kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্র্যাক-আইএসডির পাঁচ প্রশিক্ষণ

পাঁচটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট (ব্র্যাক-আইএসডি)

১১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ব্র্যাক-আইএসডির পাঁচ প্রশিক্ষণ

চাকরি আছে প্রতিবেদক: বরিশালের মেয়ে শাহনাজ বেগম। এইচএসসি পাসের পর অভাবের সংসারে আর লেখাপড়া করতে পারেননি। এক প্রতিবেশীর পরামর্শে কারিগরি প্রশিক্ষণ নিতে আসেন ঢাকায়। এক আত্মীয়ের বাসায় থেকে ভর্তি হন উত্তরার ‘ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট’-এ। হাউসকিপিংয়ে দুই মাসের প্রশিক্ষণ শেষে আরো দুই মাস একটি নামকরা হোটেলে ব্যবহারিক প্রশিক্ষণ নেন। তার পরই তাঁর চাকরি হয়ে যায় উত্তরার হোটেল লা মেরিডিয়ানে। চার মাসের শিক্ষানবিশকাল পেরিয়ে তিনি এখন নিয়মিত কর্মী। মাসিক বেতন ৭০০০ টাকা হলেও অন্যান্য ভাতা মিলিয়ে তাঁর আয় দাঁড়ায় প্রায় দ্বিগুণ। শাহনাজের মতোই প্রশিক্ষণ নিয়ে স্বাবলম্বী হোটেল রিজেন্সির পারুল আক্তার, হোটেল আমারির রেহানা আক্তার ঝুমাসহ অনেকেই। আমাদের দেশে প্রতিবছর প্রায় ২০ লাখ লোক শ্রমবাজারে যোগ হচ্ছে। দেশ-বিদেশের শ্রমবাজারে এদের পেশাভিত্তিক দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এ লক্ষ্যে কাজ করছে। চাকরির বাজারে যথেষ্ট চাহিদা আছে, এ রকম কিছু কারিগরি ক্ষেত্রে তারা বিভিন্নমেয়াদি প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এমনই একটি প্রতিষ্ঠান রাজধানীর আশকোনার ব্র্যাক-আইএসডি বা ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট।

পাঁচটি বিষয়ে পেশাভিত্তিক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। বিষয়গুলো হচ্ছে—ইলেকট্রিক্যাল ইনস্টলেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স, রেফ্রিজারেশন অ্যান্ড এয়ারকন্ডিশনিং, ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিসেস, হাউসকিপিং অকুপেশন আর সুইং মেশিন অপারেশন। ক্যারিয়ার কাউন্সেলিং ক্লাসে সিভি তৈরি, ইন্টারভিউর প্রস্তুতি, সেবাগ্রহীতার সঙ্গে আচরণসহ নানা বিষয় শেখানো হয়। এখানকার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি পেতেও সহায়তা করা হয়। দক্ষতা ও প্রতিষ্ঠানভেদে শুরুতেই বেতন হতে পারে সাত হাজার থেকে ১৮ হাজার টাকা পর্যন্ত। চাকরি স্থায়ী হলে বেতন দ্রুত বাড়ে। অন্যান্য ভাতা, টিফিন প্রভৃতি সুবিধা তো আছেই। সরকারের জাতীয় দক্ষতা নীতি (এনএসডিপি) অনুসরণ করে আধুনিক উপকরণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ পরিচালিত হয়। প্রশিক্ষকরাও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সনদপ্রাপ্ত। প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান ‘সিটি অ্যান্ড গিল্ডস’ অনুমোদিত। প্রতিটি বিষয়ের ল্যাবই সর্বাধুনিক। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছে আলাদা মেশিন ও প্রয়োজনীয় শিক্ষণ উপকরণ। ব্র্যাক-আইএসডি থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা যে সনদ পেয়ে থাকেন, চাকরির বাজারে তার গুরুত্ব অনেক। এখান থেকে প্রশিক্ষণ পাওয়া অনেকেই বিভিন্ন শিল্প-কারখানা ও হোটেলে চাকরি করছেন। কেউ আবার ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেই ব্যবসা চালু করেছেন।

ব্র্যাক-আইএসডির ভাইস প্রিন্সিপাল মো. জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী জানান, ১৮ বছর বয়সের ওপর যে কেউ যেকোনো বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। প্রতি ব্যাচে ২০ থেকে ৩০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশ নিতে পারেন। দুটি শিফটে ভর্তি করা হয়। প্রথম শিফট চলে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত, পরের শিফট চলে দুপুর ১টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত। ফুড অ্যান্ড বেভারেজ সার্ভিসেস আর হাউসকিপিং অকুপেশন—এই দুটি বিষয়ে ব্র্যাক-আইএসডিতে দুই মাস প্রশিক্ষণের পর বিভিন্ন স্বনামধন্য হোটেলে আরো দুই মাস হাতে-কলমে কাজ শেখানো হয়। বাকি বিষয়গুলোর প্রতিটির প্রশিক্ষণের মেয়াদ তিন মাস। কোর্স ফি সাত হাজার থেকে সাড়ে সাত হাজার টাকা। দূরের প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য এখানে স্বল্পখরচে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাও আছে। নভেম্বরে শুরু হতে যাওয়া পরবর্তী কোর্সে ভর্তি চলছে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রশিক্ষক টুম্পা ওয়াদুদ জানান, পোশাকশিল্পের চাহিদা অনুযায়ী দিন দিন সুইং মেশিন অপারেশন কোর্সের গুরুত্ব বাড়ছে। তাই এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতে আরো তিনটি কেন্দ্র চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে ব্র্যাক। এগুলো হবে—টঙ্গীর সাতাইশ, গাজীপুরের নাওজোর আর সাভারে।

যোগাযোগ : ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট (ব্র্যাক-আইএসডি), আশকোনা, উত্তরা, ঢাকা। ফোন : ০১৭২৯০৭০৫৭১, ০১৭৮৯৭৫৩৯৩৭

মন্তব্য