kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

নিজেকে ফিরে পেতে হবে আগে

২৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



নিজেকে ফিরে পেতে হবে আগে

একটা সময়ে মেয়েদের শ্যুটিংয়ের সবচেয়ে বড় নাম ছিলেন শারমিন আক্তার রত্না। গত তিন বছর জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই শ্যুটার আবারও ফিরেছেন ক্যাম্পে। এতে ক্যারিয়ারের নতুন শুরুরও স্বপ্ন দেখছেন এসএ গেমস ও কমনওয়েলথ চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতা এই শ্যুাটার। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে নিজের এই প্রসঙ্গেই কথা বলেছেন তিনি

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : একটা সময় জাতীয় দলের ক্যাম্পই ছিল আপনার বাড়িঘর। অনেক দিন পর আবার ফিরলেন সেই ক্যাম্পে, কেমন লাগছে?

শারমিন আক্তার : আলাদা কিছু মনে হচ্ছে না। আসলে এসব নিয়ে বিশেষ কিছু ভাবারও সুযোগ নেই আমার। এখন যতটা সম্ভব নিজের খেলায় মনোযোগী হওয়ার চেষ্টা করছি। নিজের কন্ডিশনটা এখনো পুরোপুরি বুঝে উঠতে পারিনি। আমার সেরা ফর্মটা আগে ফিরে পেতে হবে আমাকে।

প্রশ্ন : এশিয়ান গেমসের আগে আগে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পেলেন, গেমসে খেলার সম্ভাবনা কতটা?

শারমিন : এশিয়ান গেমসের দলে থাকা না থাকা নিয়ে আমি কিছু বলতে পারছি না। আমার কাছে এখন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ নিজেকে ফিরে পাওয়া। সেটা নিয়েই ভাবছি আমি। গেমসের আগ পর্যন্ত আমি আমার সেরা ফর্মে থাকতে পারলে নিশ্চয় খেলার সুযোগ হবে। আর তা না হলেও ক্ষতি নেই। সামনে জাতীয় দলের আরো অনেক আসর আছে যেমন, বিশ্ব্বকাপ, এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ— সেগুলোতে আমি আবার নিয়মিত হতে চাই।

প্রশ্ন : ২০১২ অলিম্পিক খেলেছিলেন আপনি, মাঝখানে আরো একটি অলিম্পিক চলে গেল, আবার জাতীয় দলে ফিরে নিজের কী লক্ষ্য ঠিক করছেন আপনি?

শারমিন : আমি এখনই বেশি দূর তাকাচ্ছি না। সামনে যেসব টুর্নামেন্ট আছে সেগুলোতেই সুযোগ করে নিয়ে ভালো পারফরম করাটাই এখন আমার কাছে গুরুত্ব পাচ্ছে সবচেয়ে বেশি।

প্রশ্ন : জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ হয়েছে গত অক্টোবরে, এর পর থেকে তো আর খেলার মধ্যে ছিলেন না আপনি। জাতীয় দলে আবার ডাক পেলেন কি সেই পারফরম্যান্সেই?

শারমিন : গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে আমি রুপা জিতেছি, সোনা জিতেছি ৫০ মিটার থ্রি পজিশন ইভেন্টে। দলে ডাকলে আসলে তখনই ডাকতে পারত। এখন তাঁরা ডেকেছে আমাকে প্রয়োজন মনে করেই হয়তো বা। তা ছাড়া আমার ক্লাব থেকেও এর মধ্যে ফেডারেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল।

প্রশ্ন : দেশের হয়ে আবারও খেলার সুযোগ হতে পারে আপনার, এই ভাবনায় কতটা রোমাঞ্চিত হচ্ছেন?

শারমিন : সব খেলোয়াড়েরই স্বপ্ন বা মূল লক্ষ্য থাকে দেশের হয়ে খেলা। দেশের জন্য বড় কোনো সম্মান বয়ে আনার। আমিও তো এর বাইরে না। আবার সেই সুযোগ পেলে সত্যিই খুশি হব।



মন্তব্য