kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

অবশেষে কলঙ্ক

২০০৪ সালে তৈরির কথা থাকলেও নানা কারণে ২০১৯ সালে এসে মুক্তি পাচ্ছে ‘কলঙ্ক’। দীর্ঘ বিলম্বের কারণে নানা বদল এসেছে ছবিটিতে, বদলেছে পাত্র-পাত্রীও। আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বহুল আলোচিত চলচ্চিত্রটি নিয়ে লিখেছেন মামুনুর রশিদ

১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অবশেষে কলঙ্ক

গল্পটা করণ জোহরের বাবা যশ জোহরের মাথায় এসেছিল ১৫ বছর আগে। তখনই সিনেমা বানানোর কথা ছিল। কিন্তু যশ মারা যাওয়ায় হয়নি। তখন স্থগিত হয়ে গেলেও অবশেষে বাবার স্বপ্ন পূরণ করছেন ছেলে। যদিও ছবিটি করণ পরিচালনা করছেন না, আছেন প্রযোজক হিসেবে। ‘কলঙ্ক’ নির্মাণের পুরো প্রক্রিয়াকে তিনি উল্লেখ করেছেন ‘আবেগময় এক যাত্রা’ হিসেবে। মহাকাব্যিক ঘরানার এই সিনেমার পরিচালক অভিষেক ভার্মা।

১৯৪০-এর দশকের প্রেক্ষাপটে নির্মিত ছবিটিতে একসঙ্গে দেখা যাবে এক ঝাঁক বলিউড তারকাকে। আছেন সঞ্জয় দত্ত, মাধুরী দীক্ষিত, বরুণ ধাওয়ান, আলিয়া ভাট, আদিত্য রায় কাপুর, সোনাক্ষী সিনহাসহ অনেকেই। শুরুতে অভিনয়শিল্পী নিয়ে করণের একেবারে অন্য রকম পরিকল্পনা ছিল। তিনি চেয়েছিলেন শাহরুখ খান, কাজল, রানী মুখার্জি ও অজয় দেবগণকে। শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। পরে ফের শাহরুখ খান ও রণবির কাপুরকে নিয়ে আরেকটি পরিকল্পনা করেন। সেটিও ভেস্তে যায়।

‘কলঙ্ক’ দিয়েই ২১ বছর পর পর্দায় আবার জুটি বাঁধছেন সঞ্জয় দত্ত ও মাধুরী দীক্ষিত। শুরুতে মাধুরীর চরিত্রটি করার কথা ছিল শ্রীদেবীর। কিন্তু তাঁর হঠাৎ মৃত্যু সব পরিকল্পনা এলোমেলো করে দেয়। তখন করণ এই সিনেমা বানানোর আশা এক রকম ছেড়েই দিয়েছিলেন। পরে মাধুরী রাজি হলে ‘কলঙ্ক’ নিয়ে নতুন করে আশা তৈরি হয়। মাধুরী ছবিটি করতে রাজি হয়েছেন—খবরটি প্রথম টুইট করেন শ্রীদেবীকন্যা জাহ্নবী কাপুর। তবে মাধুরীর আসার পর শুরু হয় নতুন সংকট, অভিনেত্রীর সঙ্গে ব্যক্তিগত ঝামেলার জন্য ছবিটি করতে অস্বীকৃতি জানান সঞ্জয় দত্ত। পরে অনেক বুঝিয়ে তাঁকে রাজি করানো হয়। এই প্রথম করণের ধর্মা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে কাজ করছেন মাধুরী। তাঁর সম্মানে ‘তাবাহ হো গায়ে’ শিরোনামের একটি গানও প্রকাশ করা হয়েছে।

সঞ্জয়-মাধুরীর সঙ্গে হালের সুপারহিট জুটি বরুণ ধাওয়ান-আলিয়া ভাটও আছেন ছবিটিতে। আলিয়ায় চরিত্রটি এক পাকিস্তানি তরুণীর। চরিত্রটি বুঝতে পরিচালক অভিষেক বর্মণ আলিয়াকে উপদেশ দেন ‘মুঘল-ই-আজম’, ‘উমরাও জান’-এর মতো ক্লাসিক সিনেমাগুলোর নায়িকা চরিত্রগুলোকে পর্যবেক্ষণ করতে। তবে আলিয়া জানান, রূপ চরিত্রের জন্য তিনি পাকিস্তানি সিরিয়াল ‘জিন্দেগি গুলজার হ্যায়’-এর সনম সায়েদকে অনুসরণ করেছেন। ছবিটির জন্য চোস্ত উর্দু রপ্ত করতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। ‘কলঙ্ক’ এখন তৈরি হলেও আলিয়া ছবিটির কথা জানেন আগে থেকেই। নিজের প্রথম ছবি ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’-এর মুক্তির সময়ই এ ছবির কথা তাঁকে বলেছিলেন করণ। ট্রেলার মুক্তির পর থেকেই ছবিটিতে আলিয়ার লুকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বলিউড। অভিনেত্রী নিজে অবশ্য বলছেন মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে একই ছবিতে থাকা তাঁর জীবনের সবচেয়ে বড় ঘটনা, ‘এই সিনেমার সঙ্গে কত আবেগ যে জড়িয়ে আছে! করণের পরিবারের স্বপ্নের সিনেমা এটা। সেই ছবিতে সুযোগ পাওয়া বড় ব্যাপার। সঙ্গে মাধুরী দীক্ষিত-সঞ্জয় দত্তর মতো তারকারা আছেন। দর্শকরা মনে রাখার মতো অভিজ্ঞতা নিয়ে হল থেকে বের হবে।’

মন্তব্য