kalerkantho

সোমবার । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৮ ফাল্গুন ১৪২৩। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিপদের বন্ধু ‘সেভ মি’

বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান ন্যানোসফটের তৈরি ‘সেভ মি’ অ্যাপের সাহায্যে ইমার্জেন্সি কল, টেক্সট, কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তির অবস্থান শনাক্তসহ নানা সুবিধা পাওয়া যায়। নির্মাতা ও অ্যাপটি নিয়ে বিস্তারিত জানাচ্ছেন নাদিম মজিদ

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বিপদের বন্ধু ‘সেভ মি’

ঘটনা-১

অফিস থেকে ফিরতে রাত বেশিই হয়েছে সেদিন। বাসস্ট্যান্ডে নেমে রিকশা না পেয়ে হেঁটেই বাসার পথ ধরলেন রউফুল আলম। হঠাৎ পাশে এসে থামল একটি মাইক্রোবাস। কয়েকজন লোক টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে তুলল তাঁকে। শীতের রাতের নির্জন রাস্তায় দুয়েকবার গোঙানির মতো চিৎকার কারো কানে গেল না। সাত দিন পর ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পেলেন তিনি।

 

ঘটনা-২

রাজধানীর নামি স্কুলে ছেলেকে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করিয়েই নিশ্চিন্ত ছিলেন আরিফুল হক। ভালো স্কুলে নিয়মিত ক্লাস করলে আর শিক্ষকের দিকনির্দেশনা পেলে ভালো ফল করবে—এমন অপেক্ষায়ই ছিলেন। ছেলে নিয়মিত স্কুলে যাচ্ছে দেখে খুশিও হয়েছিলেন। স্বপ্ন ভাঙল প্রথম সাময়িক পরীক্ষার আগে। স্কুল থেকে ফোন করে জানানো হলো, ছেলে ঠিকমতো ক্লাসে আসছে না। ক্লাস টিচারের সঙ্গে দেখা করে ছেলের অ্যাডমিট কার্ড নিয়ে যান। ক্লাসের যাওয়ার নাম করে ছেলে এত দিন ঠিক কোথায় গিয়েছিল, তা জানার সঠিক উপায় নেই আরিফুল হকের।

 

ঘটনা-৩

স্ত্রী গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছেন। অফিসের ব্যস্ততার কারণে সঙ্গে যাওয়া সম্ভব হয়নি আবুল হাশেমের। ঠিকমতো যাচ্ছে কি না তা জানার জন্য ঘণ্টায় ঘণ্টায় ফোন করে খবর নিতে হচ্ছে তাঁর। টেনশনে দুবার ভুলও করে ফেললেন কাজে। যথারীতি বসের বকা।

প্রযুক্তি ব্যবহার করে এমন সব সমস্যার সমাধানে প্রায় দুই বছর ধরে কাজ করছে দেশি প্রতিষ্ঠান ন্যানোসফট। সম্প্রতি ‘সেভ মি’ নামে একটি অ্যানড্রয়েড মোবাইল অ্যাপ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ন্যানোসফটের প্রধান নির্বাহী কামরুল হাসান বলেন, ‘নিরাপত্তা বা দুর্ঘটনা সমস্যা আমাদের দেশে অনেক বেশি। আবার মা-বাবা জানতে চান, তাঁদের ছেলেমেয়ে ঠিকমতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাচ্ছে কি না, প্রিয়জন তাঁর গন্তব্যস্থলে পৌঁছাল কি না। এমন জরুরি বা প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো সেভ মি অ্যাপ ব্যবহার করে জানা যাবে।

 

সেভ মি অ্যাপের সুবিধা

ইমার্জেন্সি কল

অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে ‘সেভ মি’ ব্যবহারকারী আগে থেকে নির্ধারণ করা ব্যক্তিদের ফোন ঝাঁকিয়ে কল দিতে পারবে। যেসব ব্যক্তির কাছে কল যাবে, তাদের নম্বর আগে থেকেই এসএমএসের মাধ্যমে ভেরিফাই করা থাকে। ঝাঁকুনি কেমন হবে তা ভেরি হাই, হাই, লো, ভেরি লো—এ চার ক্যাটাগরির নির্ধারণ করা যায়।

ইমার্জেন্সি টেক্সট

বিপদে পড়লে ‘সেভ মি’ ব্যবহারকারী আগে থেকে নির্ধারণ করা সর্বোচ্চ তিন ব্যক্তিকে মেসেজ পাঠাতে পারবেন। যাদের কাছে মেসেজ যাবে, তারা সে ব্যক্তির অবস্থান গুগল ম্যাপে দেখতে পাবেন।

ফোনবুক ব্যাকআপ

ফোনবুকের মোবাইল নম্বর সেভ মি অ্যাপেও সংরক্ষণ করা যাবে।

ম্যাপ নির্দেশনা

অ্যাপটিতে বর্তমান অবস্থান এবং লক্ষ্য ঠিক করে দিলে যাত্রাপথ দেখা যায়।

নিজের অবস্থান জানা

ব্যবহারকারী নিজের অবস্থানের ইতিহাস নির্দিষ্ট সময় পর পর সংরক্ষণ করে রাখতে পারে।

এফএনএফ ট্র্যাকিং

ব্যবহাকারীরা তার প্রিয়জনদের অবস্থান গুগল ম্যাপের সাহায্যে জানতে পারবে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই দুই পক্ষ থেকে এসএমএস ভেরিফিকেশন করে রাখতে হবে। একজন ব্যবহারকারী একসঙ্গে সর্বোচ্চ ১০ জন ব্যবহারকারীর নম্বর ট্র্যাকিং করতে পারবে।

লোকেশন নোটিফাইয়ার

কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তি নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানো মাত্র ব্যবহারকারীর নম্বরে মেসেজ আসবে।

নিউজ ফিড

নিউজ ফিডে হালনাগাদ খবর পাওয়া যায়। এ ক্ষেত্রে বাংলানিউজ, বিডিনিউজ, বিবিসি এবং ইএসপিএন থেকে তথ্য নেওয়া হচ্ছে।

গুগল প্লেস্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ৩০ দিন বিনা মূল্যে এ অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে।

ডাউনলোড লিংক : https://play.google.com/store/apps/details?id=com.nanosoft.bd.saveme


মন্তব্য