kalerkantho


অ্যাপল দুনিয়ায় এলো আরো ৪

গুঞ্জনই সত্যি হলো! বুধবার বাংলাদেশ সময় মাঝরাতে বহু কাঙ্ক্ষিত অ্যাপল ইভেন্টে ঘোষণা এলো তিন-তিনটি নতুন আইফোনের। সঙ্গে স্মার্টঘড়ি অ্যাপল ওয়াচেরও। বিস্তারিত জানাচ্ছেন তুসিন আহম্মেদ

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



অ্যাপল দুনিয়ায় এলো আরো ৪

ইসিজি সুবিধাসহ সিরিজ৪ অ্যাপল ঘড়ি সম্পর্কে জানাচ্ছেন অ্যাপলপ্রধান টিম কুক

৩ আইফোন

ক্যালিফোর্নিয়ার স্টিভ জবস থিয়েটারে আইফোন ১০কে নতুন মাত্রায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলতে বলতে অ্যাপলপ্রধান টিম কুক এখন পর্যন্ত আইফোনের সবচেয়ে উন্নত সংস্করণ ‘১০ এস’ উপস্থাপন করলেন। এরপর ঘোষণা দিলেন আরো দুটি নতুন মডেলের—‘১০এস ম্যাক্স’ ও ‘১০আর’।

বিস্তারিত বর্ণনায় জানালেন, আইফোন ১০এস ও ১০এস ম্যাক্সের ডিসপ্লের সাইজ যথাক্রমে ৫ দশমিক ৮ ও ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি। ৪৫৮ পিপিআই ও এলইডি এইচডিআর ডিসপ্লে রয়েছে। হ্যান্ডসেট দুটির এ১২ বায়োনিক চিপসেটের ৭ ন্যানোমিটারের প্রসেসর আগের এ১১ চিপ থেকে ৩০ শতাংশ উন্নত। এই প্রসেসর অ্যাপলেরই তৈরি। ডুয়াল ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার একটি ওয়াইড লেন্স আরেকটি টেলিফটো লেন্স। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে আছে ৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে আগের আইফোন ১০-এর চেয়ে ভালো মানের পোর্ট্রেইট মোডে ছবি তোলা যাবে।

রয়েছে পানিরোধক সুবিধা। তাই ২ মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট ব্যবহার করা যাবে এই ফোন। আগের আইফোনগুলো থেকে দ্রুততম সময়ে কাজ করবে নতুন ফেইস আইডি। ফোন তাই আনলকও হবে দ্রুত।

স্টোরিও স্পিকার সুবিধা থাকা গেইম খেলা, গান শোনা ও ভিডিও দেখা উপভোগ্য হবে।

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে আইওএস ১২।

আইফোনের এ দুই মডেলই সোনালি, রুপালি ও ধূসর রঙে পাওয়া যাবে।

দুটি সেটেরই স্থায়ী ধারণক্ষমতা ৬৪, ১২৮ ও ৫১২ গিগাবাইট। আইফোন ১০এসের দাম ৯৯৯ এবং ১০এস ম্যাক্সের দাম ১০৯৯ মার্কিন ডলার করে। গতকাল থেকে প্রিবুকিং শুরু হয়েছে সেট দুটির। গ্রাহকরা হাতে পাবেন ২১ সেপ্টেম্বর থেকে।

আরেক স্মার্টফোন আইফোন ১০-এর ঘোষণা দিলেও কুক আগের ভাগেই জানিয়ে রাখলেন, ফোনটি গ্রাহকরা হাতে পাবে পরের মাসে। তবে ফোনটির গঠন ও সুবিধা জানিয়ে দিয়েছেন এ রাতেই। জানালেন, এতে রয়েছে ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি লিকুয়িড রেটিনা এলসিডি ডিসপ্লে। ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাংগল লেন্সের ক্যামেরা থাকছে পেছনে। এতে পোর্ট্রেট মোডে ছবি তোলা যাবে। আইফোন ১০এস-এর মতো ফেইস আইডি সুবিধাও থাকছে প্রসেসর এ১২ বায়োনিক চিপের। অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১২।

ধারণক্ষমতা ৬৪, ১২৮ ও ২৫৬ গিগাবাইটের। পাওয়া যাবে সাদা, লাল, নীল, হলুদ ও কালো রঙে।

দাম শুরু হবে ৭৪৯ মার্কিন ডলার থেকে। প্রি-অর্ডার ১৯ অক্টোবর শুরু হলেও ক্রেতারা হাতে পাওয়া শুরু করবে ২৬ অক্টোবর থেকে।

 

অ্যাপল ঘড়িতেই হবে ইসিজি

এবার এলো সিরিজ৪-এর নতুন স্মার্টঘড়ি। টিম কুক জানালেন, এই ঘড়ি ৩০ সেকেন্ড ব্যবহারকারীর ইসিজির তথ্য দিতে পারবে। স্মার্টওয়াচে ইসিজির সুবিধা এটাই প্রথম। অ্যাপল ওয়াচ৩-এর তুলনায় এটি বেশ পাতলা। এতে ‘ফায়ার’, ‘ওয়াটার’সহ বেশ কিছু নতুন ওয়াচফেইস যুক্ত করা হয়েছে।

ঘড়িটি স্পিকার সিরিজ-৩-এর চেয়ে ৫০ শতাংশ বেশি শব্দ দেবে। ফলে কথা বলা ও গান শোনায় সুবিধা হবে।

ডিভাইসটির ব্যাক প্যানেল কালো সিরামিক ও ক্রিস্টালে তৈরি। দেওয়া হয়েছে ডুয়াল কোর ৬৪ বিট এস৪ চিপসেটের প্রসেসর। সিরিজ-৩-এর তুলনায় প্রসেসরটি প্রায় দ্বিগুণ শক্তিশালী।

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে দেওয়া হয়েছে ‘ওয়াচ ওএস ৫’। পানিরোধক ও জিপিএস সুবিধার ঘড়িটি একবার পুরো চার্জে টানা এক দিন চলবে। পাওয়া যাবে রুপালি, সোনালি ও ধূসর রঙে।

দাম ৩৯৯ মার্কিন ডলার। প্রি-অর্ডার করা যাবে ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে। ক্রেতারা হাতে পরতে পারবেন ২১ তারিখ থেকে।



মন্তব্য