kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

শোভিতা ও মেইড ইন হ্যাভেন

ক্যারিয়ার শুরুই করেছেন অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে তিন ছবির চুক্তি দিয়ে! শোভিতা ধুলিপালাকে তাই গুরুত্ব না দিয়ে উপায় কি। অ্যামাজনে মুক্তি পাচ্ছে তাঁর ওয়েব সিরিজ ‘মেইড ইন হ্যাভেন’। অভিনেত্রী ও সিরিজটি নিয়ে লিখেছেন মামুনুর রশিদ

৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শোভিতা ও মেইড ইন হ্যাভেন

শোভিতা ধুলিপালা

২০১৩ সালে মিস ইন্ডিয়া হয়েছিলেন। সে বছরই ফিলিপাইনে মিস আর্থ প্রতিযোগিতায় ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন। মিস ইন্ডিয়া হয়ে মিস আর্থ—আগে এ দুই প্রতিযোগিতা ঘুরে আসা অনেকেই বলিউডে নাম লিখেয়েছেন। শোভিতা ধুলিপালাও হেঁটেছেন সে পথেই। শুরুটাই হয় অনুরাগ কাশ্যপের হাত ধরে। ২০১৬ সালে ‘রমণ রাঘব ২.০’-তে সিমি চরিত্র করেন। অনুরাগের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে তিন সিনেমায় অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। অন্য দুটি এখনো মুক্তি পায়নি। ২০১৭ ও ২০১৮ সালে অভিনেত্রীর ‘কালাকান্দি’ ও ‘শেফ’ বক্স অফিসে ব্যর্থ। শোভিতা অবশ্যই তাতে হতাশ হয়ে বসে থাকেননি। অন্য অনেকের মতো চেষ্টা করেছেন আঞ্চলিক ছবিতে, যার একটি ‘দ্য বডি’। তেলেগু ছবিটি আদতে তাঁর জন্য ঘরে ফেরা, কারণ তিনি অন্ধ্র প্রদেশেরই মেয়ে। অভিনেত্রী নিজে অবশ্য বেশি আশাবাদী ‘মুথন’ নিয়ে। অনুরাগ কাশ্যপ প্রযোজিত গিতু মোহনদাসের মালয়ালাম ক্রাইম-ড্রামাটি নিয়ে মুক্তির আগে থেকেই আলোচনা। তবে এই ছবি করতে এতটা অভিজ্ঞতা হয়েছে যে অভিনেত্রী মনে করছেন, ‘মুথন’ তাঁকে দশ বছরের সমান অভিজ্ঞতা দিয়েছে, “অদ্ভুত সব অভিজ্ঞতা হয়েছে। চরিত্রের প্রয়োজনে বোরকা পরেছিলাম। কিন্তু দেখতে মুসলিম হওয়ার ‘অপরাধ’-এ আমাকে আলাদা কক্ষ দিতে অস্বীকার করে হোটেল কর্তৃপক্ষ! এই বৈষম্যমূলক আচরণ নাড়িয়ে দিয়েছিল। আরো নানা অভিজ্ঞতা হয়েছে।” ২০১৬ সালে অভিষেক হলেও তিন বছরে মাত্র তিন ছবি! সংখ্যায় কম হলেও অভিনেত্রী মনোযোগ দিতে চান কাজের মানের দিকে। তবে বাণিজ্যিক ছবি নিয়ে কোনো ছুঁতমার্গ নেই। সিনেমার পাশাপাশি শোভিতা করছেন ওয়েব সিরিজও। আগামীকালই মুক্তি পেতে যাচ্ছে যোয়া আখতারের ‘মেইড ইন হ্যাভেন’। ‘ইনসাইড এজ’, ‘মির্জাপুর’, ‘ফোর মোর শটস প্লিজ’-এর পর অ্যামাজনের চতুর্থ ভারতীয় সিরিজ এটি। ফারহান আখতার ও হৃতেশ সিদওয়ানির এক্সেল এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে নির্মিত তৃতীয় সিরিজ এটি। দিল্লির একদল ওয়েডিং প্ল্যানারের জীবন নিয়ে গল্প। ভারতীয় বিয়েশাদির অনুষ্ঠান আয়োজনের আড়ম্বরতার পেছনের বিভিন্ন নোংরা সত্যকে সামনে আনবে এই সিরিজ। ১০ পর্বের সিরিজের চিত্রনাট্য লিখেছেন যোয়া আখতার ও তাঁর নিয়মিত চিত্রনাট্যকার রিমা কাগতি। শোভিতার সঙ্গে এখানে আরো দেখা যাবে অর্জুন মাথুর, জিম সার্ব, কালকি কোয়েলচিনকে। বড় আকর্ষণ, ফারহান আখতারের অতিথি চরিত্র। দর্শকদের চমক দিতে তাঁর চরিত্র নিয়ে তেমন কিছু খোলাসা করা হয়নি।

মন্তব্য