kalerkantho



চট্টগ্রামে নেটে সাকিব কোচের স্বস্তি

১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



চট্টগ্রামে নেটে সাকিব কোচের স্বস্তি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বাংলাদেশ দলে সাকিব আল হাসান থাকা আর না থাকার পার্থক্যটা অনেক! সাকিব থাকলে একাদশের গড়ন এক রকম, না থাকলে আরেক রকম। টেস্ট অধিনায়ক ফিরেছেন দলে, মাহমুদ উল্লাহ তাই ভারমুক্ত! অধিনায়কত্বের চাপ নিয়েই সবশেষ টেস্টে গুরুত্বপূর্ণ শতরান করা মাহমুদকে ছেড়ে দিতে হচ্ছে নেতার আসন। স্টিভ রোডসও ফিরে পেয়েছেন তাঁর ট্যাকটিকালি সবচেয়ে সেরা অধিনায়ককে, বাংলাদেশ দল ফিরে পেয়েছে সেরা অলরাউন্ডারকে।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে দুই দলের অধিনায়ক ভাগ্য দুই রকম। দেশে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজটায় খেলেননি নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক সাকিব, ফিরলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে। অন্যদিকে ভারতে লম্বা সফরে নেতৃত্ব দেওয়া জেসন হোল্ডার বাংলাদেশ সফর থেকে বিশ্রাম নিলেন। উদ্দেশ্য দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ আর বিশ্বকাপের আগে নিজেকে বিশ্রাম দিয়ে সারিয়ে নেওয়া। মাস চারেক আগেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট দিয়েই বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিলেন রোডস। শুরুটাই হয়েছিল অ্যান্টিগায় ৪৩ রানে অল আউট হওয়ার দুঃস্বপ্ন দিয়ে। সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ফের সামনে পেয়ে রোডস মনে করছেন, এবার অন্তত সে রকম কিছু হবে না, ‘জুলাইতেই ওদের সঙ্গে দেখা হয়েছিল, তবে এবার খেলাটা আমাদের মাঠে আর তাই কন্ডিশনটা অন্য রকম। অসাধারণ প্রতিপক্ষ, ওদের সঙ্গে খেলাটা জমবে। চোটের কারণে ওদের হোল্ডার চলে গেছে, আমাদেরও তামিম নেই। প্রতিদ্বন্দ্বিতা জমবে।’ নির্বাচক হাবিবুল বাশার খোলাখুলিই জানিয়েছিলেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান নিয়ে উদ্বেগের কথা। লিটন দাশকে তো ছেঁটেই ফেলা হয়েছে টেস্ট দল থেকে। সৌম্য সরকারকে নেওয়া হয়েছে দলে, তবে সৌম্যই যে ইমরুলের সঙ্গী হবেন সেই নিশ্চয়তা দিচ্ছেন না কোচ, ‘ইমরুলকে দলে দেখা যাচ্ছে, তার মানে সে শুরুটা করছেই। তবে তার সঙ্গে আরেকজন কে হবে সেটা বলতে চাচ্ছি না। আমাদের টপ অর্ডার যেমনটা চাইছি তেমনটা ভালো করেনি। এমনটা হয় কখনো কখনো। কে সূচনা করবে সেটা ম্যাচের দিন সকালেই জানতে পারবেন।’ সৌম্য নিজেও জানালেন, ‘অনেক দিন পর সুযোগ পেয়েছি, চেষ্টা করব ভালো কিছু করার। ওপরে বা যেখানে ব্যাট করার সুযোগ পাই চেষ্টা করব উইকেটে সময় কাটাতে।’

সাকিবকে অধিনায়ক হিসেবে ফিরে পেয়ে আপ্লুত রোডস জানালেন, ‘রিয়াদ মিরপুরে ভালোই করেছে, তবে সাকিবের মাপের একজন ট্যাকটিশিয়ান, চালাক অধিনায়ক বাংলাদেশের সাফল্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তার আঙুল ঠিকই আছে মনে হচ্ছে, নেটে তো আজ (কাল) ৪৫ মিনিট ব্যাটিং করল। সব কিছু তো ভালোই মনে হচ্ছে।’ কাল সকালে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের প্রথম ভাগ পৌঁছে গিয়েছিলেন, দুপুরে গিয়ে পৌঁছেছেন শেষের ভাগ। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি মাঠে চলে আসেন সাকিব ও মাহমুদ উল্লাহ। নেটে পেস ও স্পিন, দুটোই খেলেছেন ৪৫ মিনিটের সেশনে। শুরুতে মুস্তাফিজুর রহমান ও আরিফুল হকের বোলিং খেলার পাশাপাশি নেট বোলারদেরও খেলেছেন সাকিব, এরপর মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে খেলেছেন স্থানীয় স্পিনারদের। নেট সেশন শেষে কোচের সঙ্গে গিয়ে দেখেছেন উইকেট। কিউরেটরের সঙ্গে চলেছে লম্বা আলাপ। চট্টগ্রামে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সবশেষ টেস্টে অতিরিক্ত ব্যাটিংবান্ধব উইকেট বানানোর জন্য ১ ডিমেরিট পয়েন্ট দিয়েছিল আইসিসি। দুই পক্ষেরই রান উৎসবের নিষ্ফলা টেস্টের উইকেট যেন না হয়, সাকিব আর রোডস কি সেটাই বললেন?



মন্তব্য