kalerkantho


ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরছেন রোনালদো

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরছেন রোনালদো

কুঁড়ি থেকে ফুল হয়ে ফোটা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। সৌরভ ছড়িয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদে। ক্যারিয়ারের শেষ বেলায় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো নিয়েছেন জুভেন্টাসকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানোর চ্যালেঞ্জ। সেই অভিযানে আজ প্রিয় ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরছেন পর্তুগিজ যুবরাজ। এখানকার দর্শকদের ভালোবাসাটা এখনো আগের মতো রোনালদোর জন্য। তাঁকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত থাকলেও চাওয়া একটাই—রোনালদো যেন গোল না করেন! রোনালদোর ছেড়ে আসা ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ এখন ব্যর্থতার বৃত্তে। আজ ভিক্তোরিয়া প্লজেনকে হারাতে না পারলে অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যাবে কোচ ইউলেন লোপেতেগির বরখাস্ত হওয়া! এ ছাড়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রতিবেশী ম্যানচেস্টার সিটি খেলবে শাখতার দোনেেস্কর সঙ্গে, বায়ার্ন মিউনিখের প্রতিদ্বন্দ্বী এইকে অ্যাথেন্স আর এএস রোমা খেলবে সিএসকেএ মস্কোর বিপক্ষে।

ম্যানইউ ছেড়ে যাওয়ার পর ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে একবারই খেলতে এসেছিলেন রোনালদো। ২০১২-১৩ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বুক ভাঙার কারণও তিনি। সেবার শেষ ষোলোর প্রথম লেগে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ১-১ ড্র করে দুদল। শুরুতে ম্যানইউ এগিয়ে গেলেও রোনালদো ফেরান সমতা। অ্যাওয়ে গোলের কারণে ফিরতি লেগে গোলশূন্য ড্র করলেই চলত স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের দলের। ৪৮ মিনিটে সের্হিয়ো রামোসের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় ম্যানইউ। কিন্তু লুকা মডরিচ সমতা ফেরান ৬৩ মিনিটে। এর তিন মিনিট পর রোনালদোর গোলে স্তব্ধ হয়ে যায় ওল্ড ট্র্যাফোর্ড। ২-১ গোলের জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালের ছাড়পত্র রিয়াল মাদ্রিদের। রোনালদোর পুরনো কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের শেষ চ্যাম্পিয়নস লিগ ম্যাচ হয়ে যায় সেটা। আজ আরো এক পুরনো কোচ হোসে মরিনহোর মুখোমুখি রোনালদো। দুজন স্বদেশি হলেও রিয়ালে একটা সময় বরফশীতল হয়ে পড়ে সম্পর্কটা। এর পরও আজ মুখোমুখি হবেন একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধা নিয়ে। দুই দলের ড্রর পরই মরিনহো জানিয়েছিলেন, ‘সিরি এ-তে টানা সাতবার চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। ওরা রোনালদোকে কিনেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের জন্য। রোনালদোও চেষ্টা করবে সেই স্বপ্ন পূরণে।’ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে আসার আগে ছন্দে আছেন রোনালদো। জেনোয়ার বিপক্ষে সিরি ‘এ’র সবশেষ ম্যাচে করেছেন গোল, যা জুভেন্টাসের হয়ে তাঁর পঞ্চম। এই গোলে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপিয়ান শীর্ষ পাঁচ লিগে ৪০০তম গোলের মাইলফলকে পা রেখেছেন তিনি। জুভেন্টাসের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ অভিষেক ম্যাচটি রোনালদোর দুঃস্বপ্নের কেটেছিল ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে লাল কার্ড দেখে। এ জন্য খেলতে পারেননি ইয়ং বয়েজের বিপক্ষে। তাঁকে ছাড়া ভ্যালেন্সিয়াকে ২-০ আর ইয়ং বয়েজকে ৩-০ গোলে হারিয়েছিল জুভেন্টাস। আজ ওল্ড ট্র্যাফোর্ড থেকেও জয় নিয়ে ফিরতে চাইবে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। রোনালদোও চাইবেন ধর্ষণের অভিযোগ পেছনে ফেলে আরো একবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জ্বলে উঠতে।

রিয়াল মাদ্রিদ ঘুরপাক খাচ্ছে দুঃসময়ের বৃত্তে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচ আর লা লিগায় চার ম্যাচ জয়হীন রিয়াল! ২০০৯ সালের মে মাসের পর এবারই প্রথম পাঁচ ম্যাচে জয় পেল না ঐতিহ্যবাহী দলটি। এমন ব্যর্থতায় ২০০৯-এ চাকরি হারিয়েছিলেন তখনকার কোচ হুয়ান্দে রামোস। ইউলেন লোপেতেগির চাকরিও ঝুলছে সুতায়। চ্যাম্পিয়নস লিগে সবশেষ ম্যাচে সিএসকেএ মস্কোর মাঠে রিয়াল হেরেছিল ০-১ গোলে। আজ ভিক্তোরিয়া প্লজেনের বিপক্ষে জিততে না পারলে চাকরি থাকবে কি? এমন প্রশ্নের জবাবে ক্ষোভই জানালেন ইউলেন লোপেতেগি, ‘আমিই রিয়ালের কোচ। আগামীকালের (আজ) ম্যাচে রিয়ালের ডাগআউটে থাকব। এই ম্যাচটা নিয়ে সব মনোযোগ আমার। ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবছি না মোটেও।’

চ্যাম্পিয়নস লিগে টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়নরা এএস রোমাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে শুরু করেছিল এবারের অভিযান। পরের ম্যাচে সিএসকেএর সঙ্গে হোঁচট ০-১ গোলের হারে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে লা লিগায় টানা ব্যর্থতা। ভিক্তোরিয়া প্লজেনের বিপক্ষে সেটা পেছনে ফেলতে মুখিয়ে পুরো দল। ইউলেন লোপেতেগিও, ‘রিয়াল খুব খারাপ খেলছে এমন নয়। ভাগ্যটা সঙ্গ দিচ্ছে না আমাদের। এই ম্যাচে আমরা নিজেদের পেশাদারিত্ব আর দায়িত্ববোধ থেকে সেরাটা খেলার চেষ্টা করব।’

পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি বর্তমান প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন। এবারও তারা রয়েছে শীর্ষে। কিন্তু দায়িত্ব নেওয়ার পর বিশ্বের অন্যতম দামি দল গড়েও চ্যাম্পিয়নস লিগ ব্যর্থতা কাটাতে পারেননি গার্দিওলা। নিজেদের মাঠে ফ্রান্সের অলিম্পিক লিঁওর কাছে ১-২ গোলে হেরে শুরু এবারের অভিযান। পরের ম্যাচে জার্মানির হফেনহেইমকে হারাতেও ঘাম ছুটেছে। ২-১ ব্যবধানের জয় ৮৭ মিনিটে দাভিদ সিলভার গোলে। আজ মুসা দেম্বেলের শাখতার দোনেেস্কর বিপক্ষে পরীক্ষা তাদের। ইউক্রেনের শাখতারকে প্রথম দুই ম্যাচে হারাতে পারেনি কোনো দল। হফেনহেইমের পর সমান ২-২ গোলে ড্র করেছে অলিম্পিক লিঁওর সঙ্গেও। ম্যানচেস্টার সিটি কি পারবে প্রথমবার হারের তেতো স্বাদ দিতে? ডেইলি মেইল



মন্তব্য