kalerkantho


শুরু হচ্ছে জুভেন্টাসের রোনালদোর

১৮ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



শুরু হচ্ছে জুভেন্টাসের রোনালদোর

আজ সিরি ‘এ’ অভিষেক হচ্ছে রোনালদোর—শিয়েভো ভেরোনার বিপক্ষে। মেসির সঙ্গে অদৃশ্য এক প্রতিযোগিতা তাঁর থাকবে নিশ্চিতভাবে; তবে দৃশ্যমান দ্বৈরথ নিজের সঙ্গেই। ৩৩ বছর বয়সে নতুন এক লিগে নিজেকে কিভাবে মানিয়ে নেন রোনালদো—কৌতূহল নিয়ে সেদিকে তাকিয়ে থাকবে ফুটবলবিশ্বও।

 

বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১০টায় মাঠে নামবেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। রাত সোয়া ২টায় লিওনেল মেসি। নতুন মৌসুমের শুরুটা কেমন হয় এ দুই মহাতারকার, একের জবাব আরেকজন দিতে পারেন কি না, দুই ক্লাবের মধ্যে রেসের প্রথম ল্যাপে এগিয়ে যাবে কার দল—এ নিয়ে বিস্তর কৌতূহল থাকাটাই তো স্বাভাবিক। অন্তত গেল ৯ মৌসুম ধরে তা-ই হয়ে আসছে।

 

এবারও তা হয়তো হবে, তবে মাত্রাটা ভিন্ন। রোনালদো-মেসি যে আর অভিন্ন লিগে নেই! আর্জেন্টাইন জাদুকর আছেন পুরনো বার্সেলোনাতেই, তবে পর্তুগিজ সম্রাট রিয়াল মাদ্রিদের ঠিকানা বদলে নাম লিখিয়েছেন জুভেন্টাসে। সেখানে আজ সিরি ‘এ’ অভিষেক হচ্ছে রোনালদোর—শিয়েভো ভেরোনার বিপক্ষে। মেসির সঙ্গে অদৃশ্য এক প্রতিযোগিতা তাঁর থাকবে নিশ্চিতভাবে; তবে দৃশ্যমান দ্বৈরথ নিজের সঙ্গেই। ৩৩ বছর বয়সে নতুন এক লিগে নিজেকে কিভাবে মানিয়ে নেন রোনালদো—কৌতূহল নিয়ে সেদিকে তাকিয়ে থাকবে ফুটবলবিশ্বও।

‘এল কোলপো দেল সেকোলো’—ইতালিয়ান দৈনিকের খেলার পাতা খুললেই এ বাক্যটি দেখা যায়। ফুটবল নিয়ে টিভি খবর বা অনুষ্ঠানেও শোনা যায়  তা। ‘শতাব্দীর সেরা চুক্তি’—হিসেবেই যে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে রোনালদোর জুভেন্টাসে আসাকে বর্ণনা করছেন সবাই। এমন কিছু যে হতে পারে, তা কারো কল্পনায় ছিল না। এজেন্ট হোর্হে মেনদেস যখন প্রথম সে প্রস্তাব করেন জুভেন্টাসকে, ইতালিয়ান ক্লাবটিও ধাক্কা খায় শুরুতে। পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ীকে দলে আনার সুযোগ হারায় কিভাবে তারা! আবার ৩৩ বছরের একজনের পেছনে প্রায় সাড়ে তিন শ মিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগও কি যথার্থ? দলবদলের ১১৭ মিলিয়ন এবং চার বছরের বেতনের ২২৪ মিলিয়ন ইউরো, তবু শেষ পর্যন্ত দিতে রাজি হয়েছে তারা। আর মাঠের বাইরের ‘রোনালদো-ভূমিকম্পে’ সে অর্থ উঠে আসতেও শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত গড়ে প্রতি মিনিটে একটি করে রোনালদোর জুভেন্টাসের জার্সি বিক্রি হচ্ছে। ফেসবুক-টুইটার-ইনস্টাগ্রামের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জুলাই মাসের ভিউ হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনা-ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো জনপ্রিয় সব ক্লাবকে ছাড়িয়ে গেছে জুভেন্টাস। একমাত্র রোনালদোর কারণেই। হবে না? ওই তিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মিলিয়ে রোনালদোর অনুসারী সংখ্যা ৩৩৪.৯ মিলিয়ন। আর জুভেন্টাসের মোটে ৫৫.১ মিলিয়ন। এর মধ্যে আবার ছয় মিলিয়ন যোগ হয়েছে এই পর্তুগিজ তুরিনের ক্লাবে যোগ দেওয়ার পর। শেয়ারবাজারে জুভেন্টাস ক্লাবের শেয়ারের দরও বাড়ছে হু হু করে। মাঠের বাইরে রোনালদো-জুয়ায় তাই জয়ের পথেই জুভেন্টাস।

