kalerkantho


জিদানের গন্তব্য ম্যানইউ!

১৬ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



জিদানের গন্তব্য ম্যানইউ!

ফ্রান্সের ক্রীড়াবিষয়ক সবচেয়ে জনপ্রিয় দৈনিক লেকিপ বোমা ফাটানোর মতো করে খবরটা দিয়েছে। ট্যাবলয়েড পত্রিকাটির প্রথম পৃষ্ঠাজুড়ে জিনেদিন জিদানের ছবি, ব্যাকগ্রাউন্ডে ওল্ড ট্র্যাফোর্ড। শিরোনাম আন্দাজ করাই যায়, ‘ম্যানইউতে চোখ জিনেদিন জিদানের।’ পত্রিকাটির দ্বিতীয় ও তৃতীয় পৃষ্ঠাও বরাদ্দ এই খবরে। বিশ্ব মিডিয়ায় যা ছড়াতে সময় লাগেনি।

এর দুটি কারণ, একে তো ম্যানইউতে হোসে মরিনহোর এখন টালমাটাল অবস্থা, ওদিকে টানা তিন চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী কোচ স্রেফ খালি হাতে বসে আছেন। দুইয়ে দুই খুব সহজেই মিলছে। কেউ কেউ এমন মন্তব্য প্রতিবেদনও লিখে ফেলেছেন ফরাসি কিংবদন্তি যদি সত্যিই ম্যানইউতে আসতে চান, তবে এই মুহূর্তেই মরিনহোকে বরখাস্ত করা হোক। লেকিপের প্রতিবেদন বলছে আগামী মৌসুমে পর্তুগিজ কোচের চেয়ারে বসতে যাচ্ছেন সাবেক রিয়াল কোচ। গত মৌসুমে একটাও শিরোপা না জেতা মরিনহো তো জানিয়েই রেখেছেন, এই মৌসুম আরো কঠিন যাবে। দলবদল নিয়ে ক্লাব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে লেগে গেছে তাঁর। পাঁচজন খেলোয়াড়ের নাকি তালিকা দিয়ে রেখেছিলেন এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারম্যান এড উডওয়ার্ডসকে। তাঁর একজনকেও কেনা হয়নি। অভিজ্ঞ একজন সেন্টার ব্যাকের জন্য হাঁপিয়ে মরেছেন এই কোচ। হ্যারি ম্যাগুইয়ার, টোবি অল্ডারভিয়েরেল্ড, ইয়েরি মিনা, জেরোমে বোয়েটেং, ডিয়েগো গোদিনদের কেউই সাড়া দেননি। বড় বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা পারফরমার পল পগবাকে নিয়ে, ফরাসি তারকা ম্যানইউ ছাড়তে চান—সমর্থকদের জন্য এই খবর বড় ধাক্কা হয়েই এসেছে। লিভারপুলের কাছে বড় হারে দলের প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিও হয়েছে যা-তা। সব মিলিয়ে তৃতীয় মৌসুমে তাঁর প্রতি আস্থা কমে গেছে অনেকটাই।

ওদিকে জিনেদিন জিদানকে জুভেন্টাস পরিচালকের প্রস্তাব দিয়ে রাখলেও তিনি সাড়া দেননি। তার মানে কোচিংয়েই থাকতে চান তিনি। তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী কোচ যেকোনো ক্লাবেও যেতে পারে না। স্পেনে রিয়ালের মানে শুধু বার্সেলোনাই আছে, জিদানকে সেখানে চিন্তা করাটা বাড়াবাড়িই। ইতালিতে জুভেন্টাসও ম্যাসিমিলিয়ানো আলেগ্রিকে নিয়ে যথেষ্ট ভালোই আছে। বায়ার্ন মিউনিখ তো এই মৌসুমেই নতুন দায়িত্ব দিলো নিকো কোবাচকে। ফ্রান্সে প্যারিস সেন্ত জার্মেই থেকেও সব সময় দূরেই থেকেছেন তিনি। রইল প্রিমিয়ার লিগ, সেখানে একমাত্র ম্যানইউই দ্বন্দ্ব-বিদ্রোহে জেরবার। ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল ক্লাবটিতে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে সফল কোচকে কল্পনা করাই যায়। আর লেকিপের প্রতিবেদন বলছে জিদানও তাতে আগ্রহী। একটা সময়ে ফ্রান্সের পরবর্তী কোচ ধরা হচ্ছিল তাঁকে। কিন্তু দিদিয়ের দেশম বিশ্বকাপ জেতায় সেই চেয়ার সহজে খালি হচ্ছে না। কোচিংয়ে ফিরলে ফরাসি কিংবদন্তি তাই ইংল্যান্ডেই ফিরতে পারেন। পেপ গার্দিওলা, ইয়ুর্গেন ক্লপ, মরিসিও সারি, পচেত্তিনোতে প্রিমিয়ার লিগে সেই লড়াইটাও যে জমজমাট। লেকিপ, মেট্রো



মন্তব্য