kalerkantho


বেলের গোলে শুভ সূচনা রিয়ালের

২১ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



বেলের গোলে শুভ সূচনা রিয়ালের

অদ্ভুত এক নেতিবাচক হাওয়া বইছিল বার্নাব্যুতে। সর্বশেষ দশকে তাদের সাফল্যের প্রাণভোমরা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো চলে গেছেন, বিকল্প হিসেবেও সেভাবে দলে নেওয়া হয়নি কাউকে। টানা তিন চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানো কোচ জিনেদিন জিদানও বলেছেন বিদায়। নতুন কোচ ইউলেন লোপেতেগির অধীন প্রথম প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে উয়েফা সুপার কাপে দল হেরে গেছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের কাছে। সব মিলিয়েই তাই নেতিবাচকতার ওই গুমোট বাতাস রিয়াল মাদ্রিদ ক্যাম্পে।

পরশু লিগের প্রথম ম্যাচে গেতাফের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানের জয়টি তাই বড্ড প্রয়োজন ছিল তাঁদের।

রোনালদো মানেই মৌসুমপ্রতি অর্ধশত গোলের নিশ্চয়তা—গেল ৯ মৌসুমে মোটা দাগে তা-ই তো হয়ে আসছে। এই গোলগুলো এবার কোত্থেকে আসবে, তা রিয়াল মাদ্রিদের বড় দুশ্চিন্তা। ক্লাব প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে কোচ-সমর্থকদের বড় ভরসা এ ক্ষেত্রে গ্যারেথ বেল। রোনালদোর ছায়া থেকে বেরিয়ে আসার সুযোগটা তিনি ভালোভাবে কাজে লাগাবেন বলে আশা সবার। প্রাক-মৌসুমে ভালো খেলেছেন, লিগের প্রথম ম্যাচেও গোল করলেন বেল। এ নিয়ে টানা তিন লা লিগায় রিয়ালের প্রথম ম্যাচে ওয়েলস ফরোয়ার্ডের লক্ষ্যভেদ। ৫১তম মিনিটে মার্কো আসেনসিওর পাসে বেলের ওই গোলের আগেই অবশ্য এগিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। প্রথমার্ধেই দানি কারভাহালের হেড থেকে করা গোলে।

রিয়ালের জয় ওই ২-০ ব্যবধানেই। যেখানে লোপেতেগির অধীন পজেশনভিত্তিক খেলার ইঙ্গিত। পরশু তাঁদের পায়ে বলের দখল ছিল ৭৮ শতাংশ, ২০০৯ সালের পর থেকে ধরলে ম্যাচে এর চেয়ে বেশি বল পজেশন ছিল মাত্র দুইবার। থিবো কোর্তোয়া, রাফায়েল ভারান, লুকা মডরিচদের বেঞ্চে বসিয়ে কেইলর নাভাস, নাচো ফের্নান্দেস, দানি সেবাইয়োসকে একাদশে রেখেও দর্শকদের খানিকটা চমকে দেন কোচ। এ দর্শকসংখ্যায়ও রয়েছে চমক। ৮১ হাজার ধারণক্ষমতার বার্নাব্যুতে পরশুর ম্যাচে দর্শক ছিল ৪৮ হাজার ৪৬৬। রোনালদো যুগে কখনোই ঘরের মাঠে এত কম দর্শকের সামনে খেলেনি রিয়াল।

তা হোক। তবু জয়ে মৌসুম শুরু করায় মহাখুশি কোচ লোপেতেগি, ‘জিততে পেরে আমি মহাখুশি। এটি লিগের প্রথম ম্যাচ। আর এ প্রতিযোগিতাতেই বোঝা যায়, দল আসলে কতটা ভালো। আজকের পারফরম্যান্সে আমি খুশি ও তৃপ্ত।’ আনন্দিত বেলের পারফরম্যান্সেও, ‘সামগ্রিকভাবেই দলের খেলা আমার পছন্দ হয়েছে। আর গ্যারেথ বেলও খেলেছে দুর্দান্ত এক ম্যাচ। আমি সব সময় জোর দিই দলের কাঠামোতে, যেখানে ভিন্ন সামর্থ্যের খেলোয়াড়রা থাকে। তাদের জন্য যেন সুযোগ তৈরির ব্যাপার থাকে। আজ তা করতে পারায় আমি আনন্দিত।’

লা লিগায় পরশুর আরেক ম্যাচে রায়ো ভায়েকানোকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে সেভিয়া। লা লিগায় নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই হ্যাটট্রিক আন্দ্রে সিলভার। ১৯৯৩ সালে বার্সেলোনার জার্সিতে রোমারিও অভিষেক ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে গড়েছিলেন যে কীর্তি। ২৫ বছর পর এর পুনরাবৃত্তি যে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডে, তাঁর গেল মৌসুমটা কেটেছে দুঃস্বপ্নের মতো। এসি মিলানের হয়ে সিরি ‘এ’-তে ২৪ ম্যাচ খেলে করেছিলেন মোটে দুই গোল। সেখানে দল বদলে সেভিয়ার জার্সিতে এক ম্যাচেই তিন গোল সিলভার! মার্কা



মন্তব্য