English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

জ্যাকব টাওয়ার ঘিরে এ যেন পর্যটন মেলা

  • কামরুল সিকদার, চরফ্যাশন (ভোলা)   
  • ৩১ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০

দেশের নিপুণ স্থাপনাশৈলীর অন্যতম নিদর্শন জ্যাকব টাওয়ার এখন দেশি-বিদেশি পর্যটকদের পদচারণে মুখরিত। বিশেষ করে শুক্রবার ও শনিবার ছুটির দিনে এলাকাটি মিলনমেলায় পরিণত হচ্ছে। এবার ঈদুল আজহার ছুটিতে এ অঞ্চলের মানুষের অন্যতম আকর্ষণ ছিল এই টাওয়ার এবং দর্শনার্থীদের ভিড় এখনো লেগে আছে।

জ্যাকব টাওয়ারের সর্বোচ্চ চূড়ায় উঠে দেখা যায় দিগন্তবিস্তৃত সবুজ সমারোহ। পৌর কর্তৃপক্ষের মতে, ঈদের পর এ পর্যন্ত প্রায় অর্ধলক্ষ পর্যটক জ্যাকব টাওয়ার পরিদর্শন করে। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপির উদ্যোগ ও পরিকল্পনায় ভোলার চরফ্যাশন শহরে নির্মিত হয়েছে জ্যাকব টাওয়ার।

চরফ্যাশন পৌরসভা টাওয়ারসংলগ্ন এলাকাজুড়ে ৫০ হাজার লোকের ধারণক্ষমতাসম্পন্ন দেশের বৃহত্তম ফ্যাশন স্কয়ার এবং শেখ রাসেল শিশু ও বিনোদন পার্ক গড়ে ওঠায় বিনোদনপ্রিয় মানুষ সময় পেলেই ছুটছে সেখানে। সেখান থেকে একটু হাঁটলে সামনে আন্তর্জাতিক মানের বাস টার্মিনাল। পর্যটকের সুবিধার্থে উপমন্ত্রী জ্যাকব বিচ্ছিন্ন এ দ্বীপে ১৮ কক্ষের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক রেস্টহাউস নির্মাণ করেছেন। সেখানে রয়েছে সুইমিংপুল, টেনিস কোর্ট ও হেলিপ্যাড। বিদেশি পর্যটকদের জন্য মিনি এয়ারপোর্ট নির্মাণের পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছেন উপমন্ত্রী জ্যাকব।

উপজেলা সদরে ২২৫ ফুট উচ্চতার জ্যাকব টাওয়ারটি ৭৫ ফুট মাটির নিচে থেকে ঢালাই-পাইলিং ফাউন্ডেশনের ওপর সম্পূর্ণ ইস্পাত দিয়ে আট মাত্রার ভূমিকম্প সহনশীল করে নির্মিত। চারদিকে

অ্যালুমিনিয়ামের ওপর পাঁচ মিলিমিটার ব্যাসের স্বচ্ছ কাচ। চূড়ায় ওঠার জন্য ১৩ জন ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ক্যাপসুল লিফট রয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আনা হয়েছে স্বচ্ছ লিফট ও টাওয়ার গ্লাস। গত বছরের ১৭ মে পরিদর্শনে গিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ টাওয়ারের নামকরণ করেন জ্যাকব টাওয়ার। এরপর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গত ২৪ জানুয়ারি জ্যাকব টাওয়ার আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। রাষ্ট্রপতি সপরিবারে টাওয়ার পরিদর্শন শেষে পর্যটন দ্বীপ কুকরিমুকরিতে নির্মিত আন্তর্জাতিক মানের রেস্টহাউসে রাত যাপন করেন।

এ ছাড়া নৈসর্গিক কুকরিমুকরি, ঢালচরের সমুদ্রসৈকত, তারুয়া দ্বীপ, মনপুরার কালকিনির সৈকতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটক আসছে ঘুরতে। তারা উপভোগ করছে ম্যানগ্রোভ বাগান। মাঝেমধ্যে দেখা মেলে হরিণেরও, যেন এ দ্বিতীয় সুন্দরবন!

শেষের পাতা- এর আরো খবর