kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গেইম

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট ক্যাপ্টেন

সামীউর রহমান   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট ক্যাপ্টেন

ক্রিকেট শুধু খেলা নয়, বিনোদনও বটে। বাংলাদেশের খেলা থাকলে মাঠভর্তি দর্শকের উপচে পড়া ভিড় বা টিকিটের লম্বা সারি, আবার যেন সেই পুরনো সত্যটাই মনে করিয়ে দেয়।

এত ভিড়ে টিকিট পাননি, বন্ধুর সঙ্গে প্রিয় দল নিয়ে তর্কে পারছেন না। তাঁকে নিয়ে আসুন কম্পিউটারের সামনে, আর খেলতে বসুন ‘ক্রিকেট’। ব্যাট, বল, মাঠ, আম্পায়ার—সবই  আছে কম্পিউটারের ভেতর। শুধু মাউস আর কি-বোর্ড নিয়ে নেমে পড়লেই হলো।

‘এটা কোনো শট হলো, লেগ সাইডে ঘোরালেই তো এক রান হয়! আরে, এটা কোনো বল হলো, এখন দিতে হবে ইয়র্কার’—গ্যালারিতে কিংবা টেলিভিশনের পর্দায় যখনই আমরা খেলা দেখতে বসি, মনে হয় কাজটা কত্ত সহজ। কিন্তু মাঠের ভেতরে যে কেউ ইচ্ছে করে আউট হন বা খারাপ বোলিং করেন, তা কিন্তু নয়। দূর থেকে দেখে অনেক সহজ মনে হলেও ১৫০ মাইল বেগের বলের সামনে দাঁড়ানো কি চাট্টিখানি কথা!

‘ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট ক্যাপ্টেন’ গেইমে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেট দল, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দল ও যুব দলগুলো নিয়ে খেলা যাবে। পছন্দের দল নিয়ে খেলা যাবে ঘরোয়া ক্রিকেটের পূর্ণাঙ্গ মৌসুম। এ ছাড়া থাকবে দলবদলের ব্যবস্থা, যেখানে গেইমার নিজের দলের খেলোয়াড় বিক্রি ও অন্যান্য দল থেকে খেলোয়াড় কিনতে পারবেন। এ ছাড়া জাতীয় দল নিয়ে খেলা যাবে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ। অংশ নেওয়া যাবে টোয়েন্টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে।

একটু পুরনো হলেও এই গেইমে ‘প্লে নাউ’ মোডে খেলা যাবে প্রদর্শনী ম্যাচ। প্রদর্শনী ম্যাচের ভেন্যু, আবহাওয়া—সবই গেইমার ঠিক করে নিতে পারবেন। এ ছাড়া দ্বিপক্ষীয় সিরিজ, পূর্ণাঙ্গ সফর, ত্রিদেশীয় বা এর চেয়ে বেশি দলের টুর্নামেন্ট, ওয়ার্ল্ড সিরিজ কাপ ও বিশ্বকাপও খেলা যাবে প্রিয় দেশের জাতীয় দলকে নিয়ে। টেস্ট খেলুড়ে ১০টি দেশের সঙ্গে আইসিসির সহযোগী বেশ কিছু দলও আছে এই গেইমে। ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রাচীন দ্বৈরথ অ্যাশেজের মজা পেতে অংশ নেওয়া যাবে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মধ্যকার এই মর্যাদার লড়াইয়ে। এই চ্যালেঞ্জ নিয়ে জিততে পারলে গেইমারের জন্য পুরস্কার হিসেবে থাকছে অ্যাশেজের দারুণ সব ভিডিওচিত্র।

এই গেইমে বিশ্বের পরিচিত প্রায় সব ক্রিকেট ভেন্যুকেই অবিকল উঠিয়ে আনা হয়েছে কম্পিউটারের পর্দায়। মাঠের দর্শকের কোলাহল সবই যেন জীবন্ত। বাংলাদেশের মাঠও আছে—বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম। মাঠের আশপাশে মতিঝিলের আকাশছোঁয়া ভবন, বায়তুল মোকাররম মসজিদ—সবই খুঁজে পাওয়া যাবে গেইমটিতে। আর ধারাভাষ্যে শোনা যাবে মার্ক নিকোলাসের কণ্ঠ।

 

গেইমটি খেলতে যা লাগবে

► অপারেটিং সিস্টেম : কমপক্ষে উইন্ডোজ এক্সপি বা ভিসতা

► প্রসেসর : ১ গিগাহার্টজ

► র‍্যাম : ২৫৬/৫১২ মেগাবাইট র‍্যাম

► ভিডিও কার্ড : কমপক্ষে ৬৪ মেগাবাইটের। তবে অনবোর্ড গ্রাফিকস কার্ডে গেইমটি খেলা যাবে না।

► হার্ডডিস্কে ৩৫ গিগাবাইট ফাঁকা জায়গা

 

খেলতে পারবেন

যেকোনো বয়স


মন্তব্য