kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত উপভোগ্য ছিল ম্যাচগুলো

১৮ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত উপভোগ্য ছিল ম্যাচগুলো

বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেলেও এখনো তার রেশ কাটেনি। সারা বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীদের মধ্যে টুর্নামেন্ট নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনা চলছে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার শফিকুল ইসলাম মানিক কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে বলেছেন তাঁর এবারের আসর দেখার অভিজ্ঞতার কথা

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : কতটা উপভোগ করেছেন এবারের বিশ্বকাপ?

শফিকুল ইসলাম মানিক : খুবই উপভোগ করেছি। অন্য রকম একটা আসর হয়েছে এবার। ফেভারিটদের হিসাব-নিকাশ পাল্টে গেছে। যাদের নিয়ে সেভাবে আলোচনা হয়নি তারাও দলগত পারফরম্যান্সে নজর কেড়েছে। ফাইনালে ওঠা ক্রোয়েশিয়াই তো ফেভারিট তালিকায় ছিল না। বেলজিয়ামকে এবার ফেভারিট ধরা হচ্ছিল, তাদের পারফরম্যান্স মন ভরিয়ে দিয়েছে। এদিনসন কাভানি থাকলে উরুগুয়েও হয়তো এবার অনেক দূর আসত।

প্রশ্ন : চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে কেমন মনে হয়েছে?

মানিক : গ্রুপ পর্বে সেভাবে তারা নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি। গোলও কম করেছে। কিন্তু নক আউট পর্বে এসে দারুণ করেছে ওরা। প্রতিটা ম্যাচ নিয়ে ওদের আলাদা পরিকল্পনা ছিল সেভাবেই খেলেছে। পরাশক্তিগুলোর মধ্যে ওরাই টিকে ছিল শেষ পর্যন্ত, ফাইনালেও খুব বেশি সমস্যা হয়নি।

প্রশ্ন : এই আসরের বিশেষত্ব কী বলবেন?

মানিক : ছোট-বড়র ব্যবধান কমে গিয়েছিল এবার। কোনো ম্যাচেই আগেভাগে কাউকে ফেভারিট ধরা যাচ্ছিল না। ম্যাচগুলো হয়েছে দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। একটা দল ২ গোল দিয়েও নিশ্চিত হতে পারছিল না। শেষ মুহূর্তে গোল হয়েছে অনেক। তাতে ম্যাচগুলো আরো উপভোগ্য হয়েছে। একটা দল প্রথম দুই ম্যাচই হয়তো হেরেছে, তাদেরও তৃতীয় ম্যাচে পিছিয়ে রাখা যাচ্ছিল না। পোল্যান্ড, পেরু, কোরিয়া যেমন শেষ ম্যাচে গর্ব করার মতো জয় নিয়েই ফিরেছে দেশে। তাতে টুর্নামেন্টেরও আকর্ষণ বেড়েছে অনেকখানি।

প্রশ্ন : ব্যক্তিগত ঝলক কেমন দেখলেন?

মানিক : লিওনেল মেসি, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, নেইমাররা যতক্ষণ মাঠে ছিল সেই ঝলক তো ছিলই। শতভাগ হয়তো পাইনি আমরা তাদের কাছ থেকে। মেসি যে দল নিয়ে খেলেছে তাতে খুব বেশি কিছু করার সুযোগও ছিল না। স্পেনের বিপক্ষে দারুণ খেলা রোনালদোও একা পর্তুগালকে খুব বেশি দূর নিয়ে যেতে পারেনি। তাদের বাইরে এদিনসন কাভানি, টনি ক্রোস, লুকা মডরিচ, কৌতিনিয়োরাও নিজেদের সামর্থ্য দেখিয়েছে এই আসরে।

প্রশ্ন : এশিয়ান দলগুলোর পারফরম্যান্স...

মানিক : হ্যাঁ, এশিয়া এবার আফ্রিকা, ইউরোপ, লাতিন আমেরিকা অর্থাৎ প্রায় সবাইকে হারিয়েছে। ইরান সমীহ আদায় করেছে। কোরিয়া দেখিয়েছে তারা শুধুই অংশ নিতে আসেনি। জাপান তো আসরের অন্যতম সেরা দলই ছিল। জাপান-বেলজিয়াম ম্যাচের শেষ ৩০ মিনিট যে ফুটবল রোমাঞ্চ উপহার দিয়েছে, তা-ও এই আসরের সেরা।



মন্তব্য