kalerkantho


বিনা পয়সায় সাইট ব্রাউজিং

গত সপ্তাহ থেকে মোবাইলে বিনা খরচে ব্রাউজ করা যাচ্ছে ২৫ হাজার সরকারি সাইট। আরো কিছু জনপ্রিয় সাইট ফ্রি ব্রাউজ করা যেত আগে থেকেই। বিস্তারিত জানাচ্ছেন হাবিব তারেক

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বিনা পয়সায় সাইট ব্রাউজিং

ছবি : কাকলী প্রধান

২৫ হাজার সাইট ফ্রি

২০১৪ সালে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সরকারি পোর্টাল হিসেবে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় তথ্য বাতায়ন (www.bangladesh.gov.bd). ২০১৫ সালে পোর্টালটি বিশ্বের আইসিটি ক্ষেত্রের সম্মানজনক ‘ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটি (ডাব্লিউএসআইএস)’ অ্যাওয়ার্ড পায়।

জাতীয় তথ্য বাতায়নে ২৫ হাজার ওয়েবসাইট রয়েছে।

এর মধ্যে সরকারের ৬১টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ, ৩৫১টি অধিদপ্তর, ৮টি বিভাগ, ৬৪টি জেলা, ৪৮৯টি উপজেলা, ৪৫৫০টি ইউনিয়নসহ আছে অনেক সরকারি দপ্তর।

এ ছাড়া নিয়োগ তথ্য, শিক্ষাবিষয়ক তথ্য, সরকারি ফরম ডাউনলোড, পাসপোর্ট-ভিসা তথ্য, ইউটিলিটি বিল প্রদান, কর প্রদান, আইনবিধি, স্বাস্থ্য তথ্য, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের মতো ১৫০টিরও বেশি ই-সেবা রয়েছে। ২০ লাখের বেশি কনটেন্ট, ৪৫ হাজারের বেশি ঐতিহাসিক নিদর্শন ও পুরাকীর্তির  ছবি এবং সাত লাখ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর তথ্য নিয়ে রয়েছে ই-ডিরেক্টরি।

সাইটগুলো গত সপ্তাহ থেকে বিনা ডাটা খরচেই ব্রাউজ করা যাচ্ছে। তবে সুবিধাটি পাচ্ছেন কেবল বাংলালিংক গ্রাহকরা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় পরিচালিত অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এবং বাংলালিংকের মধ্যে চুক্তি হওয়ার পর এটা সম্ভব হয়েছে।

আছে অন্যান্য সাইটও

২০১৫ সালের মে মাসে ফ্রি সাইট ব্রাউজের সেবা চালু হয়েছিল ‘ফ্রি বেসিকস’ প্রকল্পের মাধ্যমে। এ প্রকল্পের অধীনে বাংলাদেশে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ব্যবসা-বাণিজ্য, খেলাধুলা, আবহাওয়া, সংবাদ, সরকারি সেবা, বার্তা বিনিময়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ দরকারি প্রায় ৪০টি সাইট বা সেবা বিনা খরচে ব্যবহার করা যাচ্ছে।

অ্যাপ ব্যবহার করে মোবাইলে কোনো ডাটা বা টাকা খরচ ছাড়াই এসব ওয়েবসাইট বা সেবা ব্যবহার করা যাবে।

বাংলাদেশে ফেইসবুকের এই প্রকল্পটিতে প্রথম মোবাইল অপারেটর হিসেবে যুক্ত হয়েছে রবি। পরে গ্রামীণফোনও এর আওতায় আসে।

বিনা খরচের যেসব সাইট কিংবা অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে, সেগুলোর মধ্যে আছে—সামাজিক যোগাযোগের সাইট, ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় সাইট, সংবাদমাধ্যম, তাত্ক্ষণিক বার্তা বিনিময় সেবা, সার্চ সাইট, সোশ্যাল ব্লাড, তথ্যভাণ্ডার, স্বাস্থ্যবিষয়ক সাইট, শিক্ষাবিষয়ক সাইট, চাকরি খোঁজার সাইট, বেচাকেনা, আবহাওয়া, পোশাক, জিজ্ঞাসা, শিশু পরিচর্যা, লাইফস্টাইল, অর্থব্যবস্থাপনা, সচেতনতামূলক ও কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের সাইট। এতে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সাইট।

কোনো সাইট ফ্রি ব্রাউজিং তালিকায় যুক্ত করতে চাইলে যেতে হবে এই লিংকে https://info.internet.org/en/story/free-basics-from-internet-org/

