kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭। ১১ আগস্ট ২০২০ । ২০ জিলহজ ১৪৪১

মগজ ধোলাই

একজন সত্যবাদী

৪ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একজন সত্যবাদী

এক বাড়িতে চুরি হয়েছে স্বর্ণমুদ্রা। বিচার চাইতে বীরবলের কাছে এলো চার ভাই। চার ভাইয়ের মধ্যে আবার একজনকে কেউ দেখতে পারে না। কারণ সে সব সময় সত্য কথা বলে। আর বাকিরা মিথ্যা বলা ছাড়া থাকতেই পারে না। তাদের সব কথাই মিথ্যা। বীরবল নিজেও বুঝতে পারছে না, এর মধ্যে কে সত্যবাদী আর কারা মিথ্যাবাদী। তাকে শুধু কানে কানে একজন এসে বলে গেছে, ভাইয়ের মধ্যে একজন সত্যবাদী আছে। কিন্তু যে তথ্যটা জানিয়েছে, সে আবার সত্যবাদীর চেহারা চেনে না। বীরবল খানিকক্ষণ ভেবে সোজাসুজি জানতে চাইল, তোমাদের মধ্যে কে চুরি করেছে?

হোসেন বলল—চুরি করেছে আলম।

আলম—আমি নই, চুরি করেছে হোসেন।

নাসির—হোসেন কিন্তু সত্য কথা বলছে, জনাব।

আকবর—নাসিরের কথাটা মিথ্যা নয়।

 

এসব শুনে বীরবলের এক মিনিটও লাগল না চোর ধরতে। এবার বলো দেখি কে চুরি করেছে।

 

গত সংখ্যার উত্তর :  রহস্যজট—দম্পতি ছিল মাদক ব্যবসায়ী। কারণ বাকিরা সবাই দুপুরের ভারি খাবার খাচ্ছিল। ওই দম্পতি তেহারি খেয়ে আসায় শুধু চা খাচ্ছিল। ভারি খাবার খাওয়ার অবস্থা ছিল না তাদের।

মগজ ধোলাই—বীরবল যা করেছিল—ওই কামারের বর্শাটা নিক্ষেপ করেছিল তারই তৈরি বর্মের দিকে। বর্শা বিঁধলে প্রমাণ হবে বর্মটা টেকসই নয়, আর না বিঁধলে বোঝা যাবে বর্শাটা ধারালো নয়।

মন্তব্য