kalerkantho


‘যান্ত্রিক’ সেবায় স্বাগত

মোবাইল অ্যাপ ‘যান্ত্রিক’ ব্যবহার করে ঢাকা শহরের পাশাপাশি হাইওয়েগুলোতেও গাড়ি ও মোটরসাইকেল মেরামতের সুবিধা পাওয়া যাবে। এরই মধ্যে কয়েক হাজার টেকনিশিয়ান যুক্ত হয়েছেন যান্ত্রিকের সঙ্গে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ইমরান হোসেন মিলন

২৪ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



‘যান্ত্রিক’ সেবায় স্বাগত

সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান ‘স্মার্টঅ্যাসপেক্টস’-এর সদস্যরা। ছবি : সংগৃহীত

ঢাকায় রাইড শেয়ারিং অ্যাপের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। বাড়ছে অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ও মোটরসাইকেলের সংখ্যাও। বলা যায়, জনপরিবহনে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে। তবে রাইড শেয়ারিং বা ব্যক্তিগত গাড়ি যেটাই হোক না কেন, চলতি রাস্তায় গাড়ি বিকল হলে তো বিপদই। হাইওয়েতেও আছে এ সমস্যা। এই ভোগান্তি থেকে মুক্তি দিতেই তৈরি হলো মোবাইল অ্যাপভিত্তিক সেবা ‘যান্ত্রিক’। অ্যাপটির সাহায্য নিয়ে খোঁজ করা যাবে আশপাশের টেকনিশিয়ানদের।

 

যান্ত্রিক কী

মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে টেকনিশিয়ান দিয়ে রাস্তায় নষ্ট হয়ে যাওয়া গাড়ি বা মোটরসাইকেল সারিয়ে দেওয়ার উদ্যোগই হচ্ছে ‘যান্ত্রিক’। এটাকে অ্যাপভিত্তিক গাড়ি বা মোটরবাইক সারানোর প্ল্যাটফর্মও বলা যায়। ধরুন, আপনি ঢাকা থেকে সিলেট যাচ্ছেন, হঠাৎ হবিগঞ্জ গিয়ে আপনার গাড়িটি নষ্ট হয়ে গেল। এমন অবস্থায় যান্ত্রিক অ্যাপের মাধ্যমে ঠিক যেখানে গাড়িটি নষ্ট হয়েছে সেখানেই টেকনিশিয়ান পৌঁছে যাবে।

অ্যাপটির মাধ্যমে গাড়ি বা মোটরবাইক সারাইয়ের পাশাপাশি কার ওয়াশ, কার পলিশ, গাড়ির সার্ভিসিংসহ আনুষঙ্গিক ছোটখাটো কাজ ও সমস্যার সমাধান করা, বাড়িঘরের ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি মেরামত করা, প্লাম্বিংসহ হোম অ্যাপ্লায়েন্স সার্ভিসিং ও মেরামত কাজও করানো যাবে যান্ত্রিকের সাহায্যে। সেবাগুলো আপাতত ঢাকার ভেতরে সীমাবদ্ধ।

‘যান্ত্রিক’ তৈরি করেছে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান ‘স্মার্টঅ্যাসপেক্টস’। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী আল-ফারুক শুভ জানালেন, এরই মধ্যে যান্ত্রিক অ্যাপের মাধ্যমে এমন সেবা দেওয়া শুরু হয়েছে।

 

যেভাবে কাজ করে

বিনা মূল্যের অ্যাপটি প্রথমে প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইট http://www.zantrik.com/ অথবা গুগল প্লেস্টোরের https://play.google.com/store/apps/details?id=com.sa.zantrik থেকে ডাউনলোড করে মোবাইলে ইনস্টল করতে হবে। এরপর চালু করে কাঙ্ক্ষিত কাজ বা সমস্যা নির্বাচন করে সাবমিট করলে একটি সার্ভিস অর্ডার তৈরি হবে। পরে সেই অর্ডারের খবর ‘যান্ত্রিক’-এর নিয়ন্ত্রণকেন্দ্রে নোটিফিকেশন আকারে চলে যাবে।

