kalerkantho


বিখ্যাত সব নাগরদোলা

২৭ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



বিখ্যাত সব নাগরদোলা

হাই রোলার

নাগরদোলা বা ফেরিস হুইলের মতো রোমাঞ্চকর রাইড কমই আছে। কিছু কিছু নাগরদোলা আবার তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতো। এর কোনোটি আকারে বিশাল, কোনোটি দারুণ জাকজমকপূর্ণ। কোনোটি থেকে আবার উপভোগ করা যায় দুর্দান্ত সব দৃশ্য। এমনই কয়েকটি নাগরদোলার সঙ্গে তোমাদের পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন অমর্ত্য গালিব চৌধুরী

 

হাই রোলার

লাস ভেগাস, যুক্তরাষ্ট্র

এটি বিশ্বের বৃহত্তম ফেরিস হুইল। চালু হয় ২০১৪ সালে। উচ্চতা ৫৫০ ফুট।  ৩০ মিনিটের জন্য এতে চড়ার সময় রাইডটি উপভোগের পাশাপাশি দর্শকের জন্য মজাদার চকোলেটের ব্যবস্থা রেখেছে কর্তৃপক্ষ। একেকটি গোলাকার কেবিনে ৪০ জন দর্শকের স্থান সংকুলান হয় এতে। এ রকম ২৮টি কেবিন আছে সব মিলিয়ে, অসংখ্য উজ্জ্বল বাতি দিয়ে সাজানো নাগরদোলাটি এরই মধ্যে লাস ভেগাসের অন্যতম সেরা আকর্ষণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

সিঙ্গাপুর ফ্লাইয়ার

সিঙ্গাপুর

২০০৮ সালের মার্চ মাসে চালু করা হয় নাগরদোলাটি। এটি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম নাগরদোলা, উচ্চতা ৫৪১ ফুট। নাগরদোলাটি এত উঁচু যে এর ওপরে উঠলে দর্শক গোটা সিঙ্গাপুরের বিখ্যাত মেরিনা বে, মালয়েশিয়া, এমনকি ইন্দোনেশিয়ার কয়েকটি দ্বীপ পর্যন্ত দেখতে পান। মাত্র ২৮টি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কেবিন থাকলে কী হবে, বছরে ৭৩ লাখ লোককে সিঙ্গাপুর দর্শনের সুযোগ করে দিচ্ছে এই ফেরিস হুইল। তা যা হোক, একেকটি রাইডের সময় ৩২ মিনিট।

 

নেভি পিয়ের

শিকাগো, যুক্তরাষ্ট্র

প্রথম আধুনিক ফেরিস হুইল বানিয়েছিলেন জর্জ ওয়াশিংটন ফেরিস জুনিয়র। নেভি পিয়ের ফেরিস হুইল সেই প্রাচীন নাগরদোলার মডেলেই বানানো হয়েছে। এটি মিশিগান হ্রদের চমত্কার দৃশ্যপট দেখার সুযোগ করে দেয়। এর উচ্চতা ১৫০ ফুট।    

 

লন্ডন আই

লন্ডন, ইংল্যান্ড

৪৪৩ ফুট উচ্চতা নিয়ে লন্ডন আই ইউরোপের বৃহত্তম ফেরিস হুইল। এটির নির্মাণকাজ শেষ হয় ২০০০ সালে। ৩২টি কেবিনে ৮০০ দর্শক বহন করতে সক্ষম এটি। ১৫ বছর আগে প্রতিষ্ঠা করার পর থেকেই লন্ডন আই ইংল্যান্ডের রাজধানীর অন্যতম দ্রষ্টব্য হয়ে উঠেছে। ফিবছর নাকি গির্জার পিরামিড বা তাজমহলের থেকেও বেশি দর্শক সমাগম হয় লন্ডন আই দেখতে। বাকিংহাম প্যালেস, পার্লামেন্ট হাউস, বিগ বেন সবই দেখার সৌভাগ্য হবে এই লন্ডন আইয়ে চড়লে।

লন্ডন আইয়ের কিছু মজার বৈশিষ্ট্য আছে। এতে ৩২ খানা কেবিন থাকলেও নাম্বারিং করার সময় ইচ্ছা করে ১৩ নম্বর কেবিন রাখা হয়নি। ১৩ সংখ্যাটি যে অপয়া। এর ৩২টি কেবিন লন্ডনের ৩২টি অঞ্চলের প্রতিনিধিত্ব করে।

 

নায়াগ্রা স্কাই হুইল

কানাডা

২০০৬ সালে দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া নায়াগ্রা স্কাই হুইলের উচ্চতা অত আহামরি গোছের কিছু নয়। মাত্র ১৭৫ ফুট। কিন্তু এটিতে চড়লে নায়াগ্রা জলপ্রপাত চাক্ষুস করা যায়, এর থেকে বড় পাওয়া আর কী হতে পারে। কানাডার কিফটন হিলে অবস্থিত এই নাগরদোলাটি সারা বছরই চালু থাকে।

 

প্যাসিফিক পার্ক হুইল

সান্তা মনিকা, যুক্তরাষ্ট্র

প্যাসিফিক পার্ক হুইলের বৈশিষ্ট্য হলো, এটি বিশ্বের প্রথম সৌরশক্তিচালিত নাগরদোলা। নয়নাভিরাম প্রশান্ত মহাসাগর দেখার সুযোগ পাওয়া যায় এই নাগরদোলায় চড়লে। অসংখ্য উজ্জ্বল বাতি দিয়ে গোটা নাগরদোলাটি সজ্জিত। কাজেই রাতে যে এক নয়নাভিরাম পরিবেশের জন্ম দেয় এর আশপাশে তা না বললেও চলে। এর উচ্চতা ১৩০ ফুট।

 



মন্তব্য