’—গানটির রেকর্ডিং হয় মগবাজারের একটি স্টুডিওতে। রাজীব বলেন, ‘মানিক আমার এলাকার দোস্ত। ছোটবেলা থেকেই তার সঙ্গে সম্পর্ক। সে-ই একদিন বলল—চল, মাকে নিয়ে একটি গান করি। কথা-সুর করে শোনানোর পর ভালো লেগে যায়। গানটির গল্পটাও অনেক ইমোশনাল। ব্যস্ততার কারণে মাকে দেখতে গ্রামের বাড়িতে যেতে পারছে না শহরে থাকা ছেলে। নানা প্রশ্ন করে মাকে চিঠি লেখে সে। মায়ের পাশাপাশি তার গ্রাম, সেই পুকুরঘাট, খেলার মাঠ—এসবের কথাও জানতে চায়! কণ্ঠ দেওয়ার পর মাকে শোনানোর পর তিনি গানটির খুব প্রশংসা করেছিলেন।’

 

মা

২০১০ সালে প্রকাশিত রাজীবের তৃতীয় একক ‘একলা মানুষ’-এর গান। কথা ও সুর করেছিলেন ড. শাহেদ। সংগীতায়োজনে অভিজিৎ চক্রবর্তী জিতু। জিতুর বাংলামোটরের স্টুডিও ‘অফবিট’-এ গানটির রেকর্ডিং হয়। প্রথম দুটি লাইন—‘তোমায় নিয়ে লেখা হয় কত গান, কত কবিতা/মাগো তোমায় নিয়ে লেখা হয় পাতার পর পাতা’। রাজীব বলেন, ‘দ্বিতীয়র পর তৃতীয় অ্যালবামেও মাকে নিয়ে গান করার প্রয়াস থেকে কাজটি করা। মাকে নিয়ে কত কত গান, কবিতা, গল্প লেখা হয়; কিন্তু কোনো কিছুতেই মায়ের বর্ণনা শেষ হয় না। এই কথাটিই এই গানে তুলে ধরা হয়েছে। দরাজ কণ্ঠে গানটি গাওয়ার চেষ্টা করেছি। প্রকাশের পর যাঁরাই শুনেছেন, ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন।’

 

সে যে আমার মা

২০১৫ সালে প্রকাশিত চতুর্থ একক ‘তোমার আমি’তে গানটি করেন রাজীব। স্যামুয়েল হকের কথায় সুর করেন ফয়সাল আহমেদ। সংগীতায়োজনে মেহেদী। ‘একদিন জি-সিরিজের কর্ণধার খালিদ ভাই আমাকে ডেকে একটি অ্যালবাম করতে বলেন। কিছু গানও শোনান। তাঁকে বললাম আমার আগের দুটি অ্যালবামে মাকে নিয়ে গান আছে। এই অ্যালবামেও একটি গান রাখতে চাই। তারপর তিনি এই গানটি দেন। গাইতে গিয়ে খুব কান্না পাচ্ছিল। কারণ গানটি করার আগে ২০১৪ সালের ১৪ জুন আমার মা মারা যান! গানটিতে মায়ের প্রতি সন্তানের ভালোবাসা প্রকাশ পেয়েছে’—বলছিলেন রাজীব। ইউটিউবে গানটির লিরিক্যাল ভিডিও আছে বলেও জানান তিনি।

 

মা গো মা

কয়েক দিন আগে একটি টেলিফিল্মের জন্য মাকে নিয়ে গানটি করেছেন এই গায়ক। টিপু আলম মিলনের কথায় সুর-সংগীতায়োজন করেছেন রুপতনু রূপু। ‘মা গো মা, ওগো মা, তুমি না হলে আমার জন্ম হতো না’—টেলিফিল্মের গল্প অনুযায়ী গানটি করা। টেলিফিল্মের পরিচালক গানটি নিয়ে রুপতনু রূপুর সঙ্গে আলাপ করলে তিনি গাওয়ার জন্য রাজীবের নামটি প্রস্তাব করেন। রাজীব বলেন, ‘আমি মেলোডি গান গাইতে বেশি পছন্দ করি। এটিও তেমনই। তবে সুরের মধ্যে অনেক কাজ আছে। সুরটা ঠিকমতো না লাগলে এ ধরনের গান শুনতে ভালো লাগে না। তাই অনেক সময় নিয়ে গানটি গেয়েছি। শোনার পর নিজের কাছেই খুব শান্তি লেগেছে। কিছুদিন পরই গানটি প্রকাশ পাবে।’

 

তুমি আমার জান্নাত

সোলায়মান মাহমুদের কথায় এই গানটির সুর করেছেন রাজীব নিজেই। সংগীতায়োজনে সুমন কল্যাণ। ‘তুমি নয় মাস রেখেছো উদরে/আর তিন বছর বুকের মাঝখানে’—গানটির রেকর্ডিং শেষ। তবে সংগীতায়োজনে জালালের বাঁশি এবং আরো কিছু কাজ বাকি। পুরো কাজ শেষ হলেই প্রকাশ করবেন। রাজীব বলেন, ‘একজীবনে একজন মা তাঁর সন্তানের জন্য কত কিছুই না করেন। উদরে ধরা থেকে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সন্তানের জন্য মা যা যা করেন, সেটাই এই গানটিতে আমরা তুলে আনার চেষ্টা করেছি।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘সারা জীবন মাকে নিয়ে গান করে যেতে চাই। মায়ের গানের মধ্যে আমি অন্য রকম একটা ভালো লাগা উপলব্ধি করি। সেটা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।

মন্তব্য