kalerkantho


আত্মবিশ্বাসের সংকটে পাকিস্তান

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আত্মবিশ্বাসের সংকটে পাকিস্তান

ভারত ফাইনালের টিকিট পেয়ে গেছে। বিদায় নিশ্চিত আফগানিস্তানের। সুপার ফোরে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের শেষ ম্যাচটি তাই অঘোষিত সেমিফাইনাল। যারা জিতবে ফাইনালে খেলবে তারাই। এমন বাঁচা-মরার ম্যাচের আগে কিনা আত্মবিশ্বাসের সংকটে পাকিস্তান। গত পরশু ভারতের বিপক্ষে বিধ্বস্ত সরফরাজ আহমেদের দল। তাদের ২৩৭ রানের চ্যালেঞ্জ রোহিত শর্মার হার না মানা ১১১ ও শিখর ধাওয়ানের ১১৪-তে ১ উইকেট হারিয়ে ৬৩ বল হাতে রেখে পেরিয়ে যায় ভারত। এ জন্য কোচ মিকি আর্থার জানালেন আত্মবিশ্বাসের অভাবের কথা, ‘ওরা এখন আত্মবিশ্বাসের সংকটে ভুগছে। ব্যর্থতার ভয় চেপে ধরছে ড্রেসিংরুমেই। এখন আর গোপন করার কিছু নেই। সত্যের মুখোমুখি হওয়া দরকার। ফখর জামানকেই দেখুন। কত ভালো ব্যাটসম্যান ও, কিন্তু এখন নিজের যোগ্যতা নিয়ে সন্দিহান। ৯ উইকেটে হেরে যাওয়া অন্যতম জঘন্য হয়ে থাকবে পাকিস্তানের ইতিহাসে।’

১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর টানা ২৫ ম্যাচ হারাতে পারেনি তাদের। ব্যর্থতার বৃত্তটা ভাঙে ২০১৫ সালে। নিজেদের মাটিতে বাংলাদেশ সিরিজ জেতে ৩-০ ব্যবধানে। তামিমের সেঞ্চুরিতে প্রথম ম্যাচে জয় ৭৯ রানে। পরের দুই ওয়ানডেতে জয় আসে ৭ ও ৮ উইকেটের ব্যবধানে। গত তিন বছরে ওয়ানডে আর দেখা হয়নি দুদলের। টানা তিন হারের ব্যর্থতা ভুলে পাকিস্তান জিততে পারবে তো আগামীকাল? না জিতলেই ফেভারিট হয়ে এসে ফিরতে হবে ফাইনালের আগে। মিকি আর্থার চান না সেটা, ‘এখানেই থেমে যাওয়ার উপায় নেই আমাদের। এগিয়ে যেতে হবে। এর চেয়ে আরো ভালো ও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসব।’ পিটিআই



মন্তব্য