kalerkantho


সেরা সাফল্যে শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

রাহেনুর ইসলাম, জাকার্তা থেকে   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সেরা সাফল্যে শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

পদকে চোখ রেখে জাকার্তা আসেনি হকি দল। লক্ষ্য ছিল দুটি, ভালো খেলা আর পঞ্চম-ষষ্ঠ স্থানের লড়াইয়ে থাকা। পরের লক্ষ্যটা পূরণ হয়েছে। আজ দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে পঞ্চম স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। তবে ফরহাদ হোসেন, আশরাফুল ইসলাম, রাসেল মাহমুদদের হকি দাগ কাটতে পারেনি কোচ গোবিনাথান কৃষ্ণমূর্তির হৃদয়ে। জাকার্তা অভিযানের শেষটা তাই ভালো খেলে করতে চায় বাংলাদেশ। অধিনায়ক, কোচ দুজনেরই লক্ষ্য ভালো খেলা। আজ হারলেও সরাসরি আগামী এশিয়াড খেলা নিশ্চিত বাংলাদেশের। চাপ নেই তাই। টানা চার এশিয়াড খেলা মামুনুর রহমান চয়নের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ আজ। তাঁকে বিদায় দিতেও ভালো খেলার প্রত্যাশা কৃষ্ণমূর্তির শিষ্যদের।

আজ হকির শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে মালয়েশিয়া ও জাপান। আগে কখনই এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন হয়নি দুই দল। ২০১০ সালে প্রথমবার ফাইনাল খেলেছিল মালয়েশিয়া। গুয়াংজুর ফাইনালে ০-২ গোলে হারতে হয় পাকিস্তানের কাছে। জাপান ফাইনালেই নাম লেখাল প্রথমবার। তৃতীয় হয়েছে দুইবার ১৯৬৬ ও ১৯৭০ এশিয়াডে। আজকের জয়ে দুই দলেরই হবে তাই নতুন ইতিহাস। মালয়েশিয়া র‌্যাংকিংয়ে ১২, জাপান ১৬ নম্বরে। কিন্তু র‌্যাংকিং দিয়ে শিরোপা নির্ধারণ হবে না নিশ্চয়ই। পুরো এশিয়া ভারত-পাকিস্তান ফাইনালের অপেক্ষায় থাকলেও আজ দুই এশিয়ান পরাশক্তি মুখোমুখি হচ্ছে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে। এ নিয়ে মাত্র দ্বিতীয়বার এশিয়াডের ফাইনালে নেই ভারত বা পাকিস্তানের কেউ। সবশেষ ২০০৬ সালে তাদের পেছনে ফেলে ফাইনাল খেলেছিল চীন ও দক্ষিণ কোরিয়া।

সেই দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আজ পঞ্চম স্থান নির্ধারণী ম্যাচ বাংলাদেশের। কৃষ্ণমূর্তির শিষ্যরা এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতিটা নিয়েছিল ভারত ও দক্ষিণ কোরিয়ায়। ভারতে হারতে হয়েছে সব ম্যাচ। দক্ষিণ কোরিয়া সফরে পাঁচ ম্যাচে হার চারটিতে। আর ড্র আছে এক ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে হার ছিল ৩-২ গোলে। স্কোরটাই বলছে লড়াই হয়েছে ম্যাচে। চতুর্থ খেলায় দক্ষিণ কোরিয়ান জাতীয় দলের সঙ্গে ৩-৩ গোলের ড্র। এই ড্রটাই দিচ্ছে আত্মবিশ্বাস। দক্ষিণ কোরিয়াকে কখনো হারাতে না পারলেও স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ভালো খেলার প্রত্যয় অধিনায়ক ফরহাদ হোসেনের, ‘আমরা দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে ড্র করেছি, বিশ্বাস করতে চায়নি অনেকে। খুব শক্তিশালী ওরা। কিন্তু পিছিয়ে পড়েও হাল ছাড়িনি। স্থান নির্ধারণী ম্যাচে আমরা আশা করেছিলাম জাপানকে। সেই জাপান বিস্ময়করভাবে কোরিয়া আর পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে।’

দক্ষিণ কোরিয়া চারবারের এশিয়ান গেমস চ্যাম্পিয়ন। তাদের মেয়েদের দলও সোনা জিতেছে পাঁচবার। সব মিলিয়ে সোনা ৯টি। সেই কোরিয়ার বিপক্ষে ভালো খেলার প্রত্যাশা বাংলাদেশ অধিনায়কের। কোচ কৃষ্ণমূর্তিও দিলেন ইতিবাচক হকির প্রতিশ্রুতি, ‘আমি রক্ষণাত্মক খেলা পছন্দ করি না। এই দলের আক্রমণ করার স্কিল আছে। আশা করছি ওরা করেও দেখাবে।’

টানা চার এশিয়াড খেলা মামুনুর রহমান চয়ন আজ খেলবেন শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় বলার আগে গলা ধরে এলো পেনাল্টি স্পেশালিস্ট চয়নেরও, ‘অনেক খেললাম, এবার সুযোগ দিতে চাই নতুনদের। ক্রিকেটার মুশফিক আর আমি বিকেএসপির একই ব্যাচের। অনেকে বলে সে কোথায় আর আমি কোথায়। কিন্তু আমি ব্যাপারটা দেখি অন্যভাবে। মুশফিকও দেশের পতাকা বহন করে, আমিও করি। অতৃপ্তি নেই আমার।’ দল তাঁর তৃপ্তিটা আরো বাড়াতে পারে, যদি এশিয়াড হকির সেরা সাফল্য ধরা দেয়।  ১৯৭৮ সালে প্রথমবার এশিয়াডে অংশ নিয়েই ষষ্ঠ হওয়াটা এখন পর্যন্ত সেরা। সেবার না পারলেও ৪০ বছর পর আবারও পঞ্চম হওয়ার হাতছানি।



মন্তব্য