kalerkantho


চালকের আসনে পাকিস্তান

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



চালকের আসনে পাকিস্তান

চামড়ার কারখানায় কাজ করতেন একসময়। সংসারের ঘানি টানতে কখনো করেছেন ভারী ওয়েল্ডিংয়ের কাজ তো কখনো শিয়ালকোটের ল ফার্মের অফিস সহকারীর কাজ। সেই মোহাম্মদ আব্বাস এখন পাকিস্তানি পেস বোলিংয়ের অন্যতম ভরসা। তাঁর তোপে পাকিস্তানের ২৮২-এর জবাব দিতে নেমে আবুধাবি টেস্টের দ্বিতীয় দিন ১৪৫ রানে গুটিয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া। ৩৩ রানে আব্বাস নিয়েছেন ৫ উইকেট। ক্যারিয়ারের দশম টেস্টে এ নিয়ে তৃতীয়বার ইনিংসে পেয়েছেন ৫ উইকেটের দেখা। রেকর্ড গড়েছেন পাকিস্তানি বোলারদের মধ্যে টেস্টে দ্বিতীয় দ্রুততম ৫০ উইকেট নেওয়ার। জবাবে পাকিস্তান দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে ২ উইকেটে ১৪৪ রানে। লিড ২৮১ রানের। অভাবনীয় কিছু না ঘটলে এই টেস্ট বাঁচানো কঠিনই হবে অস্ট্রেলিয়ার জন্য।

প্রথম দিনই ২ উইকেট হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। গতকাল ধুঁকছিল সকাল থেকে। আব্বাসের তোপে লাঞ্চের আগে ৯১ রানে হারিয়ে বসে ৭ উইকেট। শন মার্শকে দিনের চতুর্থ ওভারে ফিরিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপর্যয়ের শুরুটা করেন আব্বাস। ট্রাভিস হেডও ১৪ রান করে আসাদ শফিককে ক্যাচ দেন তাঁর বলে। ইয়াসির শাহর ঘূর্ণিতে শফিকের তালুবন্দি হয়ে মিচেল মার্শ ফেরেন ১৩ রানে। একটা প্রান্ত আগলে লড়াই করছিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। ৮৩ বলে ৩৯ রান করা বাঁহাতি এই ওপেনার ফখর জামানকে ক্যাচ দেন বিলাল আসিফের বলে।

লাঞ্চের পর মিচেল স্টার্ক ও মার্নাস লাবুসানে চেষ্টা করছিলেন ঘুরে দাঁড়ানোর। কিন্তু নিজের অলসতায় উইকেট বিলিয়ে আসেন ২৫ রান করা লাবুসানে। ইয়াসির শাহর বলে ড্রাইভ করেছিলেন স্টার্ক। সেটা ইয়াসিরের হাত ছুঁয়ে ভাঙে অপর প্রান্তের উইকেট। বল উইকেটে আসছে দেখেও ব্যাটটা মাটি স্পর্শ করাননি তিনি! ১ বাউন্ডারি ২ ছক্কায় স্টার্ক ৩৪ করায় অস্ট্রেলিয়ার রানটা পৌঁছে ১৪৫-এ। আব্বাস ৫ ও বিলাল আসিফ নেন ৩ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে পাকিস্তান শুরুতেই হারায় মোহাম্মদ হাফিজকে। ফখর জামান (৬৬) ফিফটি করেছেন দ্বিতীয় ইনিংসেও। আজহার আলী ৫৪ ও হারিস সোহেল আজ ব্যাট করতে নামবেন ১৭ রান নিয়ে। ক্রিকইনফো



মন্তব্য