kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল

কম খরচে মানসম্মত সেবা

৪ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



কম খরচে মানসম্মত সেবা

ঢাকার শ্যামলীতে অবস্থিত ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল। ২০১১ সালে ২৫০ বেড নিয়ে এই হাসপাতালটি যাত্রা শুরু করে। তাদের মেডিক্যাল কলেজের ৬৫০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৪৬ জনই বিদেশি। কম খরচে বিশেষায়িত চিকিৎসাসেবা দিয়ে এরই মধ্যে হাসপাতালটি বেশ সুনাম অর্জন করেছে

 

বিভাগসমূহ

ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালে অনেকগুলো বিভাগ রয়েছে। এগুলো হলো ইন্টারনাল মেডিসিন, নিউরোমেডিসিন, হৃদরোগ ও বাতজ্বর, ডায়াবেটিস ও হরমোন, বক্ষব্যাধি, গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজি ও লিভার, কিডনি ও ইউরোলজি, চর্ম ও যৌন, ফিজিক্যাল মেডিসিন, অনকোলজি, হেমাটোলজি, গাইনি ও প্রসূতিরোগ, নবজাতক ও শিশুরোগ, জেনারেল ও ল্যাপারোস্কোপিক সার্জারি, নিউরো ও স্পাইন সার্জারি, কোলরেক্টাল সার্জারি, অর্থোপেডিক সার্জারি, শিশু সার্জারি, ইএনটি ইত্যাদি।

 

চিকিৎসক

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকজন হলেন অধ্যাপক মো. জলিলুর রহমান, অধ্যাপক মো. রাশিদুল হাসান, অধ্যাপক সোহরাব হোসেন সৌরভ, অধ্যাপক এস এম আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক এস এম ইদ্রিস আলী, অধ্যাপক বেগম হোসনে আরা প্রমুখ। ভিজিট ৩০০ থেকে ৮০০ টাকার মধ্যে। সাধারণ বেডভাড়া ১০০০ টাকা, সিঙ্গল কেবিন ভাড়া ১৫০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যে।

 

আউটডোর

২০ টাকার বিনিময়ে এখানকার আউটডোরে প্রতিদিন হাজারখানেক রোগীর চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। সকালবেলাও অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপকরা রোগী দেখেন, যাঁদের ভিজিট তুলনামূলক কম। ইমার্জেন্সি ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে।

 

ল্যাবরেটরি ও ইমেজিং

রয়েছে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম সমৃদ্ধ ল্যাবরেটরি ও রেডিওলজি ইমেজিং বিভাগ। এখানে ক্লিনিক্যাল প্যাথলজি, হরমোনাল টেস্ট, বায়োকেমিস্ট্রি, ইমিওনোলজি, সেরোলজি, ক্যান্সার মার্কারসহ অত্যাধুনিক ১২৮ স্লাইস সিটি স্ক্যান, ৪ডি  আল্ট্রাসনোগ্রাম, ইকো, কালার ডপলার, ইএমজি/এনসিভি, ইউরোডায়নামিকসসহ নানা পরীক্ষা করা হয়। রয়েছে এক্সিকিউটিভ হেলথ চেকআপ, কিডনি চেকআপ, এন্টিনেটাল চেকআপের ব্যবস্থা।

 

আইসিইউ/এনআইসিইউ

ক্রিটিক্যাল রোগীদের জন্য রয়েছে ১০ বেডের আইসিইউ, যার প্রতি বেডের ভাড়া ১০০০০ টাকা। ১০ বেডের এনআইসিইউ বেডের ভাড়া ৩৩০০ টাকা, পাঁচ বেডের এসসিইউ ভাড়া ৩০০০ টাকা।

 

বিশেষায়িত সেন্টার

ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালে রয়েছে বেশ কয়েকটি বিশেষায়িত সেন্টার। একটি হলো অ্যাডভান্সড সেন্টার অব কিডনি অ্যান্ড ইউরোলজি (আকু)। আধুনিকতম হলমিয়াম লেজারের মাধ্যমে কিডনির পাথর অপসারণ, থুলিয়াম লেজারের  মাধ্যমে টিউমার, প্রস্টেট অপারেশন ও আধুনিক ইউরোডাইনামিকস মেশিনের মাধ্যমে ইউরিনারি ব্লাডার ও ইউরেথ্রার কার্যকারিতা নিরূপণ সাশ্রয়ী খরচে নিয়মিত করা হচ্ছে। এখানে পেট না কেটেই বেশির ভাগ অপারেশন করা হয়।

‘আর নয় অস্বস্তি’—এই স্লোগান সামনে রেখে নারী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, রিসেপশনিস্ট, বিলিং এক্সিকিউটিভ, টেকনিশিয়ানসহ নারী স্টাফদের নিয়ে এখানে চালু রয়েছে ওমেনস কেয়ার সেন্টার। এখানে রয়েছে বাংলাদেশে প্রথম ইন্টারভেনশনাল রেডিওলজি সেন্টার। চালু আছে ঢাকা সেন্ট্রাল আইআর সুইট, যেখানে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তির ইন্টারভেনশন ইকুইপমেন্টস ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন আইআর বিশেষজ্ঞ ও টেকনিশিয়ান।

এ ছাড়া রয়েছে কিডনি বিকল রোগীদের সেবায় ১২ বেডের হেমোডায়ালিসিস সেন্টার। এখানে ২৫০০ থেকে ৩১০০ টাকার মধ্যে হেমোডায়ালিসিস করা যায়। হেপাটাইটিস ‘বি’ ও ‘সি’ রোগীদের আলাদা মেশিনে ডায়ালিসিসের ব্যবস্থাও আছে। ঢাকার মধ্যে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে অ্যাম্বুল্যাস সার্ভিস চালু আছে। এখানকার ইনডোর ফার্মেসিতে ৬ শতাংশ ডিসকাউন্টে ওষুধ বিক্রি করা হয়। হাসপাতালের সেবা সম্পর্কে কোনো অভিযোগ থাকলে ০১৭১১১৬৪২১৭ নম্বরে পরিচালক বরাবর জানানো যাবে।

গরিব ও হতদরিদ্র রোগীদের জন্য এখানে রয়েছে ১০ শতাংশ ফ্রি বেড, যাতে ওষুধ ও ওটি চার্জ বাদে বিনা মূল্যে কনসালটেশন, অপারেশনসহ যাবতীয় চিকিৎসা পাওয়া যায়। এ ছাড়া বিভিন্ন সময়ে ফ্রি হেলথ ক্যাম্পে বিনা মূল্যে চিকিৎসা পরামর্শ দেওয়া হয়।

 

কর্তৃপক্ষের বক্তব্য

ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালের পক্ষে বলা হয়, সামর্থ্যযোগ্য খরচে চাওয়া-পাওয়ার যুগলবন্দি এই হাসপাতাল। অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের চিকিৎসা সহায়তা, দক্ষ নার্সদের যত্ন, পরিচর্যা ও স্টাফদের আন্তরিকতার কোনো কমতি নেই এখানে। তাদের লক্ষ্য কম খরচে মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা। হাসপাতালটি ৫০০ বেডে উন্নীত করার কাজ চলছে।

 

যোগাযোগের ঠিকানা

২/১ রিং রোড, শ্যামলী (আদাবর থানা সংলগ্ন)

মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭।

ফোন : ০২-৯১২৮৭২৭, ০২-৯১৩৬১০২

সেলফোন : ০১৭৫৫৫৯৭৭৯৮, ০১৭৫৫৬৩০১৬৭

ওয়েবসাইট : www.dcimch.com

 

মন্তব্য