kalerkantho

সোমবার । ২২ আষাঢ় ১৪২৭। ৬ জুলাই ২০২০। ১৪ জিলকদ  ১৪৪১

করোনা বিশ্ব

গবেষকের বিপদ

৫ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গবেষকের বিপদ

মানুষকে করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে বাঁচানোর জন্য গবেষকরা করছেন নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা। এতে মাঝে মাঝে বাধছে বিপত্তিও। অস্ট্রেলিয়ান গবেষক ড্যানিয়েল রিয়ারডনের কথাই ধরুন। তিনি এমন একটি জিনিস তৈরির পরিকল্পনা করেন, যেটি জীবাণু আপনার হাত-মুখের কাছে গেলেই তাকে রুখে দিবে। দুঃখজনকভাবে ডিভাইসটি পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করেনি।

‘আমার আবিষ্কার রীতিমতো উল্টো ফল দেখিয়েছে। এটা সারাক্ষণই শব্দ করে গেছে, যতক্ষণ না একটা চুম্বক কাছাকাছি রাখা হয়েছে। সাময়িক ইস্তফা দিয়ে চুম্বক নিয়ে পড়লাম। মুখে চুম্বক বসাতে লাগলাম আনমনে। কানের ফুটো, নাকের ফুটোয়। যখন অন্য নাকের ফুটোয় চুম্বক ঢুকালাম তখনই সমস্যাটা হলো। নাকের মাঝখানের পর্দার দুই পাশের চুম্বকগুলো একসঙ্গে লেগে আটকে গেল।’

গবেষক অবশ্য মাথা ঠাণ্ডা রাখলেন। হাতে বাকি যে কটি চুম্বক ছিল এগুলো ব্যবহার করলেন অবস্থা থেকে রক্ষা পেতে। কিন্তু ওগুলোও আটকে গেল। শেষ চেষ্টা হিসেবে প্লায়ারস ব্যবহার করলেন। কিন্তু ওটাও আটকে গেল। নাকের জন্য এই বোঝাটাও অসহ্য হয়ে দাঁড়াল। এবার বাধ্য হয়েই গবেষককে মেলবোর্নের এক হাসপাতালে যেতে হলো। সৌভাগ্যক্রমে চিকিৎসকরা চুম্বক ও প্লায়ারসের বাঁধন থেকে তাঁর নাককে মুক্ত করতে পারলেন। তবে তাঁরা বেশ একচোট হেসেও নিয়েছেন।

মন্তব্য