kalerkantho


অর্জুন টেন্ডুলকার যখন ‘মাঠকর্মী’

১১ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



অর্জুন টেন্ডুলকার যখন ‘মাঠকর্মী’

তাঁর বাবা সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার। ভিআইপি গ্যালারিতে বসেই লর্ডস টেস্ট উপভোগ করছিলেন টেন্ডুলকার। চাইলে অর্জুনও থাকতে পারতেন বাবার পাশে। কিন্তু বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় দিন নেমে পড়লেন মাঠে। হাত চালালেন মাঠকর্মীদের সঙ্গে! কখনো গজ ফিতা এগিয়ে দিয়ে সাহায্য করছিলেন মাঠকর্মীদের। কখনো মাঠে থাকা পানির বালতি আনছিলেন বাইরে। টিনএজ এ ক্রিকেটারের এভাবে সবার সঙ্গে মিশে যাওয়া প্রশংসনীয় হয়েছে যথেষ্ট। খোদ লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ড কর্তৃপক্ষের টুইট, ‘শুধু এমসিসির সঙ্গে অনুশীলনই করেননি, আমাদের কর্মীদের সাহায্যও করলেন অর্জুন টেন্ডুলকার।’

লর্ডসে এমসিসির সঙ্গে অনুশীলন করছেন কিছুদিন আগে ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দলে ডাক পাওয়া অর্জুন। ইংল্যান্ড-ভারতের দ্বিতীয় টেস্ট চলার সময় স্বাভাবিকভাবেই আছেন লর্ডসে। অনুশীলনের ফাঁকে মাঠে থেকে মাঠকর্মীদের সাহায্য করা এ জন্যই। গত মাসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যুব টেস্ট দলে অভিষেক হয়েছে অর্জুনের। সেটা অবশ্য স্মরণীয় হয়নি। প্রথম ম্যাচের বোলিং ফিগার ১/৩৩ ও ১/৩২। ব্যাট হাতে ফিরেছেন শূন্য রানে। দ্বিতীয় টেস্টে ৩৯ রানে ১ পেয়েছেন একটি। আর ব্যাট হাতে এসেছে ১৪ রান। তাই বাদ পড়েন ওয়ানডে দল থেকে। আলো না ছড়ালেও শচীন টেন্ডুলকার খুশি তাঁর ছেলে অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলায়, ‘অর্জুন গর্বিত করেছে আমাদের। ভারতের মতো এত বড় দেশে অনূর্ধ্ব-১৯ দলে সুযোগ পাওয়া বিশেষ কিছু।’

শচীন টেন্ডুলকার ডানহাতি হলেও ছেলে অর্জুন ব্যাট করেন বাঁ হাতে। বাঁ হাতে মিডিয়াম পেসও খারাপ করেন না একেবারে। তাই লর্ডসে নেটে বিরাট কোহলি ডেকে নিয়েছিলেন অর্জুনকে। তাঁর কয়েকটা বল খেলতে বেগ পেতে হয়েছিল সময়ের সেরা এই ব্যাটসম্যানকে। মুরালি বিজয়ও নেটে খেলেছেন অর্জুনকে।

লন্ডনে অবশ্য অন্য আরেকটা কারণে আলোচনায় ছিলেন অর্জুন। ইংলিশ নারী দলের ক্রিকেটার ড্যানিয়েলা ওয়েটের সঙ্গে লাঞ্চ করেছিলেন তিনি। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন নিজেই। এই ড্যানিয়েলা হৈচৈ ফেলেছিলেন বিরাট কোহলিকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে। কোহলি সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন আনুশকা শর্মার সঙ্গে। সেই ড্যানিয়েলার সঙ্গে লাঞ্চে যাওয়ায় নানা গুঞ্জন ভারতীয় মিডিয়াজুড়ে। পিটিআই



মন্তব্য