kalerkantho



মুখোমুখি প্রতিদিন

মাঠেই নিজেদের প্রমাণ করেছি

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



মাঠেই নিজেদের প্রমাণ করেছি

দলের শক্তি বিবেচনায় গত প্রিমিয়ার হকিতে মোহামেডানকে কেউ হিসাবের মধ্যে রাখেনি। মাঠের খেলায় সেই তারাই শিরোপার সবচেয়ে বড় দাবিদার হয়ে ওঠে। শিরোপা নির্ধারণী শেষ ম্যাচ পণ্ড, সিদ্ধান্ত দেওয়া নিয়ে দীর্ঘসূত্রতা শেষে সেই সাদা-কালোর ঘরেই গেছে শিরোপা। আগামীকাল ক্লাব প্রাঙ্গণে সেই সাফল্য উদ্যাপনের আগে কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জানিয়েছেন তাঁর অনুভূতির কথা

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : অনেক নাটকীয়তার পর হকির শিরোপা আপনাদের ঘরে, আগামীকাল ক্লাব সেটা জাকজমকভাবে উদ্‌যাপনও করবে, সব মিলিযে কেমন লাগছে?

রাসেল মাহমুদ : ভালো তো লাগছেই। অনেক বছর পর এই শিরোপা। তা ছাড়া লিগের আগে মোহামেডানকে নিয়ে যেমন কথাবার্তা হচ্ছিল, তাতেও এই শিরোপাটা অনেক আনন্দের আমাদের জন্য। বলা হচ্ছিল মোহামেডানের কোনো দলই হয়নি, শিরোপার আশাই করেনি কেউ। তাতে আমরা আরো দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হয়ে উঠেছি মাঠে পারফরম করার ব্যাপারে। সবাই এক হয়ে খেলেছিলাম—এটাই ছিল গুরুত্বপূর্ণ। টিম ম্যানেজমেন্ট আমাদের সমানভাবে উৎসাহ দিয়ে গেছে। একটা দল হিসেবে একাত্ম হয়ে খেলেই বলতে পারেন আমাদের এই শিরোপা।

প্রশ্ন : সত্যিই ইনফর্ম খেলোয়াড়দের বেশির ভাগ মেরিনার্স, আবাহনীতেই ছিল। মোহামেডানে তারকা ছিল কিন্তু সবাই সেরা সময়টা ফেলে এসেছেন মনে করা হয়েছিল—কিভাবে সম্ভব হলো নিজেদের সেরা দেওয়া?

রাসেল : আমি জিমি, আমার পারফরম্যান্সের কারণেই। পিন্টু, জাহিদ, রানা একেকজন দীর্ঘদিন ধরে এই মাঠে পারফরম করে যাচ্ছেন। তাদের এক নামেই সবাই চেনে। সেটা তো এমনি এমনিই না। নিশ্চয় আমাদের মধ্যে কিছু আছে। সেটাই  এবার মাঠে দেখাতে চেয়েছি।

প্রশ্ন : বিদেশিরা কতটা সাহায্য করতে পেরেছিল, ওদেরকে সংবর্ধনায় দাওয়াত করা হয়েছে?

রাসেল : খেলতে আসার সময়ই ওদের ভিসা পাওয়া নিয়ে বেশ সমস্যা হয়েছিল। এখন সংবর্ধনায় আসাটা কঠিনই তাদের জন্য। তবে এই শিরোপায় অবশ্যই তাদের অনেক অবদান। দলের সঙ্গে সব কয়জন একেবারে মিশে গিয়েছিল। আমাদের কিছু তরুণ খেলোয়াড়ের কথা না বললে নয়, যেমন রাকিন, আবেদ, অজিত, নাসির। আবাহনী, মেরিনার্সের মতো দলের বিপক্ষে ওরা যেভাবে খেলেছে, সেটা আমাদের প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছিল। যাদের কাছ থেকে খুব বেশি কিছু আশা করা হয়নি তারা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় দলের কাজটা অনেক সহজ হয়ে যায়।

প্রশ্ন : শেষ পর্যন্ত টেবিলের সিদ্ধান্তে অবশ্য আপনাদের শিরোপা, তাতে আনন্দটা নিশ্চয় একটু কম?

রাসেল : মাঠে শিরোপা উদ্যাপনের চেয়ে দারুণ কিছু হয় না। এটা আমাদের দুর্ভাগ্য যে এভাবে চ্যাম্পিয়নশিপ নিতে হলো, হকির জন্যও এটা ক্ষতির। ফেডারেশনের উচিত এ বিষয়গুলোতে আরো দৃঢ়তা দেখানো আরো স্বচ্ছ হওয়া। আমি বলব না আমাদের দায়িত্ব নেই, আমাদের খেলোয়াড়দেরও সহনশীল হতে হবে।



মন্তব্য