kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

এই বছরটা হবে আমাদের

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



এই বছরটা হবে আমাদের

এশিয়ান গেমসে তিন সিনিয়র খেলোয়াড়ের একজন হিসেবে জামাল ভুঁইয়া নজরকাড়া পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন। নিশ্চিতভাবে সাফ দলেও জেমি ডে’র বড় ভরসা হতে যাচ্ছেন তিনি। কাল ২০০৩-এর সাফজয়ী খেলোয়াড়দের সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে এই মিডফিল্ডার বলেছেন এবারের সাফের দল ও প্রত্যাশা নিয়ে

 

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : ২০০৩-এর সেই সাফল্য ফিরিয়ে আনার দায় এবার আপনাদের কাঁধে, সত্যি কতটা উদ্দীপ্ত বোধ করেছেন?

জামাল ভুঁইয়া : ১৫ বছর লম্বা সময়। এই সময়ের মধ্যে ২০০৩-এর সাফল্য পুনরাবৃত্তি করতে পারেনি কোনো দলই। এবার আমাদের পালা। আমার বিশ্বাস এই বছরটা হবে আমাদের। ২০০৩-এর নায়কদের আমরা ভুলিয়ে দেব।

প্রশ্ন : এই আত্মবিশ্বাসের ভিতটা কতটা মজবুত?

জামাল : এই সাফের আগে আমরা কাতার, দক্ষিণ কোরিয়ায় ক্যাম্প করেছি, প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। এরপর গিয়েছি ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানে পারফরম করে আমরা সবাই এখন মুখিয়ে আছি সাফেও নিজেদের ঢেলে দিতে। আশা করি, এবার আমাদের অর্জনও হবে মনে রাখার মতো।

প্রশ্ন : গত তিনটি সাফে বাংলাদেশ গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে, তা থেকে কতটা বদলেছেন আপনারা?

জামাল : জেমি ডে’র অধীনে অনুশীলন শুরুর আগে আর এখনকার আমাদের কন্ডিশনে আকাশ-পাতাল তফাত। প্রধান কোচ, ফিটনেস কোচের অধীনে গত কয়েকটি মাস আমরা কঠিন পরিশ্রম করেছি। ফিটনেসের পাশাপাশি দলের মানসিকতায়ও বড় পরিবর্তন এসেছে এরই মধ্যে। সাফেও আমরা তার ছাপ রাখতে চাই।

প্রশ্ন : বলা হচ্ছে, দেশের ফুটবলের ক্রান্তিকালে বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছেন আপনারা...

জামাল : হ্যাঁ, জানি। আমাদের ফুটবলের জন্য দারুণ গুরুত্বপূর্ণ সময় এটা। আমাদের কিছু একটা করতে হবে দেশের মানুষের জন্য, ফুটবলের জন্য। আমাদের সাফল্যই পারে ফুটবলটাকে আবার বদলে দিতে।

প্রশ্ন : শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ ম্যাচ কি দুশ্চিন্তায় ফেলেনি?

জামাল : না, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যারা খেলেছে সবারই প্রথম ম্যাচ ছিল এটা। আর এটা একটা প্রীতি ম্যাচই, তা নিয়ে বাড়তি দুশ্চিন্তার কিছু নেই।

প্রশ্ন : কিন্তু এই ম্যাচ দিয়ে যাঁদের পরখ করার কথা ছিল তাঁরা হতাশ করায় এখন স্কোয়াড গড়াটা কঠিন হয়ে গেল না?

জামাল : কঠিন হবে কেন, এশিয়ান গেমসে যারা ভালো করেছে তারা এখন গুরুত্ব পাবে।

প্রশ্ন : কিন্তু সাফের মতো আসরে শুধু তরুণ খেলোয়াড়দের ওপর ভরসা করাটা ঝুঁকি হবে না তো?

জামাল : গেমসে আমরা কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড় ছিলাম। আরো দু-একজনও হয়তো দলে ঢুকবে। আর অলিম্পিক দলে যারা খেলে তারা সিনিয়র দলে খেলার মতোই। তাই বয়স নিয়ে ভাবনার কিছু নেই।



মন্তব্য