kalerkantho


আমিরাত ম্যাচেও ভিয়েতনাম ভাবনা

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আমিরাত ম্যাচেও ভিয়েতনাম ভাবনা

ভিয়েতনামিদের মুখোমুখি হওয়ার আগেই আজ আরেকটি ম্যাচ খেলতে হবে গোলাম রব্বানীর শিষ্যদের। কিন্তু আরব আমিরাতের বিপক্ষে সেই ম্যাচ ছাপিয়ে বাংলাদেশ দলের ভাবনায় শুধু ভিয়েতনাম। আমিরাতকে আজ কত গোলে হারালে সেই ভিয়েতনামিদের চেয়ে এগিয়ে থাকা যাবে মুখোমুখি লড়াইয়ের আগে সেটারই হিসাব কষছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

ক্রীড়া প্রতিবেদক : মেয়েদের এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বটা এখন হয়ে পড়েছে দ্বিমুখী লড়াই। বাংলাদেশ না ভিয়েতনাম। ভিয়েতনামিদের মুখোমুখি হওয়ার আগেই আজ আরেকটি ম্যাচ খেলতে হবে গোলাম রব্বানীর শিষ্যদের। কিন্তু আরব আমিরাতের বিপক্ষে সেই ম্যাচ ছাপিয়ে বাংলাদেশ দলের ভাবনায় শুধু ভিয়েতনাম। আমিরাতকে আজ কত গোলে হারালে সেই ভিয়েতনামিদের চেয়ে এগিয়ে থাকা যাবে মুখোমুখি লড়াইয়ের আগে সেটারই হিসাব কষছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

আমিরাতকে নিয়ে ভাবনার কিছুই দেখছে না বাংলাদেশ, কারণ দলটি ভিয়েতনামের পর লেবাননের কাছেও হেরেছে। লেবাননকে ৮ গোলের লজ্জা দেওয়া বাংলাদেশ তাই আমিরাতের বিপক্ষেও সহজ জয় পাবে, এটা ধরে নেওয়াই হচ্ছে। এই মুহূর্তে টেবিলে ৬ পয়েন্ট বাংলাদেশ ভিয়েতনাম দুই দলেরই, দুই দলের গোল ব্যবধানও সমান। ফেয়ার প্লে’তে অবশ্য এগিয়ে আছে ভিয়েতনামিরা। তাদের মুখোমুখি হওয়ার আগে গোল ব্যবধানে এগিয়ে না থাকতে পারলে তো ম্যাচটি হয়ে পড়বে একরকম বাঁচা-মরার। রব্বানী তাই আগের মতোই বলছেন, ‘সব হিসাব-নিকাশ করেই এই ম্যাচে আমরা মাঠে নামছি।’ গত ম্যাচে ভিয়েতনাম বাহরাইনকে দিয়েছে ১৪ গোল। তাতেই না গোল ব্যবধানে বাংলাদেশের সমান হতে পেরেছে তারা। অর্থাৎ ‘প্রতিপক্ষও’ গোল বাড়ানোর খেলাটা খেলছে আগে থেকেই। বাংলাদেশের তাতে পিছিয়ে পড়লে চলবে কেন। আভাসটা শুরু থেকেই ছিল, প্রথম ম্যাচেই লেবানন যখন বাহরাইনকে ৮-০ গোলে হারায়। সেসময় ত্রিমুখী লড়াই হবে ধরে নিয়ে বাংলাদেশও গোল বাড়ানোর মন্ত্রে নামে, বাহরাইনকে হারায় তারা ১০-০তে। পরে লেবাননকেও মুখোমুখি ম্যাচে উড়িয়ে দেওয়ার পর দ্বৈথটা এখন শুধু ভিয়েতনামের সঙ্গেই, টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের সঙ্গেই যারা শেষ ম্যাচ খেলবে। সেটি হতে পারে অঘোষিত ফাইনাল। তার আগে অবশ্য আমিরাত ম্যাচটি জয়ে শেষ করতে হবে মারিয়াদের, সঙ্গে গোল বাড়ানোর চিন্তা তো আছেই। বাহরাইন ম্যাচ চিন্তা করলে আবার টানা খেলা মেয়েদের একাদশ থেকে বিশ্রাম দেওয়ার ভাবনাও মাথায় ঘুরছে রব্বানীর। সব কূল রেখেই তাই এই ম্যাচে দল মাঠে নামাতে চান তিনি। আগের ম্যাচে ফরোয়ার্ড লাইনে দ্রুত পরিবর্তন এনেছেন। দুই ম্যাচেই টানা খেলা দুই মিডফিল্ডার মারিয়া মান্ডা ও মনিকা চাকমার মধ্যে একজন আজ বিশ্রাম পেতেই পারে। মারিয়া এরই মধ্যে হলুদ কার্ডও দেখেছে। আজ বেঞ্চেই দেখা যেতে পারে তাই বাংলাদেশ অধিনায়ককে।

দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় সারাবান তহুরাকে এখনো দেখা যায়নি সেরা ফর্মে, স্ট্রাইকার আনুচিং মোগিনিও তার সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারছে না। অন্যান্য বিভাগে সন্তুষ্টি থাকলেও এই ফরোয়ার্ড জোন নিয়ে এখনো তাই অতৃপ্তি রব্বানীর। ‘ভিয়েতনাম ফাইনাল’-এর আগে সেটা কাটিয়ে ওঠার বার্তাও তাঁর খেলোয়াড়দের প্রতি, ‘ফরোয়ার্ড জোনে আমাদের খেলা এখনো পাস মার্ক পাবে না। প্রচুর সহজ সুযোগ নষ্ট করছি আমরা। এই জায়গাটায় উন্নতি করতেই হবে।’ আজ বড় জয় পেতেও যে তা-ই দরকার।



মন্তব্য