kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

সেরা অভিনেতা

বান্দেরাসের প্রথম!

৩০ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বান্দেরাসের প্রথম!

আন্তোনিও বান্দেরাস

হলিউডের ধন্ধুমার অ্যাকশন ছবিতে তাঁকে আর খুব একটা দেখা যায় না। তবে আন্তোনিও বান্দেরাস হারিয়ে যাননি, ভালোমতোই আছেন। ফিবছরই তাঁর অন্তত দুই-তিনটি করে ছবি মুক্তি পায়। এ বছর অভিনেতার প্রথম ছবি ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি’। স্প্যানিশ ছবিটি স্পেনে মুক্তি পেয়েছে ২২ মার্চ। পেদ্রো আলমোদোভারের ড্রামাটিতে আরো আছেন পেনেলোপি ক্রুজ, হুলিয়েটা সেরানোও। ছবিটিতে ষাটের দশকের চলচ্চিত্র পরিচালকের চরিত্র করেছেন বান্দেরাস। ছবিটি পরিচালক তৈরি করেছেন নিজের জীবনের নানা ঘটনা অবলম্বনে, যা বান্দেরাসকে এনে দিয়েছে কানে সেরা অভিনেতার পুরস্কার। বান্দেরাসের জন্য এই পুরস্কার পাওয়া খানিকটা অবাক করা ব্যাপার বটে। অনেকেই ভেবেছিলেন, পুরস্কারটা পাবেন লিওনার্দো ডি কাপ্রিও [ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিডড]। তবে পুরস্কার পেয়ে অন্যদের মতো নিজেও অবাক বান্দেরাস। এতটা খুশি হয়েছেন যে কী করবেন বুঝতে পারছিলেন না। কারণ চার দশক ধরে বিভিন্ন দেশে নানা ধরনের সিনেমা করলেও বড় কোনো পুরস্কার জোটেনি ভাগ্যে। কানে সেরা হয়ে উচ্ছ্বাসটা তাই গোপন করেননি, ‘চার দশকের অভিনয়জীবনে নিঃসন্দেহে আমার সেরা অর্জন। আমি গেল কয়েক বছর বিভিন্ন উৎসবে অনেকবার মনোনয়ন পেলেও ভাগ্যের শিকে ছিঁড়ছিল না। বলা যায়, পুরস্কারের জন্য প্রথমবার মঞ্চে উঠলাম। পরিচালককে অনেক ধন্যবাদ এই ছবিতে আমাকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য।’ পরিচালক আলমোদোভারও বলেছেন, ‘এই ছবিতে জীবনের সেরা অভিনয়টাই করেছেন বান্দেরাস। চিত্রনাট্য লেখার সময় তাঁর কথা ছাড়া অন্য কারো নাম মাথায় আসেনি।’

মন্তব্য