kalerkantho

রবিবার । ২১ জুলাই ২০১৯। ৬ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৭ জিলকদ ১৪৪০

স্বপ্ন ও বাস্তবের সেতুবন্ধন

২৯ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্বপ্ন ও বাস্তবের সেতুবন্ধন

সবাই চায় তার স্বপ্নের সবুজ শান্তির নীড় গড়ে উঠুক নিজস্ব জমির ওপর। একটি স্বপ্নের নগরীতে সুখের নীড় গড়তে প্রয়োজন এক খণ্ড নিষ্কণ্টক জমি। ঢাকা বা দেশের বড় শহরগুলোর অভ্যন্তরে যেটুকু জমি আছে, তাতে একটি পরিকল্পিত আবাসিক এলাকা গড়ে তোলা কল্পনাতীত। তাই শহরসংলগ্ন এলাকায় আধুনিক সব সুযোগসংবলিত, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত আবাসিক প্রকল্প গড়ে তোলার মাধ্যমে এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা সম্ভব। এই বাস্তবতা মেনে নিয়ে রূপায়ণ গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান রূপায়ণ ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড (RLDL) বাংলাদেশের একটি স্বনামধন্য ভূমি উন্নয়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ২০০৯ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে অদ্যাবধি অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

প্রতিষ্ঠানটি দেশের বিভিন্ন স্থানে জমি ক্রয়ের পর প্রয়োজনীয় উন্নয়নকাজ সম্পন্ন করে ক্রেতাদের কাছে প্লট আকারে বিক্রি করে থাকে। স্বল্প আয় থেকে উচ্চ আয় সব ধরনের ক্রেতার কাছে গ্রহণযোগ্য মূল্যে প্লট বিক্রি করে সাধারণ মানুষের আবাসন সমস্যা সমাধানের অবদান রাখাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য বলে জানান এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল কালাম আজাদ (অব.)।

রূপায়ণ ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড দেশের বিভিন্ন স্থানে এ পর্যন্ত ১০টি ভূমি উন্নয়ন প্রকল্প সম্পূর্ণ করে ক্রেতাদের হাতে ন্যস্ত করেছে এবং ২০টি প্রকল্প চলমান রয়েছে। রাজধানী এবং এর আশপাশের এলাকা ছাড়াও পূর্বাচল, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, গাজীপুর, সাভার, কুমিল্লা, সিলেট, কক্সবাজার, কুয়াকাটা এলাকায় প্রতিষ্ঠানটির প্রকল্পের কাজ চলছে। দেশের অন্য জেলা শহরগুলোর আশপাশে প্রকল্প করার পরিকল্পনাও প্রতিষ্ঠানটির রয়েছে বলে জানা যায়।

মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তদের চাহিদার ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠানটি ৩, ৫ ও ১০ কাঠার প্লট বিক্রি করে থাকে। এ ছাড়া বাণিজ্যিক অবকাঠামো নির্মাণ উপযোগী বড় আকারের প্লটের ব্যবস্থাও প্রতিষ্ঠানটি করে থাকে। ছোট বা বড় আকারের প্লট ছাড়াও এই কম্পানি ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী বড় আকারের জমি (যেমন ১০০ বিঘা বা তদূর্ধ্ব) ক্রয়-বিক্রয় করে থাকে। স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি কিস্তির সুবিধা থাকায় খুব সহজেই যেকোনো আয়ের ব্যক্তি এই কম্পানির প্লটের মালিক হতে পারেন। প্রতিষ্ঠানটির প্রতিটি প্রকল্পে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিটি প্রকল্পের আওতায় সব ধরনের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা যেমন—প্রশস্ত রাস্তা, শিশুদের খেলার জায়গা, মসজিদ, স্কুল, সুপার মার্কেট, কনভেনশন সেন্টার, জিমনেশিয়াম, সিকিউরিটি টাওয়ার, উন্মুক্ত জায়গা ইত্যাদি নিশ্চিত করা হচ্ছে। আবাসন ব্যবসার মূল চাবিকাঠি হলো নিষ্কণ্টকভাবে গ্রাহকদের কাছে প্লট হস্তান্তর করা, আর এই লক্ষ্যে রূপায়ণ ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের এক দল সুদক্ষ ল্যান্ড কর্মকর্তা রয়েছেন, যাঁদের সহযোগিতায় নিষ্কণ্টক জমি ক্রয় করা হয় বিধায় গ্রাহকদের শতভাগ নিশ্চয়তা প্রদান করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিষ্কণ্টক অবস্থায় প্লট ও প্রকল্প হস্তান্তরে কোনো অসুবিধা হয় না। ‘Bridging Your Dream and Reality’ স্লোগান ধারণ করে প্রতিষ্ঠানটি এর স্বপ্ন ও পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে চলেছে।

মন্তব্য