সেবা যেভাবে

free basics অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের মাধ্যমে ফ্রি ব্রাউজ কিংবা সেবা নেওয়া যাবে। এর মাধ্যমে শুধু ফ্রি সাইট ব্রাউজ করা যাবে, তবে কোনো ছবি-ভিডিও দেখতে বা ডাউনলোড করতে ডাটা কাটবে অর্থাৎ  টাকা খরচ হবে। মোবাইলে ইন্টারনেট কানেকশন চালু করে গুগল প্লেস্টোর থেকে ভত্বব নধংরপং অ্যাপ ডাউনলোড করে চালু করলেই পছন্দের সাইট দেখা যাবে।

free basics অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে এই লিংক থেকে—

https://play.google.com/store/apps/details?id=org.internet

বিস্তারিত জানতে দেখুন— https://0.freebasics.com/desktop

অপেরা মিনিতে ফ্রি

স্মার্টফোনে জনপ্রিয় ইন্টারনেট ব্রাউজার অপেরা মিনিতে ফ্রি ‘ইন্টারনেট কুপন’ দিচ্ছে রবি। মোবাইল অপারেটরটির সাইটে বলা হয়, সেটে ব্রাউজার ইনস্টল করার পর এটি চালু করে ‘ইন্টারনেট কুপন’ আইকনে ক্লিক করলে অ্যাক্টিভিশন পেইজ খুলবে। সেখান থেকে ব্যবহারকারীরা ৫ মেগাবাইট করে ডাটা চালু করতে পারবে। অ্যাপটি গুগল প্লে ছাড়াও এই সাইট থেকে ডাউনলোড করা যাবে—m.opera.com

উইকিপিডিয়া জিরো

কিছু কিছু সাইট জিরো ক্যাম্পেইনের সুবিধার মাধ্যমে ফ্রি ডাটায় ব্যবহার করা যায়। উইকিপিডিয়া সেগুলোর একটি। কয়েকটি অপারেটর থেকে উইকিপিডিয়া জিরো সংস্করণ (zero.wikipedia.com) ব্রাউজ করা যায়।

এ জন্য অ্যাপের দরকার পড়বে না। ব্রাউজারে গিয়ে সরাসরি ঠিকানাটি লিখে এন্টার দিলেই এই ফ্রি সংস্করণের সাইটটি দেখা যাবে। এ সংস্করণে কোনো ছবি দেখা যাবে না।

বেচাকেনাও ফ্রিতে

অনলাইনে বেচাকেনা করতেও কোনো ডাটা খরচ হবে না। ক্ল্যাসিফায়েড বেচাকেনার সাইট এখানেই ডটকমে (ekhanei.com) ফ্রি ব্রাউজ করা যাবে গ্রামীণফোন থেকে। আর বিক্রয় ডট (নরশত্ড়ু.পড়স) বিনা খরচায় দেখা যাবে বাংলালিংক থেকে।

অ্যান্ড্রয়েড হ্যান্ডসেটের ডিফল্ট মোবাইল ব্রাউজার ও অপেরা মিনি ব্রাউজ করলে সাইটগুলোর জন্য বাড়তি কোনো ডাটা খরচ হবে না।

সমস্যা বলতে যা

ব্যবহারকারীকে যেকোনো একটি ইন্টারনেট প্যাকেজ ব্যবহার করতে হবে। সে প্যাকেজের মেয়াদ যত দিন থাকবে, তত দিন ফ্রি সাইটগুলো ব্যবহার করা যাবে। পরে আবারও প্যাকেজ কিনে মেয়াদ বাড়ানো যাবে। যদি ফ্রি সাইটের বাইরে কোনো সাইট ব্যবহারের প্রয়োজন না হয়, তাহলে ‘পে পার ইউজ’ প্যাকেজটি নিতে পারেন। এ প্যাকেজে খরচ তুলনামূলক অনেক বেশি কিন্তু প্যাকেজটি চালু করে ফ্রি সাইট ব্রাউজ করতে পারবেন। ফ্রি সাইটের বাইরে কোনো সাইট ব্রাউজ না করলে কোনো খরচ হবে না।

ফ্রি সাইট ব্রাউজের সময় ভুলে কিংবা ইচ্ছা করে অন্য সাইট ভিজিট করলে মোবাইলের ব্যালেন্স থেকে ‘পে পার ইউজ’ হিসেবে টাকা কেটে রাখবে।

ব্রাউজারের অ্যাড্রেস বারে ওয়েব ঠিকানা লিখে (ফেইসবুক বাদে) এন্টার দিলে সরাসরি কোনো সাইট ব্রাউজ করা যাবে না। অর্থাৎ যদি অ্যাড্রেস বারে সাইটের মূল ঠিকানা লিখে এন্টার দেন, তাহলে খুলবে না। বরং আপনাকে Internet.org সাইটে গিয়ে ওই সাইটের লিংকে ক্লিক করতে হবে। অ্যাড্রেসটি সাধারণত তখন এমন হয়@ www-website-com.0.internet.org। অর্থাৎ যে সাইটই দেখুন, সবই internet.org প্রক্সির অধীনে দেখতে হচ্ছে। কারিগরি দিক থেকে যাতে আপনার ব্রাউজিং তদারকি করা যায়, সে কারণেই এ ব্যবস্থা।


মন্তব্য