kalerkantho


আব্বাস আগুনে পুড়ল অস্ট্রেলিয়া

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



আব্বাস আগুনে পুড়ল অস্ট্রেলিয়া

‘আব্বাসের মাঝে আমি দেখছি নতুন নাম্বার ওয়ান টেস্ট বোলার’—মোহাম্মদ আব্বাসের প্রশংসায় গতকাল ডেল স্টেইনের টুইট। একটা সময় চামড়ার কারখানায় কাজ করা আব্বাসের আগুনেই আসলে পুড়েছে অস্ট্রেলিয়া। আবুধাবি টেস্টে ১০ উইকেট নিয়ে এই পেসার পাকিস্তানকে এনে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে রেকর্ড ৩৭৩ রানের জয়। চার বছর আগে একই ভেন্যুতে ৩৫৬ রানের জয়টা ছিল এত দিনের সেরা। পাকিস্তানের ৫৩৮ রানের নিচে চাপা পড়ে অস্ট্রেলিয়া গতকাল গুটিয়ে যায় মাত্র ১৬৪-তে। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ৫ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার নায়ক আব্বাস। দুবাইয়ে প্রথম টেস্ট ড্র হওয়ায় পাকিস্তান সিরিজ জিতল ১-০ ব্যবধানে। দুই টেস্টে ১৭ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কার আব্বাসের।

আরব আমিরাতে ইয়াসির শাহ, বিলাল আসিফদের স্পিন বিষ সামলানোটা চ্যালেঞ্জের ছিল অস্ট্রেলিয়ার। তাতে সফলও তারা। কিন্তু অপ্রত্যাশিতভাবে টিম পাইনের দল পুড়ল মোহাম্মদ আব্বাসের আগুনে। সিরিজজুড়ে তিনি ভুগিয়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়াকে। চার দিনে আবুধাবি টেস্ট জয়ের পর ওলটপালট করেছেন রেকর্ডের পাতাগুলো। এই সিরিজে তাঁর গড় ১০.৫৮, যা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে গত ১০০ বছরে কোনো বোলারের সেরা। কোনো সিরিজে অন্তত ১৫ উইকেট নেওয়া পাকিস্তানি পেসারদের মধ্যেও এই গড় সেরা। ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মোহাম্মদ আসিফের ১০.৭৬ ছিল এত দিনের সেরা। আরব আমিরাতে খেলা যেকোনো টেস্টে প্রথম পেসার হিসেবে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তিটাও হয়ে থাকল আব্বাসের। সেই সঙ্গে নিরপেক্ষ এই দেশে পাকিস্তান নিজেদের ‘হোম সিরিজ’ জিতল ১০টি।

জয়ের জন্য ৫৩৮ রানের লক্ষ্যটা পাহাড়সমান ছিল অস্ট্রেলিয়ার। টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ডই ৪১৮। এমন বিশাল রান বোঝা হয়ে চেপেছে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের ওপর। আগের দিনের ১ উইকেটে ৪৭ রান নিয়ে খেলতে নেমে গতকাল লাঞ্চের পরপর গুটিয়ে যায় ১৬৪তে। মার্নাস লাবুসানে ৪৩, ট্রাভিস হেড ৩৬, অ্যারন ফিঞ্চ ৩১ ও মিচেল স্টার্ক ফেরেন ২৮ রান করে। মোহাম্মদ আব্বাস ৬২ রানে ৫টি ও ইয়াসির শাহ ৪৫ রানে নেন ৩ উইকেট। ম্যাচ সেরার পাশাপাশি সিরিজ সেরার পুরস্কারটিও আব্বাসের। তাঁকে নিয়ে কদিন আগে মাইকেল ভন টুইট করেছিলেন, ‘আমাকে বল করলে ৬ বল পর পর উইকেট পেত ও।’ পাকিস্তানি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদও ভাসালেন প্রশংসায়। হেলমেটে বল লাগায় হাসপাতাল ঘুরে আসা সরফরাজ দারুণ খুশি দলের  পারফরম্যান্সে, ‘সিরিজজুড়ে আব্বাস যেভাবে বল করেছে সেটা ইতিবাচক আমাদের জন্য। টেস্টে প্রথম সুযোগ পেয়ে দারুণ করেছে ফখর ও বিলাল। ভালো টেস্ট দল হয়ে উঠতে ওদের গড়ে তুলতে হবে।’

আবুধাবি টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়েছিল পাকিস্তান। এর পরও অস্ট্রেলিয়ান বোলাররা কাজে লাগাতে পারেননি ভিত্তিটা। প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানের পর পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে ৯ উইকেটে ৪০০ রানে। এই ব্যর্থতায় হতাশ অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক টিম পাইন, ‘৫৭ রানে ৫ উইকেট নেওয়ার পরও ম্যাচটা হাতছাড়া হয়েছে আমাদের। এটা হতাশার। আব্বাস আমাদের চ্যালেঞ্জ জানিয়ে গেছে, যা নিতে পারেনি আমাদের ব্যাটসম্যানরা।’ ক্রিকইনফো



মন্তব্য