kalerkantho



মুখোমুখি প্রতিদিন

সাফ জিতে আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে

৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সাফ জিতে আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে

দারুণ পারফরম্যান্স দেখিয়ে অনূর্ধ্ব-১৫ সাফে বাংলাদেশকে চ্যাম্পিয়ন করিয়েছে মেহেদী হাসানরা। এই ফুটবলারদের ধরে রাখার চেষ্টা করছে এখন বাফুফে। তারই অংশ হিসেবে সাফের পর নিবিড় অনুশীলনে ছিল দলটি। এবার থাইল্যান্ডে যাচ্ছে উয়েফার সহায়তায় অনুষ্ঠেয় চার জাতি একটি টুর্নামেন্টে অংশ নিতে। সে প্রসঙ্গেই কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেছে মেহেদী

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : সাফ শিরোপা জিতে এখন থাইল্যান্ডে চার জাতি টুর্নামেন্ট খেলতে যাচ্ছ, দুটি টুর্নামেন্টের মধ্যে কী পার্থক্য মনে হচ্ছে?

মেহেদী হাসান : একেবারেই ভিন্ন দুটি টুর্নামেন্ট। আমরা সাফের শিরোপা জিতেছি, কিন্তু থাইল্যান্ডে আমাদের আরো কঠিন প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হতে হবে। ইউরোপের দল সাইপ্রাস খেলবে এ আসরে। নিজেদের মাটিতে থাইল্যান্ডও অনেক শক্তিশালী।

প্রশ্ন : তোমাদের প্রস্তুতি নিয়ে বলো..

মেহেদী : সাফের পর তো আমরা বাড়ি যাইনি। নতুন করে আবার অনুশীলন শুরু করেছি। এই টুর্নামেন্টটা যেহেতু ভিন্ন, প্রতিপক্ষ আরো শক্তিশালী—সেটা মাথায় রেখেই আমাদের অনুশীলন করানো হয়েছে। সাফ জিতে আসায় খেলোয়াড়রা সবাই অনেক চাঙ্গা ছিল, যে কারণে বাড়ি না গিয়েও কেউ মন খারাপ করেনি। স্যাররাও সব সময় চেষ্টা করেছেন আমাদের আনন্দের মধ্যে রাখার।

প্রশ্ন : ইউরোপের একটি দলের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছ, এটা ভেবে কতটা রোমাঞ্চিত?

মেহেদী : এটা আমাদের জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ। আশা করি ওদের বিপক্ষে আরো ভালো ফুটবল উপহার দিয়ে আমরা দেশের মান রাখতে পারব। ওরা নিশ্চিত অনেক শক্তিশালী। তবে সাফ জিতে আমরাও সবাই আত্মবিশ্বাসী। মাঠে নামলে ভালো কিছুই হবে ইনশাআল্লাহ।

প্রশ্ন : এই চার দলের টুর্নামেন্টে আমাদের কী অর্জন করা সম্ভব?

মেহেদী : মালদ্বীপের বিপক্ষে আমরা আগে খেলেছি। থাইল্যান্ডে ওদের হারাব আশা করি। আর সাইপ্রাস ও থাইল্যান্ড সম্বন্ধে সেভাবে বেশি কিছু জানি না। কোচ অনুশীলনে এ দুটি দলের ভিডিও দেখিয়েছেন আমাদের। তাবে বুঝেছি অবশ্যই ওরা শক্তিশালী দল। সাইপ্রাসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই মাঠে নামতে হবে আমাদের। আমরা জয়ের লক্ষ্যেই নামব। সেই ম্যাচে ভালো করতে পারলে পরের ম্যাচগুলোর জন্যও তা নিশ্চিত আত্মবিশ্বাস জোগাবে।

প্রশ্ন : সাফের পারফরম্যান্সের পর এই কিছুদিনের অনুশীলনে কোন দিকটা নিয়ে বেশি কাজ হয়েছে?

মেহেদী : সাফে মোটামুটি আমরা সব বিভাগেই ভালো করেছি। অনুশীলনেও সব বিভাগেই সমান গুরুত্ব দিয়েছি আমরা।

প্রশ্ন : সাফের সেমিফাইনাল, ফাইনাল জিততে হয়েছে টাইব্রেকারে, নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ শেষ করার জন্য স্ট্রাইকারদের নিশ্চয় আরো গোল করতে হবে...

মেহেদী : তা-তো ঠিকই। ওখানে পয়েন্টের ভিত্তিতে খেলা। টাইব্রেকারের কোনো সুযোগ নেই। আমাদের যা করার ৯০ মিনিটেই করতে হবে।



মন্তব্য