kalerkantho


নতুন ভেন্যুতে ফেরার লড়াই অস্ট্রেলিয়ার

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



নতুন ভেন্যুতে ফেরার লড়াই অস্ট্রেলিয়ার

পার্থের সেই ওয়াকায় টেস্ট হবে না আর। বিশ্বের সবচেয়ে পেস সহায়ক পিচে দেখা যাবে না পেসারদের আগুনে স্পেল। ভেন্যুটা সরে এসেছে ওয়াকা থেকে অপ্টাস স্টেডিয়ামে। পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার এ শহরের উইকেটও কিন্তু পেস আর বাউন্সে অনন্য ফাস্ট বোলারদের জন্য। অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের জন্ম এই শহরে। স্টেডিয়ামের একটা গ্যালারিও তাঁর নামে। নতুন ভেন্যুতে প্রথম টেস্টের আগে আশাবাদী ল্যাঙ্গার। অ্যাডিলেডের ভুলগুলো শুধরে এখানে ঘুরে দাঁড়াতে চান তিনি, ‘এখানকার উইকেট নিয়ে ভীষণ আশাবাদী আমি। পেসাররা পার্থে কী করে, সেটা দেখার অপেক্ষায় এখন। পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া-নিউ সাউথ ওয়েলসের শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচটা দেখেছি। খুব ভালো পেস আর বাউন্স ছিল।’

মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্স, জস হ্যাজেলউডদের এখানে বল করতে হাত নিশপিশ করছে নিশ্চয়ই। ঘরের ছেলে মিচেল মার্শের অবশ্য একাদশে আসার সম্ভাবনা কম। দলের সহ-অধিনায়ক হলেও পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার হয়ে শেফিল্ড শিল্ডে তেমন কিছু করতে না পারায় ভাবনায় নেই তিনি। বরং বেশি আলোচনা অধিনায়ক টিম পেইনের থাকা নিয়ে। অ্যাডিলেড টেস্টের শেষ দিন ব্যথা পেয়েছিলেন আঙুলে। তাও ডান হাতের তর্জনীতে, যেখানে গত সাত বছরে অস্ত্রোপচার হয়েছে সাতটা! ল্যাঙ্গার তবু নিশ্চিত পেইনের খেলা নিয়ে, ‘পেইন শতভাগ প্রস্তুত পার্থে খেলা নিয়ে। ওর মতো শক্ত ক্রিকেটার কমই দেখেছি। ওর আঙুলে চার জায়গায় কেটে গেলেও নেমে পড়ত নিশ্চিত।’

সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিংও আশাবাদী পার্থে অস্ট্রেলিয়ার ঘুরে দাঁড়ানো নিয়ে। এ জন্য স্টার্ককে বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে খেলতে বললেন তিনি, ‘পার্থে ভারতের চেয়ে আমাদের বোলাররা বেশি সাহায্য পাবে। এই সুযোগটা কাজে লাগাতে হবে এখন। স্টার্ককে আরো আগুন ঝরানো স্পেল করতে হবে। অ্যাডিলেডে ভারত কিন্তু নিজেদের সেরাটা পুরোপুরি খেলতে পারেনি। নিজেদের ভুলগুলো এ জন্যই দ্রুত শোধরানো দরকার অস্ট্রেলিয়ার।’

ওয়াকায় চার টেস্ট খেলে ১১ বছর আগে একবারই জয়ের স্বাদ পেয়েছিল ভারত। এবার অ্যাডিলেডে জয়ে শুরু করায় আত্মবিশ্বাসী ছিল বিরাট কোহলির দল। তবে শেষ মুহূর্তে তাতে খানিকটা ধাক্কা দিয়েছে বাছাই কিছু ক্রিকেটারের চোট-আঘাত। তাই উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতেই হচ্ছে। প্রথম টেস্টে ফিল্ডিংয়ের সময় পিঠে চোট পেয়েছিলেন রোহিত শর্মা। তলপেটের ব্যথায় ভুগছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। আগের টেস্টে ৬ উইকেট নেওয়া অশ্বিনের অভাবটা হয়তো পেসার দিয়েই পূরণ করবে ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট। তেমনটা হলে ভারত খেলবে চার পেসারে—ঈশান্ত, সামি, বুমরাহর সঙ্গে দেখা যাবে ভুবনেশ্বর কুমারকে। আর ব্যাটিং-বোলিং দুই দিকেই একটু একটু শক্তি বৃদ্ধির উপায় খুঁজলে বিকল্প হতে পারেন রবীন্দ্র জাদেজা। রোহিতের জায়গায় ঢুকছেন হনুমা বিহারি। অপরিবর্তিত একাদশ অস্ট্রেলিয়ার। ক্রিকইনফো



মন্তব্য