kalerkantho



বার্সেলোনার হোঁচট উজ্জ্বল রোনালদো

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বার্সেলোনার হোঁচট উজ্জ্বল রোনালদো

একের পর এক আক্রমণ করেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না জুভেন্টাস। ৮১ মিনিটে গোলের তালা খোলেন রোনালদোই। মিরালেম পিয়ানিচের শট একজনের পায়ে লেগে পড়ে রোনালদোর সামনে। সুযোগটা নষ্ট করেননি পর্তুগিজ সম্রাট। ইনজুরি টাইমে প্রতিপক্ষের ভুলে বল পেয়ে রোনালদো বাড়ান পিয়ানিচকে। বসনিয়ান এই মিডফিল্ডারের ক্রসে ফেদরিকো বের্নারদোস্কির শটে ২-০ গোলের জয়ে মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস।

আগের দিনই হোঁচট খেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। তবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ২ পয়েন্টে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগটা নিতে পারল না বার্সেলোনা। উল্টো নিজেদের মাঠে জিরোনার সঙ্গে করেছে ২-২ গোলে ড্র। ৩৫ মিনিটে বার্সা ডিফেন্ডার ক্লেমো লংলের লাল কার্ড দেখাটা গড়ে দিয়েছে ম্যাচের ব্যবধান। এই ড্রতে রিয়ালের সমান পয়েন্ট হলেও গোল ব্যবধানে শীর্ষে কাতালানরা। একই রাতে সিরি ‘এ’তে আলো ছড়িয়েছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। তাঁর আলোয় জুভেন্টাস ২-০ গোলে হারিয়েছে ফ্রোসিনোনেকে। শেষ দিকে রোনালদো নিজে এক গোল করার পাশাপাশি উৎস ছিলেন অপর গোলটিরও।

দাড়ি কেটে লিওনেল মেসি এখন নতুন চেহারায়। কিন্তু বার্সা সেই আগের মতোই। চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা সবশেষ ম্যাচে লাল কার্ড দেখেছিলেন স্যামুয়েল উমতিতি। লংলে লাল কার্ড দেখলেন পরশু। স্প্যানিশ মিডফিল্ডার পেরে পনসের মুখে কনুই চালিয়ে লাল কার্ড দেখেন ৩৫ মিনিটে। সিদ্ধান্ত মানতে না পারাটা মাঠেই রেফারিকে বুঝিয়ে দেন বার্সা অধিনায়ক মেসি। ম্যাচ শেষে রেফারির সঙ্গে হাতও মেলাননি তিনি! বার্সা অবশ্য লিওনেল মেসির গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ১৯ মিনিটে। দুজন ডিফেন্ডারের মাঝখান দিয়ে বল বের করে নিয়ে ডি-বক্সে মাঝ বরাবর বাড়ান আর্তুরো ভিদাল। ছুটে এসে বাঁ পায়ের শটে বল জালে জড়ান মেসি। ২৯ মিনিটে জিরোনার পোর্তুর শট যাচ্ছিল জালে। কিন্তু জেরার্দ পিকে গোললাইন থেকে ফিরিয়ে বাঁচান বার্সাকে।

১০ জনের দলে পরিণত হওয়ার পর জিরোনার দুটি গোলে দায় আছে পিকের। ৪৫ মিনিটে উরুগুয়ের ফরোয়ার্ড ক্রিস্তিয়ান স্তুয়ানি সমতা ফেরান ম্যাচে। বেনিতেসের ক্রস ডি-বক্সের মুখে পিকে ক্লিয়ার করতে না পারায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে কোনাকুনি শটে জালে জড়ান তিনি। ৫১ মিনিটে স্তুয়ানির দ্বিতীয় গোলে স্তব্ধ হয়ে যায় ন্যু ক্যাম্প। পিকেকে পেছনে ফেলে পোর্তুর শট টের স্টেনেগান ঠেকালেও ফিরতি বল জালে জড়িয়ে জিরোনাকে এগিয়ে দেন স্তুয়ানি। ৬০ মিনিটে মেসির ফ্রিকিক ফেরে পোস্টে লেগে। ৬৩ মিনিটে দারুণ হেডে গোল করে স্বস্তি ফেরান পিকে। মেসি, সুয়ারেসের বল দেওয়া-নেওয়ার পর ডি-বক্সে সুয়ারেসের উঁচু করে তুলে দেওয়া বলে মাথা ছুঁইয়ে গোল তাঁর।

এই ড্রতে ৫ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ফিরল বার্সা। সমান ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ১৩ হলেও গোল গড়ে দুইয়ে তারা। ৮ পয়েন্ট নিয়ে জিরোনা উঠে এসেছে ছয় নম্বরে। ন্যু ক্যাম্পে জোড়া গোল করে ১ পয়েন্ট নিয়ে আসার নায়ক স্তুয়ানির সন্তুষ্টি, ‘এটা আমাদের জন্য উৎসবের মতো। ন্যু ক্যাম্পে এসে ১ পয়েন্ট পাওয়া বিশেষ কিছু।’

সিরি ‘এ’তে ফ্রোসিনোনের মাঠে অষ্টম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত জুভেন্টাস। কিন্তু ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর শট গোললাইন থেকে ফেরান কাপুয়ানো। ২০ মিনিটে রোনালদোর আরো একটি শট ফেরান গোলরক্ষক। এভাবে ৮০ মিনিট পর্যন্ত একের পর এক আক্রমণ করেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না জুভেন্টাস। ৮১ মিনিটে গোলের তালা খোলেন রোনালদোই। মিরালেম পিয়ানিচের শট একজনের পায়ে লেগে পড়ে রোনালদোর সামনে। সুযোগটা নষ্ট করেননি পর্তুগিজ সম্রাট। ইনজুরি টাইমে প্রতিপক্ষের ভুলে বল পেয়ে রোনালদো বাড়ান পিয়ানিচকে। বসনিয়ান এই মিডফিল্ডারের ক্রসে ফেদরিকো বের্নারদোস্কির শটে ২-০ গোলের জয়ে মাঠ ছাড়ে টানা সাতবারের সিরি ‘এ’ জয়ীরা। ৫ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তারা এখন শীর্ষে।  এএফপি



মন্তব্য