kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

শুরুতে হাসো

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিক্ষক ছাত্রদের বললেন, গরু ঘাস খাচ্ছে এমন একটা ছবি আঁকো।

রমিজ : স্যার, আমার আঁকা হয়ে গেছে।

স্যার : আরে রাখ! তোরটা প্রথমে দেখলে গোড়ায় গলদ হয়ে যাবে। এই মৃদুল, দেখি তোরটা।

মৃদুলেরটা দেখে স্যার বললেন, বেশ!

রমিজ : স্যার, আমারটা দেখেন।

স্যার : আরে দাঁড়া। দেখি মিতা, তোরটা।

মিতার আঁকা দেখেও স্যার বললেন, তোরটাও ভালো হয়েছে। এবার দেখি রমিজ, তোরটা। রমিজের খাতা দেখে স্যার বললেন, কী রে, গরু আছে, ঘাস কই?

রমিজ : স্যার, বারবার বললাম, আমারটা দেখেন। দেখলেন না। এই ফাঁকে গরু ঘাস খেয়ে নিল। আমি কি গরুর মুখ ধরে রাখতে পারব!

হার্টের রোগী বিশেষজ্ঞ ডাক্তারকে করুণভাবে বলল, ‘ডাক্তার সাহেব, আমি কি এখন থেকে সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করতে পারব?’

ডাক্তার : তা পারেন, তবে বেশিবার নয়।

রোগী : যাক, বাঁচালেন।

ডাক্তার : কেন?

রোগী: এ দুই মাস তিনবেলা পানির পাইপ বেয়ে ওঠানামা করতে করতে জান কয়লা হয়ে গেছে।

এক রোগী অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে পকেটে হাত দিয়ে টাকা বের করছে। তাই দেখে ডাক্তার বললেন, ‘না না, আপনাকে এখনই টাকা দিতে হবে না। আগে অপারেশনটা হোক।’

রোগী : না, টাকা আপনাকে দিচ্ছি না। আমাকে অজ্ঞান করার আগে পকেটের টাকাগুলো গুনে রাখছি।

প্রথম বন্ধু : দোস্ত তোর জুতার ব্যবসা কেমন চলছে?

দ্বিতীয় বন্ধু : আর বলিস না। খুবই মন্দা। গত পরশু মাত্র এক জোড়া বিক্রি করেছি। কাল একটাও বিক্রি হয়নি। আজকের অবস্থা আরো খারাপ।

প্রথম বন্ধু : বলিস কী! এক জোড়াও বিক্রি না হওয়ার চেয়ে খারাপ কী হতে পারে?

দ্বিতীয় বন্ধু : গত পরশু যে জুতা জোড়া বিক্রি করছিলাম, আজ ওটা ফেরত দিয়ে গেছে।

মন্তব্য