এরপর গ্রাহকসেবা বিভাগ থেকে একটি ফোন কল যাবে গ্রাহকের মোবাইলে। সমস্যার ধরন নিশ্চিত হয়ে গ্রাহকের কাছাকাছি অবস্থানরত কোনো টেকনিশিয়ানকে সমাধানের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

‘রোড সাইড হেল্প সার্ভিস’-র ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণকেন্দ্র থেকে গ্রাহক এবং নিকটবর্তী টেকনিশিয়ানদের অবস্থান গুগল ম্যাপে দেখা যাবে। গ্রাহক অ্যাপেই টেকনিশিয়ানের প্রফাইল ও রিভিউ দেখতে পাবেন।

সর্বশেষ ধাপে গ্রাহক অ্যাপের মাধ্যমে যে পদ্ধতিতে বিল পরিশোধ করতে চান, তা নির্বাচন করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে ক্রেডিট কার্ড, বিকাশ কিংবা নগদে বিল পরিশোধ করা যাবে।

 

হতে হবে সদস্য

যান্ত্রিক অ্যাপের মাধ্যমে শুধু ‘রোড সাইড হেল্প’ পেতে হলে মেম্বার বা সদস্য হতে হবে। অন্যান্য সেবার ক্ষেত্রে মেম্বার হওয়ার প্রয়োজন নেই।

অ্যাপ কিংবা ওয়েবসাইট থেকেই মেম্বারশিপের জন্য আবেদন করা যাবে। ক্রেডিট কার্ডে অনলাইনে বিল পরিশোধের পর মেম্বারশিপ স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু হয়ে যাবে। মেম্বারশিপ খরচ গাড়ির জন্য বছরে দুই হাজার ৯৯৫ টাকা এবং মোটরসাইকেলের জন্য বছরে এক হাজার ৪৯৫ টাকা।

আল-ফারুক শুভ জানান, সার্ভিসটি অন্যান্য সার্ভিসের মতো নয়। একজন গ্রাহকের বাসায় টেকনিশিয়ান পাঠাতে হয় এবং টেকনিশিয়ান ও গ্রাহকের সুবিধা অনুযায়ী সময়ে সেবাটি দেওয়া হয়। এটি একটি জরুরি সেবা। কারণ একজন গ্রাহক রাস্তায় ঠিক যে অবস্থানে গাড়ি নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন, সেখানেই টেকনিশিয়ানকে পাঠাতে হয়। সদস্যদের বাইরে এই সেবা দিতে গেলে মান ধরে রাখা সম্ভব হয় না।

তিনি বলেন, মানসম্মতভাবে সেবাটি দেওয়ার জন্য সারা দেশে আমাদের বিশাল নেটওয়ার্ক করতে হয়েছে। এ কাজেই আমাদের বড় অঙ্কের টাকা বিনিয়োগ করতে হয়েছে।

রোড সাইড হেল্প পেতে সদস্য হলে সারা বছর গাড়ির ফ্রি সার্ভিসিং। এ ছাড়া অ্যাপের মাধ্যমে কাজ করালে ১০ শতাংশ ছাড় পাবেন।

 

সেবা এখন সারা দেশে

এরই মধ্যে যান্ত্রিক গাড়ি সারাইয়ের সেবা সারা দেশে ছড়িয়ে দিয়েছে। প্রায় প্রতিটি হাইওয়েতে অ্যাপটির মাধ্যমে সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এরই মধ্যে সাত শতাধিক মোটর ওয়ার্কশপ তাদের নেটওয়ার্কে যুক্ত হয়েছে। প্রতিদিনই এ সংখ্যা বাড়ছে। এসব ওয়ার্কশপে কয়েক হাজার টেকনিশিয়ান রয়েছেন, যাঁরা তাৎক্ষণিক এই সেবা দিতে কাজ করে যাচ্ছেন।

তবে যান্ত্রিকের ইলেকট্রিক, প্লাম্বিংসহ অন্যান্য সেবাগুলো এখনো ঢাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ। শিগগিরই সেবাগুলো চট্টগ্রাম ও সিলেটে পাওয়া যাবে।



মন্তব্য