kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চালকবিহীন গাড়ির ৪ বৈশিষ্ট্য

আব্দুল্লাহ ইব্রাহীম জাওয়াদ   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



চালকবিহীন গাড়ির ৪ বৈশিষ্ট্য

চালকবিহীন গাড়ি বলতে সবাই গুগল কারের কথাই ভাবে। কিন্তু গুগল ছাড়াও আরো অনেক বড় বড় গাড়ির কম্পানিও এখন এই চালকবিহীন গাড়ি নির্মাণে ব্যস্ত।

সম্প্রতি সিঙ্গাপুরের ব্যস্ত সড়কেও চালকবিহীন কার নেমেছে। শিগগিরই হয়তো অন্যান্য শহরেও এমন গাড়ি দেখা যাবে। তবে এখন পর্যন্ত গবেষক ও কর্তৃপক্ষ গাড়ির নিরাপত্তা, রাস্তার প্রস্তুতি ও আনুষঙ্গিক বিষয় নিয়ে ভাবছে।

 

সামনে ধাক্কা লাগবে না

আধুনিক এই রোবটিক বা চালকবিহীন গাড়িগুলোয় ক্র্যাশ প্রিভেন্টিং ব্রেকিং সিস্টেম থাকবে। ফিচারটি গাড়ির নিরাপত্তা আরো নিশ্চিত করবে। এই সিস্টেমে সামনের দিকে কিছু সেন্সর থাকবে, যেমন রাডার, ক্যামেরা অথবা লেজার, যা সামনের যেকোনো বিপদ আগে থেকে বুঝতে পারবে এবং অটোমেটিক ব্রেক চেপে অ্যাক্সিডেন্ট থেকে গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করবে। তবে এ ধরনের ফিচার একেবারেই নতুন নয়। হোন্ডা কম্পানি সর্বপ্রথম এই ফিচার তাদের গাড়িতে যুক্ত করে। পরে অন্য কম্পানিগুলোও তাদের হাই ও মিড রেঞ্জের গাড়িগুলোতে এটি সংযুক্ত করেছে।

 

ব্যাকআপ ক্যামেরা

সেফটি রেগুলেশন কর্তৃপক্ষের নিয়ম অনুযায়ী ২০১৮ সালের ১ মে থেকে সব গাড়ির সঙ্গে ব্যাকআপ ক্যামেরা থাকতে হবে। যে ব্যাক ক্যামেরাগুলো এখন প্রচলিত আছে, সেগুলোও গাড়িচালকদের পেছনের পুরো ভিউ দেখাতে পারে এবং বিভিন্ন ধরনের বাধা অতিক্রমে সাহায্য করে। তবে নতুন ক্যামেরাগুলো যদি ব্যবহার করা শুরু হয়, তাহলে প্রতিবছর আরো প্রায় ৬৯ জন মানুষকে রোড অ্যাক্সিডেন্ট থেকে বাঁচানো সম্ভব হবে বলে গবেষকরা জানিয়েছেন।

 

পাশের গাড়ির সঙ্গে যোগাযোগ

নতুন রোবটিক গাড়িগুলো চলন্ত অবস্থায়ই তার আশপাশের গাড়িগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে। এতে করে গাড়িগুলো নির্ঝঞ্ঝাটে রাস্তায় চলাচল করতে পারবে। সবচেয়ে বেশি এই ফিচার ব্যবহার হবে ডানে বা বাঁয়ে টার্ন নেওয়ার সময়। যেহেতু গাড়িতে কোনো চালক থাকবে না, ফিচারটি তাই অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বলেই মনে করছেন গবেষকরা। রোড অ্যাক্সিডেন্ট এড়াতে এই ফিচার খুবই কাজে লাগবে। মূলত শক্তিশালী সেন্সরের মাধ্যমেই ফিচারটি কাজ করবে।

 

লেন নির্ধারণ

কিছু চালকের জন্য লেন মেনে গাড়ি চালানো অপছন্দের হলেও রোবটিক গাড়িগুলোয় কিন্তু আপনাকে এ ব্যাপার নিয়ে একদমই ভাবতে হবে না। এই গাড়িগুলোয় এমন ফিচার থাকবে, যা দিয়ে লেন চেঞ্জ করতে যাওয়ার আগেই গাড়ি অটোমেটিক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেবে। কাজেই হঠাৎ লেন চেঞ্জ হয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ার ভয় নেই। বর্তমানে টয়োটা প্রিয়াসসহ আরো কিছু গাড়িতে গাড়ি চালানোর সময় হঠাৎ যদি কোনো চালক লেন পরিবর্তন বা অন্য কোনো সময়ে রেসপন্স না করে, অটোমেটিক্যালি গাড়িটি তখন নিজের কাছে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়। এ ছাড়া ২০১৫ সালের মার্সিডিজ বেঞ্জ বা ভক্সওয়াগনগুলো ক্যামেরা ও সেন্সর ব্যবহার করে নিরাপদে গাড়ি চালাতে পারে।


মন্তব্য