এবার মাঠের খেলায় জয়ের চ্যালেঞ্জ। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ইংল্যান্ড জয়ের পাশাপাশি জয় করেছেন ইউরোপ। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে দেশ-মহাদেশও। এবার ৩৩ বছর বয়সে আরেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি রোনালদো। সিরি ‘এ’তে গেল সাতবারের চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস; ইতালি জয় তাই হয়তো কঠিন কিছু নয়। কিন্তু নতুন লিগে কেমন করেন রোনালদো; গোলের ফল্পুধারা বরাবরের মতো বয় কি না তাঁর পা-মাথা থেকে—সেসব দেখার রয়েছে নিশ্চয়ই। আর প্রায় দুই যুগ বাদে জুভেন্টাসকে ইউরোপসেরা করার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জটাও তো থাকছেই।

জুভেন্টাসের জার্সিতে শিয়েভো ভেরোনার বিপক্ষে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে আজই অভিষেক হচ্ছে রোনালদোর। তাঁর আগমনে সামগ্রিক অর্থেই ইতালি ফুটবলে নতুন প্রাণপ্রতিষ্ঠা হবে বলে ধারণা সবার। ইতালিয়ান কিংবদন্তি দিনো জফের কথাটাই শুনুন, ‘চ্যাম্পিয়নশিপের মান বাড়িয়ে দেবে রোনালদো। তাতে লাভ সবার। এখন রোনালদো থাকায় সবার নজর থাকবে সিরি ‘এ’-র দিকে। ওর পথ ধরে অন্যান্য বড় ফুটবলারও হয়তো আসবে ইতালিতে।’ তবে রোনালদোর আগমনে জুভেন্টাস সিরি ‘এ’ ট্রফিতে এক হাত দিয়ে রেখেছে বলে ভাবছেন যাঁরা, তাঁদের সঙ্গে একমত নন কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি, ‘পাঁচটি ব্যালন ডি’অর জিতেছে রোনালদো। আমাদের সঙ্গে অনুশীলন করছে ১০ দিন ধরে। ও যে ভিন্ন পর্যায়ের ফুটবলার, সেটি সবাই দেখছেন। বাকি ফুটবলারদের জন্য ও বড় অনুপ্রেরণা। তবে রোনালদো থাকার কারণেই আমরা জিতে যাব, এমন ভাবার কোনো কারণ নেই।’

শুধু রোনালদো নন, জুভেন্টাস এবার আরো দলে ভিড়িয়েছে লিওনার্দো বোনুচ্চি, জোয়াও কানসেলো, এমরে কান, মাতিয়া পেরিনকে। গেল মৌসুমে ধারে খেলা দগলাস কস্তাকে কিনেছে স্থায়ীভাবে। নিজেদের সেরা মেনেও এটিকে শিরোপা জয়ের জন্য যথেষ্ট ভাবছেন না আলেগ্রি, ‘কাগজ-কলমে আমরা সিরি এ-র সেরা দল। কিন্তু শিরোপা জয়ের জন্য তা যথেষ্ট নয়। কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য আমাদের প্রবল ইচ্ছার প্রমাণ প্রতিদিন দিতে হবে।’

রোনালদো যে তা দেবেন, এর পক্ষে বাজি ধরতে পারেন নিশ্চিন্তে। তাঁর ক্যারিয়ারটাই তো দাঁড়িয়ে সেই অদম্য ইচ্ছাশক্তির ওপর। ৩৩ বছর বয়সে নতুন চ্যালেঞ্জ নেওয়ার প্রেরণাও সেটি। তাতে জিতবেন কি না, এর উত্তর মেলানো শুরু আজ থেকে। এএফপি



মন্তব্য