kalerkantho


রোনালদোর সামনে ইরান ‘দেয়াল’

২৫ জুন, ২০১৮ ০০:০০



রোনালদোর সামনে ইরান ‘দেয়াল’

প্রতিপক্ষ হিসেবে কারা বেশি শক্ত? পর্তুগাল নাকি ইরান? স্প্যানিশ লেফট ব্যাক ইহোর্দি আলবার বিশ্লেষণটা অনেকের কাছে বিস্ময়করই ঠেকতে পারে। কিন্তু তিনি বলছেন যে মাঠের খেলায় শক্ত প্রতিরোধের মুখোমুখি হওয়ার অভিজ্ঞতা থেকেই এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পেরেছেন তিনি, ‘পর্তুগাল আমাদের (গোলের) কাছে আসতে পেরেছিল মাত্র তিনবার। একটা সন্দেহজনক পেনাল্টি, ফ্রিকিক থেকে ক্রিস্তিয়ানোর (রোনালদো) অবিশ্বাস্য সুযোগ কাজে লাগানো এবং আমাদের গোলরক্ষকের (দাভিদ দে গেয়া) ভুলের সময়ে। পর্তুগালের চেয়ে আমরাই শ্রেয়তর দল ছিলাম। মানুষ হয়তো মনে করতে পারে যে ইরান হয়ত সেই পর্যায়ের দল নয়। কিন্তু মাঠে পর্তুগালের চেয়ে ওরাই আমাদের জীবন অতিষ্ঠ করে তুলতে পেরেছিল বেশি।’

একইভাবে আজ মাঠে পর্তুগিজদের জীবনও অতিষ্ঠ করে তুলে নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে চায় ইরানও। ৪ পয়েন্ট করে পাওয়া স্পেন ও পর্তুগালের পেছনে বি গ্রুপে তিন নম্বরে অবস্থান করা ইরানের সেই সুযোগ আছেও। ভিএআর-এর মাধ্যমে তাদের সমতাসূচক গোলটি বাতিল না হলে তো স্পেনকেও আরেকটু হলে আটকে দিতে চলেছিল ইরান। কিন্তু ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর নেতৃত্বে যেভাবে ছুটছে পর্তুগাল, তাতে ইরানের পক্ষে তাদের হারানোটা হবে অনেকটা পাহাড় ডিঙানোর মতো। দুই ম্যাচে পর্তুগালের চার গোলের সবকটিই করেছেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর বিজয়ী। তবে শুধু এই আসরই নয়, বিশ্বকাপে পর্তুগিজ দলের সবশেষ পাঁচটি গোলই ‘সিআর সেভেন’-এর। বিশ্বকাপে নিজ দলের সবশেষ পাঁচ বা ততোধিক গোলের সবশেষ ঘটনা ১৯৯৪ সালের বিশ্বকাপে। রাশিয়ার ওলেগ সালেঙ্কো করেছিলেন টানা ছয় গোল। এবার গোলে গোলে নিত্যনতুন রেকর্ড গড়ে চলা রোনালদো ‘গোল্ডেন বুট’ জেতার লড়াইয়ে নিশ্চিতভাবেই আজ আরো এগিয়ে যেতে চাইবেন। সেক্ষেত্রে তাঁর ইরান অনুপ্রেরণাও আছে। ২০০৬ সালে দলের ২-০ গোলের জয়ে তাঁর প্রথম বিশ্বকাপ গোলটি যে ছিল ইরানের বিপক্ষেই। সেই ইরান আজ আবার রোনালদোর সামনে।

রিয়াল মাদ্রিদ তারকা আবারো লক্ষ্যভেদ করে পর্তুগালের শেষ ষোলো নিশ্চিত করতে চাইবেন। আজ যদি প্রত্যাশিতভাবে পর্তুগাল ইরানকে এবং গ্রুপের অন্য ম্যাচে স্পেন মরক্কোকে হারায়, সেক্ষেত্রে দুই শক্তিশালী দলেরই পয়েন্ট সমান (৭) হয়ে যাবে। দু’দল যদি আজ একই ব্যবধানে জেতে, তাহলে গোল পার্থক্যেও গ্রুপ সেরা নির্দিষ্ট করার উপায় থাকবে না। তাহলে উপায়? নিয়মানুযায়ী যে দল যত কম হলুদ কার্ড পেয়েছে, সেই দলই হবে গ্রুপের সেরা। কিন্তু পর্তুগালকে যে ওই জায়গাতেই যেতে দিতে চায় না ইরান। তাদের ফরোয়ার্ড করিম আনসারিফার্দ যেন দিয়ে রাখলেন সে হুঙ্কারই, ‘আগের বিশ্বকাপ থেকে আমরা অনেক কিছু শিখেছি এবং জেনেছি যে এবার কিভাবে পর্তুগালের বিপক্ষে খেলতে হবে। ইরানের আছে বিশ্বের সেরা কোচ (কার্লোস কুইরোজ) এবং তিনি আমাদের শিখিয়েছেন কিভাবে প্রতিপক্ষের সঙ্গে লড়াই করতে হয়। আমরা তাই শেষ গ্রুপ ম্যাচে পর্তুগালকে হারাতে তৈরি।’ তৈরি নিশ্চয়ই রোনালদোও। ইরানকে গোলে ভাসাতে! ফিফা

 



মন্তব্য