kalerkantho


সহজেই কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সহজেই কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল

রাশান কারেন খাচানভের বিপক্ষে আগের রাউন্ডে সাড়ে চার ঘণ্টার এক ম্যারাথন ম্যাচ খেলতে হয়েছিল রাফায়েল নাদালকে। তবে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে এতটা অগ্নিপরীক্ষা দিতে হয়নি তাঁকে। প্রথম জর্জিয়ান হিসেবে ফ্লাশিং মিডোয় শেষ ষোলোতে জায়গা করে নেওয়া নিকোলোজ বাসিলাশভিলিকে অপেক্ষাকৃত সহজে ৩-১ সেটে হারিয়ে অষ্টমবার ফ্লাশিং মিডোয় শেষ আটে স্প্যানিয়ার্ড তারকা। এই জয়ে ২০১৮ সালে সব গ্র্যান্ড স্লামে অন্তত শেষ আটে খেলার ধারাবাহিকতাও তাঁর থাকল অক্ষুণ্ন। সর্বশেষ অমন সাফল্য ছিল তাঁর ২০১১ সালে।

শিরোপা ধরে রাখার মিশনে পরশু চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে বাসিলাশভিলিকে ৬-৩, ৬-৩, ৬-৭, ৬-৪ গেমে হারিয়েছেন নাদাল। শেষ আটে তাঁর প্রতিপক্ষ ডমিনিক থিয়েম। এই বছর স্প্যানিয়ার্ড তারকা যে তিনজনের কাছে হেরেছেন তাঁদেরই একজন এই অস্ট্রিয়ান। ফ্রেঞ্চ ওপেনের প্রস্তুতিমূলক আসর মাদ্রিদ ওপেনে নাদালকে হারিয়ে দিয়েছিলেন থিয়েম। এ দুজনের মুখোমুখি লড়াইয়ে যদিও ৭-৩-এ এগিয়ে স্প্যানিয়ার্ড তারকা। আর থিয়েমকে ফাইনালে হারিয়েই রোলাঁ গাঁরোতে একাদশ শিরোপা জয়ের উৎসব করেছিলেন তিনি। তবু শেষ আটের এ প্রতিপক্ষকে যথেষ্ট সমীহ শীর্ষ বাছাই নাদালের, ‘বরাবর কঠিন প্রতিপক্ষ থিয়েম। বিগ সার্ভ করতে পছন্দ ওর। কেভিনের বিপক্ষেও কিন্তু সহজ জয় পেয়েছে।’ 

চতুর্থ রাউন্ডে থিয়েম সরাসরি ৩-০ সেটে হারিয়েছেন গতবারের ফাইনালিস্ট দক্ষিণ আফ্রিকার কেভিন অ্যান্ডারসনকে। ফ্লাশিং মিডোয় এই প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেন এ অস্ট্রিয়ান। শেষ আটে নাম লিখিয়েছেন ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন তৃতীয় বাছাই হুয়ান মার্তিন দেল পোত্রোও। ক্রোয়াট বোর্না কোরিচের বিপক্ষে ৬-৪, ৬-৩, ৬-১ গেমের অনায়াস জয় পেয়েছেন এ আর্জেন্টাইন। কোয়ার্টার ফাইনালে তিনি খেলবেন পুরুষ এককে টিকে থাকা আমেরিকার একমাত্র খেলোয়াড় জন ইসনারের বিপক্ষে। পাঁচ সেটের থ্রিলারে ইসনার ৩-২ সেটে হারিয়েছেন কানাডিয়ান মাইলোস রায়োনিককে।

মেয়েদের এককে কাইয়া কানেপির স্বপ্নযাত্রা থামিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছেন ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন সেরেনা উইলিয়ামস। প্রথম দিনই শীর্ষ বাছাই সিমোনা হালেপের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে চমকে দিয়েছিলেন কানেপি। এরপর দাপুটে জয়েই পেরিয়ে যাচ্ছিলেন একেকটি ধাপ। সেরেনাকেও ফেলেছেন কঠিন পরীক্ষায়। প্রথম সেটে বিধ্বস্ত হলেও দ্বিতীয়টি জিতে ১-১-এ সমতাও ফেরান তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৬-০, ৪-৬, ৬-৩ গেমের জয়ে শেষ হাসিটা ২৩ বারের গ্র্যান্ড স্লামজয়ী সেরেনারই।

সপ্তম বাছাই এলিনা সভিতোলিনা অবশ্য হেরে গেছেন। মেয়েদের এককে একে একে ঝরে পড়ছেন শীর্ষ দশে থাকা তারকারা। সর্বশেষ বিদায় নিলেন সভিতোলিনা। লাটভিয়ার আনাস্তাসিয়া সেভাস্তোভার বিপক্ষে অপ্রত্যাশিতভাবে ২-১ সেটে হেরে যান ইউক্রেনের এই তারকা। তাঁর বিদায়ে শীর্ষ দশের তারকাদের মধ্যে টিকে আছেন আর মাত্র দুজন—তৃতীয় বাছাই এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্লোয়ানে স্টিফেনস ও অষ্টম বাছাই ক্যারোলিন প্লিসকোভা। প্লিসকোভা সরাসরি ২-০ সেটে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলেই ব্যার্টিকে এবং স্টিফেনস বেলজিয়ামের এলিসে মেরটেনসের বিপক্ষে ৬-৩, ৬-৩ গেমের সহজ জয়ে জায়গা করে নিয়েছেন কোয়ার্টার ফাইনালে। এএফপি



মন্তব্য