kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

যে মার্কেটে কর্মী থেকে কর্মকর্তা সবাই নারী

সৌদি আরবে হাইপারমার্কেট লুলুর উদ্যোগ

বাণিজ্য ডেস্ক   

৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যে মার্কেটে কর্মী থেকে কর্মকর্তা সবাই নারী

সৌদি আরবে হাইপারমার্কেট লুলুর নতুন স্টোরে কর্মরত সবাই নারী

মধ্যপ্রাচ্যের যে দেশটিতে নারীদের স্বাধীনভাবে কাজ করা এত দিন দুঃসাধ্য ছিল, সেই সৌদি আরবে এখন পুরোপুরি নারী পরিচালিত প্রতিষ্ঠানও হচ্ছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক শীর্ষ খুচরা প্রতিষ্ঠান লুলু গ্রুপ সৌদি আরবে প্রতিষ্ঠানের প্রথম স্টোর খুলেছে যেখানে একজন কর্মী থেকে শুরু করে কর্মকর্তা সবাই নারী। এটিকে আরবের সবচেয়ে বড় দেশটিতে নারীর ক্ষমতায়নে একটি বড় পদক্ষেপ হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

জেদ্দায় কিং আব্দুল আজিজ ইউনিভার্সিটির পাশে অবস্থিত ৩৭ হাজার বর্গফুটের এই স্টোরে বিশ্বের যাবতীয় পণ্য পাওয়া যায়। যেমন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য থেকে শুরু করে তাজা ফলফলাদি, পোশাক, স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য পণ্য, গৃহস্থালিসহ আরো অনেক কিছু পাওয়া যায়।

লুলু হাইপারমার্কেট সৌদি অ্যারাবিয়ার পরিচালক সেহিম মোহাম্মদ বলেন, ‘আমরা এখানে উদ্ভাবনী শপিং প্ল্যাটফর্ম সূচনা করার পাশাপাশি নারীদের নেতৃত্বে আমাদের প্রথম স্টোরও খুলেছি। এখানে ব্যবস্থাপক থেকে শুরু করে ক্যাশিয়ার পর্যন্ত সবাই নারী। যাঁরা গ্রাহকদের বিভিন্ন পণ্য নিতে সহযোগিতা করছেন, সেবা দিচ্ছেন—তাঁরা সবাই নারী। সৌদি সরকার নারীর ক্ষমতায়নে যে পরিকল্পনা ও প্রচেষ্টা গ্রহণ করেছে তার সঙ্গে সেই অগ্রযাত্রায় আমাদের এই পদক্ষেপ।’

তিনি বলেন, ‘সৌদি আরবে আমাদের যতগুলো স্টোর আছে সবটিতে সৌদি নাগরিক আছেন তিন হাজার। এর মধ্যে ৮০০ জনই নারী। আমরা আরো বেশি নারীদের আমাদের এখানে নিয়োগ দিতে চাই। নারীর অংশগ্রহণ বাড়াতে এটি আমাদের প্রতিশ্রুতি।’

নতুন এই স্টোরের জেনারেল ম্যানেজার মাহা মোহাম্মদ আলকারনি বলেন, ‘লুলু গ্রুপের এমন একটি উদ্যোগের অংশীদার হতে পেরে আমি দারুণ আনন্দিত। যেটি পুরোপুরি নারীদের দারাই নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে। সৌদি নারীদের ক্ষমতায়ন প্রচেষ্টায় আমিও একজন, তাই এটি আমার প্রতি অনেক বড় সম্মান। অর্থনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি ও কর্মক্ষেত্রে তাঁদের দক্ষতা বাড়াতে আমরা আরো কাজ করে যাব।’

কর্মকর্তারা জানান, লুলুতে বিশ্বমানের সব পণ্য পাওয়া যায়। গ্রাহকরা এখানে তাঁদের লাইফ স্টাইলের নিত্যনতুন চাওয়া অনুযায়ী পণ্য পেয়ে থাকেন। এখানে সেসব গ্রাহক প্রবেশ করতে পারবেন যাঁদের ‘তাওয়াক্কালনা’ অ্যাপ ডাউনলোড করা আছে। করোনা মহামারিতে গ্রাহকদের নিরাপত্তার কথা ভেবেই এটি করা হয়েছে। এ ছাড়া করোনার মাঝে মানুষের যাতে কোনো ধরনের পণ্য নিয়ে সমস্যায় পড়তে না হয় এ জন্য খাদ্য ও খাদ্যবহির্ভূত পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ রাখা আছে। এখানে কর্মী ও গ্রাহক সবারই স্বাস্থ্য সুরক্ষার সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করা হয়। স্যানিটাইজেশনের পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা হয়।

সূত্র : সৌদিগ্যাজেট।