kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ঘুরছেন আঁখি

দেশ-বিদেশের কনসার্ট আর নতুন গান নিয়ে ব্যস্ত আঁখি আলমগীর। এ বছর গান নিয়ে রয়েছে তাঁর নানা পরিকল্পনা। লিখেছেন আতিফ আতাউর

২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঘুরছেন আঁখি

গত বছর ভারতের ‘যোধপুর পার্ক উৎসব’-এ গান করেছিলেন আঁখি আলমগীর। এবারও আয়োজকরা যখন অতিথিদের নামের তালিকা করছেন তখন সবার দাবি বাংলাদেশ থেকে আঁখি আলমগীরকে আনতে হবে। তাঁর গান মিস করতে চান না তাঁরা। কয়েক দিন আগেই সেই উৎসবে অংশ নিয়ে এসেছেন আঁখি।

বলেন, ‘এটা একজন শিল্পীর জন্য অনেক বড় পাওয়া। আয়োজকরা যখন এবার আমন্ত্রণ করার সময় শ্রোতাদের চাওয়ার কথা বললেন তখন খুব গর্ব হয়েছে। শ্রোতাদের পছন্দকে প্রাধান্য দিয়ে তাঁরা আমার পুরো টিম নিয়ে গিয়েছিলেন। উৎসবে গান করার সময়ও পশ্চিমবঙ্গের শ্রোতাদের উন্মাদনা টের পেয়েছি।  উৎসবে শ্রেয়া ঘোষাল, আশা ভোঁসলের মতো শিল্পীদের সঙ্গে আমি অংশ নিয়েছিলেন।’

শ্রোতারা আবারও আপনাকে চাওয়ার কারণ? ‘আমার গান করার ধরন, স্টাইল, ফ্যাশন। আমি নিজেকে একজন পারফরমার মনে করি। সব ধরনের গান গাইতে পারি। আই অ্যাম আ ফুল প্যাকেজ অব এন্টারটেইনমেন্ট। এর জন্য অনেকে ঈর্ষাও করেন। কিন্তু আমি গর্ববোধ করি।’

ভারত সফর শেষে দেশে এসেও ফুসরত মেলেনি এই গায়িকার। ময়মনসিংহের তারাকান্দায় গেয়েছেন একটি কনসার্টে। এরপর মাতিয়েছেন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত আওয়ামী লীগের বিজয় উৎসবের কনসার্টে।

বর্তমান ব্যস্ততা কী নিয়ে? ‘গান ছাড়া আর কি। এ বছর আমার বেশ কিছু নতুন গান আসবে। সময়মতো  প্রতিটি গানের কথা আলাদা করে শ্রোতাদের জানিয়ে দেব। এ মুহূর্তে বলতে চাচ্ছি না। শুধু এতটুকু বলতে চাই, ভালো ভালো নতুন গান পাবে শ্রোতারা। মাঝখানে বেশ কিছু মেলোডি গান করেছি। আবারও সে রকম কিছু গান করব। এ মাসেই আবার গান করতে হংকং যাচ্ছি।’

অ্যালবামে আইটেম গান করে বাজিমাত করেছিলেন আঁখি। শওকত আলী ইমনের সঙ্গে করা ‘জল পড়ে পাতা নড়ে’, ‘বাবুজি’ বেশ আলোচিত হয়। এরপর তাঁর দেখানো ট্রেন্ডে পা রাখেন নতুন শিল্পীরাও। বলেন, ‘ইমনের কাছে শুনেছি যারা তার কাছে আইটেম গান করতে যায়, বলে আঁখি আপুর মতো একটি আইটেম গান করে দেন। নতুনরা যে এতে উৎসাহিত হচ্ছে, মেয়েরা গাইছে এটাকে আমি আমার অর্জন বলে মনে করি।’ শিগগিরই নতুন আইটেম গান নিয়ে আসছেন তিনি। গানের কাজ অনেকটা গুছিয়েও এনেছেন।

এর আগে উপস্থাপনা ও মডেলিংয়েও দেখা গেছে তাঁকে। নতুন বছরেও কি এমন পরিকল্পনা আছে? ‘উপস্থাপনা ও মডেলিং আমার কাজ নয়। এগুলো করি শখের বসে। কেউ যদি প্রস্তাব দেয় ভেবে দেখি, পছন্দ হলে সম্মতি দিই, এতটুকুই। নতুন বছরে সে রকম প্রস্তাব পেলে পছন্দ হলে অবশ্যই করব।’

৭ জানুয়ারি ছিল তাঁর জন্মদিন। সন্তানদের আবদার পূরণে এবার বেশ জমকালো আয়োজন করেছিলেন। সবচেয়ে চমক জাগানিয়া ছিল অতিথিদের উপস্থিতি। ২১০ জনের মতো অতিথিকে আমন্ত্রণ করেছিলেন। হাজির হয়েছিলেন ২০৭ জন। নিজের প্রতি সবার এমন ভালোবাসা দেখে খুবই আপ্লুত আঁখি, ‘তাঁরা ভালোবেসে আমার দাওয়াত গ্রহণ করেছেন। কষ্ট করে এসেছেন। তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। সবাই মিলে একটু আনন্দ করতে চেয়েছিলাম। হয়েছেও তাই।’

এই জন্মদিনেই ভিন্ন রকম উপহার পেয়েছেন জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার প্রযোজক আবদুল আজিজের কাছে। জন্মদিনের উপহার হিসেবে আঁখিকে পরবর্তী প্রযোজনার একটি ছবিতে প্লেব্যাক করার সুযোগ দেবেন বলে ঘোষণা দেন তিনি। আজিজের পর একই ঘোষণা দেন একজন পরিচালকও। গান দুটির সংগীত পরিচালকের নামও ঘোষণা করেন তাঁরা—শওকত আলী ইমন।

মন্তব্য